Scores

মুশফিকের বরিশালের প্রতিপক্ষ আজ আফ্রিদির রংপুর

 

চট্টগ্রাম পর্বের খেলা শুরু হয়েছে আজ বৃহস্পতিবার। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে দিনের ২য় ম্যাচে মুখোমুখি হবে রংপুর রাইডার্স আর বরিশাল বুলস। টানা ২ ম্যাচ জেতা উড়ন্ত রংপুরকে মাটিতে নামিয়ে এনেছে ঢাকা। সর্বশেষ ম্যাচে ঢাকার সাথে মাত্র ৯২ রানেই অল আউট রংপুর।
 
রংপুরের বোলিংটা এখন পর্যন্ত এবারের বিপিএল এর অন্যতম সেরা। বোলিংয়ে আফ্রিদি, আরাফাত সানি, সোহাগ গাজীর মতো অভিজ্ঞ আর চতুর বোলার আছেন, প্রতিপক্ষের জন্যে রান করা তাই সহজ হচ্ছে না। রুবেল হোসেন, গ্লিসনের পেইস বোলিংটাও খুব কার্যকরী। ম্যাচে লড়াইটা জমতে পারে রংপুরের বোলিং আর বরিশালের দুর্দান্ত ফর্মে থাকা ব্যাটিং লাইন আপের।
‘ক্রিকেটটাই এমন যে এক ম্যাচে কেউ খারাপ করলেও অন্যরা তা পুষিয়ে দিতে পারে। আমাদের দলে ভালো ব্যাটসম্যানও কিন্তু আছে। কাজেই শেষ ম্যাচে একটু খারাপ করলেও আমি নিশ্চিত যে তারা ব্যর্থতা কাটিয়ে উঠতে মরিয়াই হয়ে আছে।’
         – আরাফাত সানি (রংপুর রাইডার্স)
‘আমরা জানি রংপুর শক্তিশালী দল। তাদের স্পিনাররা দারুণ। তবে আমরাও প্রস্তুত। আশা করছি জয়ের যে ধারা ঢাকায় ছিল তা ধরে রাখতে পারবো।’
          – শাহরিয়ার নাফিস (বরিশাল বুলস)
 15086354_1157969477626627_522425878_n
বিপিএল এর ৪র্থ আসরে এখন পর্যন্ত ১৮৪ রান করে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক বরিশালের নাফীস, ২য় স্থানে আছেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম, ১৭৪ রান নিয়ে, ম্যালান করেছেন ১৩৩। উত্তুঙ্গ ফর্মে থাকা এই ত্রিফলার সাথে দলে আছেন শামসুর রহমান শুভ, লঙ্কান মুনবীরা। রংপুরের জন্যে এই ম্যাচ তাই চরম পরীক্ষা। পয়েন্ট টেবিলে ৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষ চারে আছে টানা ৩ ম্যাচ জেতা বরিশাল। রংপুরের সংগ্রহ ৪ পয়েন্ট ৩ ম্যাচ খেলে। রংপুরের মুখোমুখি হওয়ার আগে মুশফিকের বরিশালও নিজেদের প্রস্তুত করে নিয়েছে। শাহরিয়ার নাফিসরা জানেন, রংপুরের মূল শক্তি স্পিন আক্রমণ। গতকাল তিনি বলেন, ‘আমরা জানি রংপুর শক্তিশালী দল। তাদের স্পিনাররা দারুণ। তবে আমরাও প্রস্তুত। আশা করছি জয়ের যে ধারা ঢাকায় ছিল তা ধরে রাখতে পারবো।’ চট্টগ্রাম থেকে ভালো কিছু নিয়েই ঢাকায় ফিরতে চান শাহরিয়ার নাফিসরা।

