মিরপুরের বিতর্কিত উইকেটের দায় নিজের কাঁধে নিচ্ছেন মাহবুব

নাজুক উইকেটের কারণে প্রায়ই সমালোচিত হতে হয় মিরপুর স্টেডিয়ামকে। ধীর আর নিচু উইকেটের কারণে এখানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বা বিপিএল আয়োজন হলে বিতর্কের সৃষ্টি হয়, অসন্তোষ দেখা দেয় খেলোয়াড়দের মধ্যেও। এজন্য অনেকেই দোষারোপ করেন মিরপুরের প্রধান কিউরেটর গামিনি ডি সিলভাকে।

মিরপুরের প্রধান কিউরেটর গামিনি ডি সিলভা।

তবে বিসিবির গ্রাউন্ডস কমিটির চেয়ারম্যান মাহবুব উল আনাম সব দায়ভার তার কাঁধেই নিচ্ছেন। তার দাবি, মিরপুরে এত খেলা আয়োজনের পর উইকেটের আর উন্নতি করা সম্ভব নয়।

Advertisment

তিনি বলেন, ‘আমি কাউকে নিয়ে আলাদাভাবে মন্তব্য করব না। বছরে দেশে তিন হাজার খেলা হয়। মিরপুরের মত স্টেডিয়ামে ৬০ দিনের বেশি খেলা উচিত না। সেখানে জানুয়ারি থেকে শুরু করে ১২০ দিন খেলে ফেলেছি আমরা। এখানে স্বয়ং বিধাতা এসেও আমার মনে হয় না কোনোভাবে (উন্নতি) সম্ভব। দায়টা আমি নেব, আমাদের বোর্ড হিসেবে নেওয়া উচিৎ।’

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে মিরপুরে টানা ক্রিকেট খেলেছে বাংলাদেশ। অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জিতেছে ঐতিহাসিক দুই সিরিজ। যদিও বিশ্বকাপে দল মোটেও ভালো করতে পারেনি। অনেকেই মনে করছেন, মিরপুরের ধীর উইকেটে খেলার নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে বিশ্বকাপে। খোদ দেশের ক্রিকেটাররাও মিরপুরের উইকেট নিয়ে অসন্তুষ্ট।

মাহবুব অবশ্য এই জয়গুলোকেই সাফল্য হিসেবে দেখছেন। তিনি বলেন, ‘আপনারা কিন্তু জয়গুলো দেখেননি। আমরা অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ডের মত পরাশক্তির বিপক্ষে টেস্ট জয় করেছি। আমরা অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডকে হারিয়েছি। এখানে সব দলের বিপক্ষে জিতেছি। আমাদের যে সমালোচনাগুলো হয় তা অজ্ঞতার কারণে। আমরা যদি বৈজ্ঞানিকভাবে উপলদ্ধি করি, তাহলে অনেক কিছু ভালো শোনাবে।’

এছাড়া বাংলাদেশের মাটির কারণে প্রত্যাশা অনুযায়ী উইকেট তৈরি করা সম্ভব হয় না বলেও জানান তিনি।

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।