Scores

“মুশফিক তো ফোন করেই কান্নাকাটি করেছে”

দুঃস্মৃতির নিউজিল্যান্ড সফর শেষে বাংলাদেশ দল ফিরেছে নিজেদের মাটিতে। শান্তিপূর্ণ দেশ নিউজিল্যান্ড সফরেই এবার একদম অপ্রত্যাশিত একটি ঘটনার সম্মুখীন হয় পুরো দল।

“মুশফিক তো ফোন করেই কান্নাকাটি করেছে”-
বাবার সাথে মুশফিক। ©ফাইল ছবি

শুক্রবার (১৫ মার্চ) ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভালের আল নূর মসজিদে ন্যাক্কারজনক সশস্ত্র হামলা চালায় ব্রেন্টন ট্যারেন্ট নামের এক জঙ্গি। তার হামলায় অন্তত ৪৯ জন মানুষ নিহত ও আরও বহু লোক আহত হয়েছেন। ঐ হামলার শিকার হতে পারতেন বাংলাদেশি ক্রিকেটাররাও, যদি না তারা কিছুটা দেরিতেই জুমার নামাজ পড়তে ঐ মসজিদের দিকে অগ্রসর না হতেন।

ভাগ্যক্রমে প্রাণে বেঁচে গেলেও এই ঘটনার মানসিক ধাক্কা সহজে সামলাতে পারবেন না ক্রিকেটাররা। মৃত্যুর মুখ থেকে ফেরা ক্রিকেটারদের বুকে টেনে নিতে শনিবার (১৬ মার্চ) রাতে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ভিড় করেছিলেন তাদের স্বজনেরা। উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিমের বাবা ছেলেকে বুকে জড়িয়ে যেন হাঁফ ছেড়ে বাঁচলেন।

Also Read - দক্ষিণ আফ্রিকা ৫, শ্রীলঙ্কা ০!


এরপর বিমানবন্দর এলাকায়ই তার সাথে সংবাদমাধ্যমের কথা হয়। তিনি জানান, ঘটনার পর মুশফিক ভেঙে পড়েছিলেন এবং ফোন করে তার সাথে কথা বলার সময় কান্নাকাটি করছিলেন।

শুধু মুশফিকই নন, উৎকণ্ঠায় ছিলেন তার পরিবারের সদস্যরাও। ক্রিকেটারদের মত তারাও রাতে ঘুমাতে পারেননি। মুশফিকের বাবা মাহবুব হামিদ বলেন, ‘ঘটনার পর থেকে প্রতিটি মুহূর্ত অস্বস্তিতে কাটিয়েছি। আমরা নির্ঘুম রাত কাটিয়েছি।’

শুক্রবার হামলার পর ক্রিকেটারদের ছড়িয়ে পড়া ছবি দেখেই অনুমান করা যাচ্ছিলো- ঘটনায় কতটা হতবিহ্বল মুশফিক। তার বাবা মাহবুব হামিদও জানালেন সেই কথা, ‘মুশফিক তো ফোন করেই কান্নাকাটি করেছে। ও তো এমনিতেই নরম মনের, তাই এমন পরিস্থিতে ভেঙে পড়েছে। আজকে দেখে একটু স্বাভাবিক মনে হয়েছে।’

তবে ছেলেদের কাছে পেয়ে যেন মাহবুব হামিদদের আনন্দ ধরছে না! নিজেকে পৃথিবীর সবচেয়ে সুখি মানুষই মনে হচ্ছে তার। তিনি বলেন, ‘আমাদের ছেলেদের কারও মনের অবস্থাই ভালো নয়। সবাইকে কাছে পেয়ে বুকে টেনে নিয়েছি। এই মুহূর্তে আমার চেয়ে সুখী কেউ নেই।’

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

“যখন স্বাভাবিক জীবনে ফেরার চেষ্টা করছি, তখনই অগ্নিকান্ড”

নিউজিল্যান্ডকে নিরাপদ ভাববে বাংলাদেশ, বিশ্বাস দেশটির ক্রীড়ামন্ত্রীর

“দল কিসের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে, ভাষায় প্রকাশ করা কঠিন”

সফরের আগে নিরাপত্তা পর্যবেক্ষণে পর্যবেক্ষক দল?

“স্বপ্নে দেখেছি, বাইকে করে ওরা গুলি করছে’