মুশফিক-জহুরুলের ব্যাটে রান, বল গড়িয়েছে খুলনাতেও

0
608

জাতীয় ক্রিকেট লিগের প্রথম রাউন্ডের দ্বিতীয় দিনশেষে সমানে সমানে দিনশেষ করেছে রাজশাহী ও ঢাকা বিভাগ এবং খুলনা ও রংপুর। দীর্ঘ দিন পর এনসিএল খেলতে নামা মুশফিক হাঁকিয়েছেন অর্ধশতক। ফতুল্লায় দিনশেষে ৬৭ রানে পিছিয়ে রাজশাহী। খুলনায় রংপুরের সংগ্রহ ৫ উইকেটের বিনিময়ে ১৬৯ রান।

Advertisment

রাজশাহী বনাম ঢাকা বিভাগ

খান সাহেব ওসমান আলি স্টেডিয়ামে ঢাকা বিভাগের ২৪০ রানের জবাবে দিনশেষে ৬৭ রানে পিছিয়ে আছে রাজশাহী বিভাগ। নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং করতে নেমে ১৪ রানের মধ্যেই তিন ব্যাটসম্যান মিজানুর রহমান (১), জুনায়েদ সিদ্দিক (২), অভিষেক মিত্রকে (১৪) হারায় রাজশাহী।

চতুর্থ উইকেটে দলকে এগিয়ে নেন মুশফিকুর রহিম ও জহুরুল ইসলাম। এই দুইজনের জুটিতে আসে ১২১ রান। ৭৫ রান করে মুশফিক আউট হলে ভেঙে যায় এই জুটি। তার ১১৬ বলের ইনিংসটি ৭টি চার ও ৩টি ছয়ে সাজান ছিল। ১৮৯ বলে ৫৭ রান নিয়ে অপরাজিত আছেন জহুরুল। রাজশাহীর অধিনায়কের ইনিংসে আছে ৪টি চারের মার।

ব্যর্থ হয়েছেন সাব্বির রহমান। ৩০ বলে ১১ রান করে নাজমুল ইসলামের শিকার হয়ে মাঠ ছেড়েছেন তিনি। দিনশেষে দলীয় সংগ্রহ ৬ উইকেটের বিনিময়ে ১৭৩ রান। ক্রিজে অপরাজিত অপর ব্যাটসম্যান ফরহাদ রেজা (১৪*)।

খুলনা বনাম রংপুর

খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে প্রথম দিনের খেলা পরিত্যক্ত হয়েছিল বৃষ্টির কারণে। দ্বিতীয় দিনে টস জিতে আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয় খুলনা। ইনিংসের প্রথম বলেই দলকে সাফল্য এনে দেন আল আমিন হোসেন। দলীয় ৩০ রানে আবারো আঘাত হানেন তিনি। দুই ওপেনার মাইশুকুর রহমান (০) ও হামিদুল ইসলামকে (১৬) আউট করেন ঝিনাইদহের এই পেসার।

নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকা রংপুর পঞ্চম উইকেটটি হারায় ১২৪ রানে। ষষ্ঠ উইকেটে ৪৫ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়ে দিন শেষ করেছেন তানবীর হায়দার (৪০*) ও সোহরাওয়ার্দী শুভ (৩১*)। তাদের সংগ্রহ ১৬৯ রান। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৮ রান এসেছে নাইম ইসলামের ব্যাট থেকে।

খুলনার পক্ষে দুইটি করে উইকেট নিয়েছে আব্দুর রাজ্জাক ও আল আমিন হোসেন। এছাড়া একটি উইকেট নিয়েছেন মইনুল ইসলাম।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ঢাকা বিভাগ (১ম ইনিংস) ২৪০/১০
তাইবুর ৮৮*, রনি ৬৩
তাইজুল ৪/৯২, শফিউল ৩/৪৩।

রাজশাহী (১ম ইনিংস) ১৭৩/৬
মুশফিক ৭৫, জহুরুল ৫৭*, ফরহাদ ১৪*, সাব্বির ১১
সুমন ৩/৪০।

রাজশাহী ৬৭ রানে পিছিয়ে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

রংপুর (১ম ইনিংস) ১৬৯/৫ (৭২ ওভার)
নাইম ৪৮, তানবীর ৪০*, সোহরাওয়ার্দী ৩১*
আল আমিন ২/৪৪, রাজ্জাক ২/৫১।