Scores

মিরপুরে আশরাফুলের অনবদ্য শতক

নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্ত হয়ে মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে খেলা হয় নি মোহাম্মদ আশরাফুলের। শ্রীলংকায় অনুর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ খেলতে দেশ ছাড়ার আগে যুবাদের বিপক্ষে এক প্রস্তুতি ম্যাচে অবশেষে মিরপুরে খেলার সুযোগ হলো আশরাফুলের। অনুর্ধ্ব-১৯ দলের ৫ জন ক্রিকেটার নিয়ে ছিলো আশরাফুলের লাল দল। অন্যদিকে সদ্য বিপিএল মাতানো আফিফ হোসেনের ছিলো সবুজ দল। আফিফদের বিপক্ষে এই অনুশীলন ম্যাচে দুর্দান্ত এক শতক হাঁকিয়েছেন টেস্ট ক্রিকেটের সর্বকনিষ্ট সেঞ্চুরিয়ান মোহাম্মদ আশরাফুল

196119

মিরপুরে দিবা-রাত্রির ম্যাচে আশরাফুলের লাল দল প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে করেছে ২২৪ রান। তিন নাম্বারে ব্যাটিং করতে নেমে ১১০ বলে ১১৫ রান করেছেন আশরাফুল। অনেকদিন পর মিরপুরে খেলতে নেমেই শতক হাঁকিয়ে আশরাফুল দারুণ খুশি। জাগো নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এই ক্রিকেটার জানান, “সাড়ে তিন বছর দেশের ক্রিকেটে নিষিদ্ধ থাকলেও যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্যে কিছু টুর্নামেন্টে একাধিক সেঞ্চুরি করেছি। তবে ওসব সেঞ্চুরির সঙ্গে আজকের এই সেঞ্চুরির কোনই তুলনা হয় না। কারণ নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে উঠে, কোন প্র্যাকটিস ছাড়াই এই প্রথম হোম অব ক্রিকেট শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে প্রথম ম্যাচ খেলতে নামলাম এবং সেঞ্চুরি করলাম, তাও জাতীয় যুব দলের বিপক্ষে। খুবই ভালো লাগতেছে। আফিফ বল করেছে, আরও একটা লেগ স্পিনার ছিল। তাদের বিপক্ষে সেঞ্চুরি করতে পেরে দারুণ উদ্বেলিত এবং পুলকিত। এই শতরান নিশ্চিত সামনে এগুতে অনুপ্রেরণা যোগাবে।”

Also Read - অনূর্ধ্ব ১৯ এশিয়া কাপে বাংলাদেশের ম্যাচগুলোর সময়সূচি


এদিকে বর্তমান অনুর্ধ্ব-১৯ দল নিয়ে আশাবাদী আশরাফুল বলেন, “অনুর্ধ্ব-১৯ দলের মূল ৫ জন বোলার খেলছে আমার দলে। তবুও কয়েকজন পেসারকে দেখলাম খুব জোরে বল করে। স্পিনাররাও দারুণ। এদেরকে ঘষে-মেজে তৈরি করে তুলতে পারলে বাংলাদেশের ক্রিকেটের ভবিষ্যৎ অনেক উজ্জ্বল বলেই মনে করি আমি।”

উল্লেখ্য, অনুর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপে অংশ নিতে মঙ্গলবার (১৩ ডিসেম্বর) দেশ ছাড়বে বাংলাদেশের যুবারা।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

মাঠ থেকে অবসর নেওয়ার সংস্কৃতি চান পাইলট-আশরাফুল

সিডন্সের কারণে নিজেকে দুর্ভাগা মনে করেন আশরাফুল

পন্টিংদের স্তব্ধ করে কার্ডিফ রূপকথার গল্প

১৯ জুন নিলামে উঠছে আশরাফুলের জার্সি

সুস্থ থাকতে ক্রিকেটারদের প্রতি করোনাজয়ী আশিকের পরামর্শ