মুশফিক ভাইয়ের কাছ থেকে সবসময় সমর্থন পাই : সোহান

টেস্টে মুশফিকুর রহিম কিপিং ছেড়েছেন অনেক আগেই। এবার ছাড়লেন টি-টোয়েন্টিতেও। তাতে টি-টোয়েন্টি দলে নুরুল হাসান সোহানের জায়গাটাও অনেকটা পাকা হয়ে গেল। এ নিয়ে অনেকে মুশফিকের অভিমান কাজ করছে মনে করলেও এমন সম্ভাবনা উড়িয়ে দিলেন খোদ সোহান।

মুশফিক ভাইয়ের কাছ থেকে সবসময় সমর্থন পাই  সোহান

Advertisment

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ম্যাচের আগে মুশফিককে দেখা গেছে সোহানের কিপিং অনুশীলনে সহায়তা করতে। প্রতিদ্বন্দ্বিতা ভুলে অনুজের প্রতি মুশফিকের এই সৌহার্দ্য কুড়িয়ে নিয়েছিল সব মহলের প্রশংসা। সোহান জানালেন, মুশফিকের এই সহযোগিতা শুধু এদিনই নয়, ছিল কয়েক বছর ধরেই।

সোহান বলেন, ‘মুশফিক ভাই তো ১৬-১৭ বছর ধরে বাংলাদেশ দলে খেলছেন। শুধু বাংলাদেশ না, বিশ্বের সেরা উইকেটরক্ষকদের একজন তিনি। তার অভিজ্ঞতা ও যে জিনিসগুলো শেখার আছে সবসময় সেসব নিয়ে কথা হয়। এমনকি যখন জাতীয় দলের বাইরে ছিলাম তখনও ফিটনেস, ব্যাটিং ও উইকেটকিপিং নিয়ে সবসময় কথা হতো। শুধু সিরিজের শেষ ম্যাচের আগেই না, সবসময়ই তার কাছ থেকে সমর্থন পেয়ে থাকি।’

সোহানকে অনেকে আখ্যা দিয়ে থাকেন বর্তমান সময়ে দেশের সেরা কিপার বলে। তবে অন্য সবার মত সোহানেরও হয় ভুল, যা দেখা গেছে নিউজিল্যান্ড সিরিজেও। তিনি অবশ্য এসব নিয়ে ভাবতে নারাজ, ‘ক্যাচ মিস হবে এটা স্বাভাবিক। কিন্তু এটা নিয়ে যদি চিন্তা করি তাহলেও তো ভবিষ্যতে এমন হবে না সেই নিশ্চয়তা শতভাগ দিতে পারব না। তাই বললাম, ভবিষ্যত বা অতীত নিয়ে খুব চিন্তা করছি না, পরিশ্রম করে যেতে চাই।’

সোহান মনে করেন, সময় নিয়ে না ভেবে পরিশ্রম করার মাঝেই সুপ্ত আছে সাফল্য। তিনি জানান, ‘সবথেকে বড় হলো দুই-তিন বছর যখন জাতীয় দলের বাইরে ছিলাম তখন থেকে আমার মানসিকতা পরিবর্তন করতে পেরেছি। এখন খুব বেশি কিছু ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায় না। মনে হয় যখন দলের হয়ে খেলছি তখন দলের জয়ে ভূমিকা রাখার জন্য যে দায়িত্ব থাকে সেটা পালন করাই আমার প্রথম দায়িত্ব। আমি পরিকল্পনা অনুযায়ী কঠিন পরিশ্রম করতে চাই। ভবিষ্যত বা অতীত নিয়ে খুব একটা ভাবি না।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।