Scores

মুশফিকের অনাকাঙ্ক্ষিত রেকর্ড

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ‘নার্ভাস নাইনটিস’ এর ঘরে আউট হয়েছেন অনেকজনই এমনকি বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের নাম আছে এই খাতায়। তবে কোন ফরম্যাটে ৯৯ রানে আউট হওয়ার রেকর্ড আগে কখনো ছিল না বাংলাদেশের। এশিয়া কাপের অলিখিত সেমিফাইনালে সেই অপ্রত্যাশিত রেকর্ডটির মালিক হলেন মুশফিকুর রহিম।

মুশফিকের অপ্রত্যাশিত রেকর্ড

আবুধাবিতে ফাইনালে উঠার লড়ছে বাংলাদেশ ও পাকিস্তান। এই ম্যাচে আগে ব্যাটিং নিয়েছিলো বাংলাদেশ। তবে আগে ব্যাটিংয়ে সেই যথারীতি দৃশ্য দেখা গেলো এই ম্যাচেও। পুরো এশিয়া কাপেই ব্যর্থ ছিল বাংলাদেশের টপ অর্ডাররা। এই ম্যাচেও ১২ রানে তিন উইকেট হারিয়ে বসে বাংলাদেশ। এই ম্যাচেও দলের হাল ধরার দায়িত্ব আসে মুশফিকের উপর।

মুশফিককে সঙ্গ দিতে ক্রিজে ছিলেন মোহাম্মদ মিঠুন। শ্রীলঙ্কার সাথে ম্যাচেও মুশফিকের সঙ্গে জুটিতে দলকে খাদের কিনারা থেকে টেনে তুলেছেন। এই ম্যাচেও একই কাজ করেন মুশফিক-মিঠুন। দুই ব্যাটসম্যান মিলে গড়েন ১৪৪ রানের জুটি। মিঠুন ৬০ করে বিদায় নিলেও ক্রিজে তখনও ছিলেন মুশফিক।

দলের রানের চাকা সচল রাখেন তিনি। প্রথম ম্যাচের মতো এই ম্যাচেও সেঞ্চুরির দিকে এগিয়ে যাচ্ছিলেন মুশফিক। তবে এমন অপ্রত্যাশিতভাবে আউট হবেন মুশফিক সেটি হয়ত নিজেও বিশ্বাস করেননি মুশফিক। ব্যক্তিগত ৯৯ রানের মাথায় শাহীন আফ্রিদির বলে ক্যাচ তুলে দিয়ে আউট হন তিনি। ক্যারিয়ারের ৭ম সেঞ্চুরি থেকে মাত্র একরান দূরে থেকে আউট হয়ে সাজঘরে ফিরতে হয় তাকে।

ক্যারিয়ারের কখনো ৯৯ রানে আউট হননি বাংলাদেশের কোন ব্যাটসম্যান। তবে আজ পাকিস্তানের বিপক্ষে মুশফিক আউট হয়ে অপ্রত্যাশিত রেকর্ডটি নিজের নামের পাশে লেখালেন তিনি। ৯৯ রানে আউট না হলেও ৯৮ রানে আউট হয়েছেন এর আগেও। ২০০৯ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওপেনিংয়ে নেমেছিলেন মুশফিক। ঐ ম্যাচে ৯৮ রানে থামে মুশফিকের ইনিংস।

এছাড়াও ২০১৩ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডেতে ৯০ রানে আউট হয়েছিলেন জাতীয় দলের এই অভিজ্ঞ উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান।

আরও পড়ুনঃ আফগানিস্তান প্রিমিয়ার লিগ খেলবেন তাসকিন

Related Articles

মাধ্যমিকের প্রশ্নপত্রে নিজের নাম দেখে কৃতজ্ঞ তামিম

মেডিকেল রিপোর্টের উপরেই নির্ভর করছে সাকিবের এনওসি

এই মিরাজ অনেক আত্মবিশ্বাসী

মিঠুনের ‘মূল চরিত্রে’ আসার তাড়না

‘আঙুলটা আর কখনো পুরোপুরি ঠিক হবে না’