Scores

মুমিনুল-মেহেদীর বিধ্বংসী ব্যাটিং; ঢাকার রান পাহাড়

জিতলে কোয়ালিফায়ার। হারলে খেলতে হবে এলিমিনেটরের ম্যাচ। এমন সমীকরণ নিয়ে লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে আজ মুখোমুখি হয়েছে দুই দল ঢাকা প্লাটুন ও খুলনা টাইগার্স। যেখানে আগে ব্যাট করে মুমিনুল হক ও মেহেদী হাসানের ফিফটিতে খুলনার সামনে ২০৬ রানের লক্ষ্য দাঁড় করেছে ঢাকা।

মুমিনুল-মেহেদীর বিধ্বংসী ব্যাটিং; ঢাকার রান পাহাড়

এদিন দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে শুরুতে ব্যাট করতে নামে ঢাকা প্লাটুন। দলের হয়ে ইনিংসের গোড়াপত্তন করতে এসে একেবারেই সুবিধা করতে পারেননি দুই ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল ও এনামুল হক বিজয়।

ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে ৫ বলে ১ রান করে তামিম এবং চতুর্থ ওভারে ১০ বলে ১০ রান করে বিজয় আউট হন রবি ফ্রাইলিঙ্কের বলে।

Also Read - ওয়াটসনের সাথে আরও খেলতে চান মুস্তাফিজ


সুবিধা করতে পারেননি জাকের আলীও। ১টা করে চার ও ছয়ের মারে ৭ বলে ১৪ রান করে শফিউল ইসলামের শিকারে পরিণত হন তিনি। এরপর ঢাকার হাল ধরেন দুই ব্যাটসম্যান মুমিনুল হক এবং মেহেদী হাসান। মুমিনুল একপ্রান্ত ধরে খেললেও অন্য প্রান্তে ব্যাট চালিয়ে খেলতে থাকেন মেহেদী। এরই এক ফাকে ৪১ বলে ফিফটি তুলে নেন মুমিনুল।

নিজের অর্ধশতক পূরণ করার পর খোলস ছেড়ে বেন হন বাঁহাতি এ ব্যাটসম্যান। শফিউলের করা ইনিংসের ১৫তম ওভার থেকে আদায় করেন ২১ রান। কম যাননি মেহেদীও। ৩১ বলে টুর্নামেন্টে নিজের তৃতীয় ফিফটি তুলে নেন তিনি।

পরে অবশ্য আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় মুমিনুলকে। ইনিংসের ১৯তম ওভারে আমিরের বলে আউট হন ৯১ রান করে। ৫৯ বলের ইনিংসটি তিনি সাজিয়েছেন ৭টি চার ও ৪টি ছয়ের মারে। শেষদিকে মেহেদীর ৩৬ বলে অপরাজিত ৬৮ রানের কল্যাণে ২০৫ রানের বিশাল সংগ্রহ পায় ঢাকা প্লাটুন। নিজের ইনিংসটিতে ৩টি চারের সাথে ৫টি ছয় হাকান মেহেদী।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ঢাকা প্লাটুন: ২০৫/৪ (২০ ওভার)
মুমিনুল ৯১, মেহেদী ৬৮*, জাকের আলী ১৪; ফ্রাইলিঙ্ক ২/৩৫, আমির ১/৩৫, শফিউল ১/৫০।

Related Articles

সুজন স্যার বলতেন, তুই-ই ম্যাচ জিতাবি : শান্ত

সর্বোচ্চ উইকেট শিকারে খুলনা টাইগার্সের দাপট

মুশফিক হাসলেন, মুশফিক চটলেন!

মুশফিকের কাছে আইপিএলের পর বিপিএলই সেরা লিগ

সমর্থকদের প্রতি মুশফিকের দুঃখপ্রকাশ