মুশফিককে ‘সময় বুঝে’ রিভার্স সুইপ খেলার পরামর্শ ডমিঙ্গোর

বারবার রিভার্স সুইপ খেলতে গিয়ে আউট হওয়াকে যেন অভ্যাসে পরিণত করেছেন মুশফিকুর রহিম। তাতে তার অনেক ইনিংস যেমন অঙ্কুরে বিনষ্ট হচ্ছে কিংবা সম্ভাবনাময় ইনিংসের ইতি ঘটছে অপ্রত্যাশিতভাবে, ঠিক তেমনি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে দলও। যেকোনো পরিস্থিতিতেই মুশফিকের এই ঝুঁকিপূর্ণ শট খেলার প্রবণতা নিয়ে সম্প্রতি প্রশ্ন উঠেছে।

মুশফিকের 'ঝুঁকিপূর্ণ সুইপ' এ সমর্থন সিডন্সের
সুইপ খেলতে পারদর্শী মুশফিকুর রহিম। ফাইল ছবি

সর্বশেষ পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টে মুশফিকের বিলাসী রিভার্স সুইপ বাংলাদেশের ফলো অন এড়ানোর সুযোগ হাতছাড়া করিয়েছে, শেষপর্যন্ত যে ম্যাচে মেনে নিতে হয়েছে অসহায় পরাজয়। সেই ম্যাচে ইয়াসির আলী সাজঘরে ফিরলেও অর্ধশতক হাঁকিয়ে মুশফিক তখন দেখাচ্ছিলেন ফলো অন এড়ানোর স্বপ্ন। তৃতীয় দিনের লাঞ্চ বিরতির তখন বাকি আর মাত্র কয়েক মিনিট। এমন পরিস্থিতিতে রিভার্স সুইপ করতে গিয়ে বোল্ড হন সিমন হার্মারের বলে।

Advertisment

শেষপর্যন্ত আর ফলো অন এড়াতে পারেনি বাংলাদেশ। প্রোটিয়ারা বাংলাদেশকে ফলো অনে না ফেললেও মুশফিকের উচ্চাভিলাষী সেই শটে বাংলাদেশের ইনিংস বেশি দূর যায়নি। দিনের খেলা শেষে সংবাদ সম্মেলনে টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজনও মুশফিকের এই শট নিয়ে তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন

সেই থেকে আলোচনায় মুশফিকের রিভার্স সুইপ। অবশ্য প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো মুশফিকের রিভার্স সুইপের পক্ষে। তার মতে, সময় বুঝে খেলা উচিৎ এই শট।

তিনি বলেন, ‘সে দারুণ একজন রিভার্স সুইপার, যে রিভার্স সুইপ থেকেই অতীতে অনেক রান পেয়েছে এবং এই শটে সে আত্মবিশ্বাসী। একজন বাঁহাতি ব্যাটার হলে প্রথম ২০-৩০ বলেই কভার ড্রাইভিং করতে গেলে আপনি চাপে থাকবেন। ৫০-৬০ রানের পর কভার ড্রাইভ খেলা ঠিক আছে। রিভার্স সুইপের ব্যাপারটিও তাই। কখন খেলছেন এটা গুরুত্বপূর্ণ।’ 

ডমিঙ্গো তাই মুশফিককে রিভার্স সুইপে নিরুৎসাহিত করার পক্ষে নন। তিনি বলেন, ‘কেউ কোনো শট ভালো খেললে, এই শটকে ভালো অপশন মনে করলে এতে সমস্যা নেই। শট খেলার সময়টা গুরুত্বপূর্ণ। কখন এবং কেন এই শট খেলা প্রয়োজন তা বোঝা গুরুত্বপূর্ণ।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।