Scores

মুশফিককে আদর্শ মানেন কায়েস

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ক্যারিয়ার সেরা ১৪৪ রানের ইনিংস খেলেছেন জাতীয় দলের ওপেনার ইমরুল কায়েস। গতকাল মিরপুরে যেন অন্য এক ইমরুলকে দেখেছে সমর্থকরা। ইমরুলের মাঝে হঠাৎ এত পরিবর্তন আসলো কীভাবে? সেই জন্য কঠোর পরিশ্রমকেই প্রাধান্য দিচ্ছেন এ ওপেনার।

ওয়ানডেতে ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসটি নিজের পুত্র-সন্তানকে উৎসর্গ করেন ইমরুল। ছবিঃ বিডিক্রিকটাইম

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন ১০ বছরের বেশি হয়ে গিয়েছে। প্রাপ্তির চেয়ে আফসোসই বেশি বাংলাদেশ দলের ওপেনার ইমরুল কায়েসের। এই দশ বছরে খেলেছেন ৭৪টি ওয়ানডে! এতে আফসোস থাকারই কথা ইমরুলের। বিগত কয়েক বছরে দলে আসা যাওয়ার মধ্যেই ছিলেন তিনি। যার কারণে বেশি ম্যাচ খেলার সুযোগ হয়নি তার।

গত মাসে শেষ হওয়া এশিয়া কাপেও ডাক পেয়েছেন হুট করেই। নতুন কন্ডিশনে মানিয়ে নিতে বেশি সময় নেননি তিনি। এশিয়া কাপের আত্মবিশ্বাস কাজে লেগেছে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেও। প্রথম ওয়ানডেতে ক্যারিয়ার সেরা ১৪৪ রানের ইনিংস! হুট করেই ইমরুলের মাঝে এত পরিবর্তন, সেটা অবশ্যই অবিশ্বাস্য। তবে দলে জায়গা পাওয়ার জন্য প্রতিনিয়ত করে গিয়েছেন লড়াই ও কঠোর পরিশ্রম।

আর বাংলাদেশ ক্রিকেটে কঠোর পরিশ্রমের দিক দিয়ে মুশফিকের চেয়ে এগিয়ে নন কেউই। তাকে দেখেই অনুপ্রাণিত হন অনেক ক্রিকেটারই। তেমনি কঠোর পরিশ্রম করেই নিজের মাঝে এত পরিবর্তন এনেছেন কায়েস। সেই জন্য মুশফিককে সবসময় আদর্শ মানেন তিনি।

Also Read - তুষার-সৌম্য-বিজয়ের ব্যাটে রান অব্যাহত


“কেউ যদি পরিশ্রম করে আমি বিশ্বাস করি সাফল্য অবশ্যই আসবে। মুশফিককে দেখে অনেক কিছু শিখি। সে কষ্ট করে বলেই আজকের মুশফিকুর রহিম হয়েছে। আমি এটা বিশ্বাস করি পরিশ্রম করলে সেটার ফল পাওয়া যায়।”

যতবারই দল থেকে ছিটকে পড়েছেন ততবারই সুযোগ পেয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছেন কায়েস। তার ডাক নামের মতো ঘুরে দাঁড়ানোতেও বেশ ‘পটু’ ইমরুল। অবশ্য এই পটু নাম কোথায় থেকে আসলো সেটা জানিয়েছেন ক্ষোদ ইমরুলই।

“আমি এক খেলোয়াড়কে ডাকতাম এই নামে। পরে এটাই আমার ডাক নাম হয়ে গেছে কীভাবে বুঝলাম না।”

আরও পড়ুনঃ তুষার-সৌম্য-বিজয়ের ব্যাটে রান অব্যাহত

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন


Related Articles

ফিরে দেখাঃ ঘরের মাঠে বিশ্বকাপে বাংলাদেশ

বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুত রাখা হচ্ছে ৬ ক্রিকেটারকে

ইমরুল জানালেন— প্রস্তুত আছেন তিনি!

এলিট প্লেয়ার্স স্কিল ক্যাম্পে কায়েস-বিজয়-তাসকিনরা

ইমরুলকে আশার বাণী শোনালেন রোডস