SCORE

মিডিয়ার ‘অপপ্রচারে’ ক্ষুদ্ধ প্রীতি জিনতা

আইপিএলের চলতি আসরের নিলামে ভালোই দল গঠন করেছে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। নিলামে উপস্থিত ছিলেন ফ্র্যাঞ্চাইজিটির অংশীদার এবং দলের মেন্টর বীরেন্দ্র শেবাগ। এই আসরে মাঠের লড়াইয়েও বেশ এগিয়ে রয়েছে দলটি। তবে বিপত্তি বেঁধেছে রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে ম্যাচে পাঞ্জাবের পরাজয়ের পরই।

মিডিয়ার ‘অপপ্রচারে’ ক্ষুদ্ধ প্রীতি জিনতা

ভারতের এক সংবাদ মাধ্যম ‘মুম্বাই মিরর’ প্রকাশ করেছে রাজস্থানের বিপক্ষে হারের জন্য মেন্টর শেবাগকেই দোষারোপ করছেন পাঞ্জাবের আংশিক মালিক এবং বলিউড অভিনেত্রী প্রীতি জিনতা। মূলত শেবাগের পরীক্ষা-নিরীক্ষার কারণেই রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে ১৫ রানে হেরেছে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। সেই সাথে ওই ম্যাচে দলের অধিনায়ক রবি অশ্বিন ব্যাটিং করতে নামেন তিন নম্বর পজিশনে। বিষয়টি মোটেও ভালো চোখে দেখেননি প্রীতি।

Also Read - "সত্যি কথা, আমি ভেঙে পড়িনি"

ভারতের সংবাদ মাধ্যমটি আরও প্রকাশ করে, দলের একাদশ এবং পরিকল্পনার ব্যাপারে প্রীতি যাতে নাক না গলায় সেটি ফ্র্যাঞ্চাইজিটির বাকি মালিকদের কাছে জানিয়েছেন শেবাগ। গুঞ্জন উঠেছিল প্রীতির সঙ্গে ঝামেলার কারণে পাঞ্জাবের দায়িত্ব ছেড়ে দিতে পারেন শেবাগ। তবে ‘মুম্বাই মিররের’ প্রকাশিত সংবাদটিতে চটেছেন প্রীতি জিনতা। টুইটারে এই বিষয়ে মুখ খুলেন দলটির আংশিক মালিক।

‘মুম্বাই মিরর আবারও বুঝতে ভুল করল। কারণ আমরা মিডিয়া নেটের মতো নই এবং লেখার জন্য তাঁদের টাকাপয়সাও দিই না। কারণ ওই একটা সময়েই তারা সব ঠিকঠাকমতো বুঝতে পারে। শেবাগ ও আমার মধ্যে আলোচনাটা অতিরঞ্জিত করা হয়েছে, হঠাৎ করেই আমি খলনায়ক হয়ে গেলাম!’

প্রীতির পাশাপাশি কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের পক্ষ থেকেও দেওয়া হয়েছে  বিবৃতি। সেখানে জানিয়েছে, তাঁদের ব্যাপারটি নিয়ে ভুল বুঝছে দর্শকরা। তৃতীয় পক্ষ থেকেই এমন নিউজ ছাপানো হয়েছে বলে দাবি করে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব।

উল্লেখ্য, আইপিএলের এই আসরে দারুণ ছন্দে রয়েছে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। ইতোমধ্যে ১০ ম্যাচে ৬ জয়ে পয়েন্ট টেবিলের তৃতীয় স্থানে রয়েছে দলটি। এই দলে রয়েছে ক্রিস গেইল, অ্যারন ফিঞ্চ, অ্যান্ড্রু টাই, ডেভিড মিলারের মত তারকা ক্রিকেটাররা।

আরও পড়ুনঃ সেদিন ভেঙে পড়েননি রুবেল!

Related Articles

আইপিএলে জুয়ার সঙ্গে জড়িত আরবাজ খান!

প্রেসিডেন্টের পরেই স্থান রশিদের!

‘টি-টোয়েন্টি হটাও, টেস্টে মনোযোগ দাও’

পারফরম্যান্স বিবেচনায় সাকিবের মূল্য প্রায় ৯ কোটি!

“আরেক ওভার করলে তো ম্যাচ ওখানেই শেষ!”