 
চট্টগ্রামের উইকেট স্পিন সহায়ক হয়ে থাকে। এবার ব্যাটিং এর জন্যেই বেশি জোর দেয়া হলেও স্পিন ধরবে কিছুটা। আর সেটা দিয়েই রংপুরের অভিজ্ঞ স্পিন বোলাররা বরিশালকে কাবু করতে চেষ্টা করবেন। রংপুরের দলে শাহজাদ, সৌম্য, আফ্রিদির মতো বড়ো নাম থাকলেও মাঠে শাহজাদ ছাড়া আর কেউই বড়ো স্কোর করতে পারেননি। তাইজুল, আবু হায়দার, মনির হোসেন, আল-আমিন হোসেনদের বিপক্ষে রান করাটা বেশ চ্যালেঞ্জিং হবে। বরিশালের দরকার ধারবাহিকতা রক্ষা করে ভালো ক্রিকেট খেলা। মুশফিক-নাফীস যেরকম ফর্মে আছেন, তাতে এই দু’জনের একজন যদি বড়ো ইনিংস খেলতে পারেন, তাহলেই রংপুরের জন্যে ম্যাচ জেতা কঠিন হয়ে উঠবে। ম্যালানও আছেন ভালো ফর্মে। শুভ, মুনাবীরাও চাইবেন সুযোগ পেলে বড়ো স্কোর করতে।
তবে রংপুর আবার এগোচ্ছে স্পিনারদের পারফরম্যান্সে। শহীদ আফ্রিদির লেগ স্পিনের সঙ্গে কার্যকরী আরাফাত সানীও আছেন। এই বাঁহাতি স্পিনার আশাবাদী যে, ‘ক্রিকেটটাই এমন যে এক ম্যাচে কেউ খারাপ করলেও অন্যরা তা পুষিয়ে দিতে পারে। আমাদের দলে ভালো ব্যাটসম্যানও কিন্তু আছে। কাজেই শেষ ম্যাচে একটু খারাপ করলেও আমি নিশ্চিত যে তারা ব্যর্থতা কাটিয়ে উঠতে মরিয়াই হয়ে আছে।’
 
সব মিলিয়ে এক উপভোগ্য ম্যাচই হবে আশা করা যায়। লড়াইয়ের ভেতরে লড়াই থাকে। এই ম্যাচেই যেমন আফ্রিদিকে কেমন সামলান নাফীস, আরাফাত সানি-সোহাগ গাজীদের বিপক্ষে কেমন ব্যাট করেন মুশফিক, সেসবের ওপরেই ম্যাচের জয়-পরাজয়ের অনেক কিছু নির্ভর করছে। ঢাকায় শেষদিকে ভালো রান উঠেছে। ধুম-ধাড়াক্কা টি-২০ ক্রিকেটের উত্তাপ ছড়াতে রংপুর আর বরিশাল- দুই দলেই আছেন দুর্দান্ত কয়েকজন পারফর্মার। কোন দলের পারফর্মাররা ম্যাচের রাশ নিয়ন্ত্রণে নেন সেটাই দেখার।

 

 

Also Read - বিপিএলে সাকিব বনাম তামিম লড়াই


 

 

বিডিক্রিকটিম ডট কম, আজকের সম্ভাব্য দলঃ

রংপুর রাইডার্সঃ সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ শাহজাদ (উইকেটরক্ষক), মোহাম্মদ মিঠুন, নাঈম ইসলাম ©, শহীদ আফ্রিদি, মুক্তার আলী, রুবেল হোসেন, সোহাগ গাজী, আরাফাত সানি এবং গ্লিসেন।

বরিশাল বুলসঃ  শাহরিয়ার নাফিস, শামসুর রহমান, আল-আমিন হোসেন, মুশফিকুর রহিম (অধিনায়ক), মেহেদী হাসান, তাইজুল ইসলাম, দিলশান মুনাভিরা, এমরিট, মালন, থিসারা পেরেরা এবং মনির হোসেন।

 

 

  • -তানজিল আহমেদ, বিডিক্রিকটিম ডট কম
নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

ওবায়দুল কাদেরকে দেখতে হাসপাতালে মাশরাফি

এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতলো ভারত

মেডিকেল রিপোর্টের উপরেই নির্ভর করছে সাকিবের এনওসি

শঙ্কা কাটিয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলছেন মুস্তাফিজ

দুদকের শুভেচ্ছাদূত হলেন সাকিব