মিরাজের পর এবাদতের জোড়া আঘাত

দ্বিতীয় আনঅফিসিয়াল ম্যাচে শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলের প্রথম ইনিংসে মেহেদী হাসান মিরাজের পর জোড়া আঘাত হেনেছেন এবাদত হোসেন। আশান প্রিয়াঞ্জনের পর প্রিয়ামাল পেরেরাকে সাজঘরে ফিরিয়েছেন এ পেসার।

এর ফলে দলীয় ২২১ রানে পঞ্চম উইকেটের পতন ঘটেছে স্বাগতিকদের। হাম্বানটোটায় দিনের শুরুতেই দলকে সাফল্যর মুখ দেখিয়েছিলেন মিরাজ। ১৭ রান করে সঙ্গীতকে নাজমুল হোসেন শান্ত’র হাতে ক্যাচ বানিয়ে সাজঘরে ফেরান তিনি। যার ফলে দলীয় ৩২ রানে প্রথম উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। শুরুর ধাক্কার পর দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে প্রতিরোধ গড়ে তুলে স্বাগতিকরা।

দেখেশুনে খেলে প্রথম সেশনের বাকিটা সময় পার করে দেন পাথুকা নিশাঙ্কা ও কামিন্দু মেন্ডিস। এরপর দ্বিতীয় সেশনে মাঠে নেমে খেলতে থাকেন আধিপত্য বিস্তার করে। সফরকারী বোলারদের কোনো রকম সুযোগ না দিয়েই বাড়িয়ে যেতে থাকেন দলের সংগ্রহ।

Advertisment

হাফ-সেঞ্চুরির দেখা পান দুজনেই। উইকেটের খুঁজে যখন সফরকারীরা দিশেহারা, দলকে তখন আবারও সফলতার মুখ দেখান মিরাজ। মেন্ডিসকে আউট করে ভাঙ্গেন লঙ্কানদের ১২১ রানের দ্বিতীয় উইকেট জুটি। ৮ চার ও ১ ছক্কায় ৬৮ রান করে নুরুল হাসান সোহানের হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন মেন্ডিস।

তার কিছুক্ষণ পর নিশাঙ্কাকেও সাজঘরের পথ ধরান মিরাজ। ডানহাতি এ বোলারের অফ-স্পিনে ব্যক্তিগত ৮৫ রানের সময় লেগ-বিফোরের ফাঁদে পড়েন নিশাঙ্কা। এতে করে দলীয় ১৮৮ রানে তৃতীয় উইকেট হারায় স্বাগতিকরা।

চতুর্থ উইকেট জুটিতে প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন প্রিয়াঞ্জন ও চারিথ আশালঙ্কা। তবে তাদের এ প্রচেষ্টাকে সফল হতে দেননি এবাদত। ২৮ রান করা প্রিয়াঞ্জনকে আউট করে দলকে আবারও ব্রেকথ্রু এনে দেন তিনি। দু’জনের মধ্যকার ২৯ রানের জুটি ভাঙ্গার পর পেরেরাকেও আউট করেন এবাদত। এর ফলে দলীয় ২২১ রানে পঞ্চম উইকেট হারায় লঙ্কানরা।

এ প্রতিবেদন লেখার সময়, প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ .৫ উইকেটে ২২৩ রান।

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।