Scores

মুস্তাফিজের কাছ থেকে অনেক কিছু শিখেছেন শরিফুল

ক্রিকেটে ব্যাটসম্যানদের মত সতীর্থ বোলারদের মধ্যেও রসায়নটা জমা চাই। তাহলে প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানরা কতটা অসহায় হয়ে পড়তে পারেন, তা তো স্পষ্ট ছিল বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে মুস্তাফিজুর রহমান ও শরিফুল ইসলামের বোলিংয়ে। গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের সমীহ জাগানিয়া সাফল্যে দেশসেরা পেসার মুস্তাফিজের সাথে অবদান রেখেছেন অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী পেসার শরিফুল।



টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে মুস্তাফিজই এখন দেশের সেরা পেসার। সংক্ষিপ্ততম এই ফরম্যাটে তার মত আরেক কার্যকরী পেসার খুঁজে পাওয়া গেছে টি-টোয়েন্টি কাপে। তিনি শরিফুল ইসলাম, যিনি মুস্তাফিজের সাথে এক দলের জার্সি গায়ে একসাথেই লড়েছেন। প্রায় এক মাস একই ছাদের নিচে থেকে মুস্তাফিজের কাছ থেকে কী কী শিখলেন শরিফুল? বিডিক্রিকটাইম এর সাথে আলাপকালে ১৯ বছর বয়সী পেসার খুলে দিয়েছেন কথার ঝাঁপি।

Also Read - জাতীয় দলের জন্য প্রস্তুত আছি : শরিফুল

শরিফুল মুস্তাফিজের কাছ থেকে শিখেছেন, চাপের মুখেও কীভাবে নিজের সেরাটা ঢেলে দিতে হয়। শরিফুল বলেন, ‘চাপের মুখে কীভাবে কী করতে হয় মুস্তাফিজ ভাই সেটা শিখিয়েছেন। এই টুর্নামেন্টে এমন অনেক পরিস্থিতি এসেছে যা জাতীয় দলের খেলায় হয়ে থাকে। মুস্তাফিজ ভাই অনবরত পরামর্শ দিয়ে গেছেন আমাকে। যেসব ভুল করেছি সেগুলো যাতে পরে না হয়।’

এখানেই শেষ নয়। শরিফুলের ভাষ্য, ‘মুস্তাফিজ ভাই বিশেষ করে আমাকে শিখিয়েছে- নিজের উপর আত্মবিশ্বাস রাখা। যত বড় ব্যাটসম্যানই হোক, যদি বোলারের শতভাগ আত্মবিশ্বাস থাকে, তাহলে ব্যাটসম্যানের তার বল খেলা কঠিন হয়ে যায়। মুস্তাফিজ ভাই বলেছেন- তুমি যে বল করবা, তোমার যদি বিশ্বাস থাকে আমি এই বলটা শতভাগ সফলভাবে এই জায়গায় করব, তাহলে সেটাতেই সেরা হবা। নিজের উপর বিশ্বাস রাখতে বলেছেন। যেটাই পারো সেটার উপর বিশ্বাস রাখো, শতভাগ যেন পারো।’

মুস্তাফিজের 'সঙ্গ' আর 'প্রতিদ্বন্দ্বিতা'য় রোমাঞ্চিত শরিফুল

মাশরাফি বিন মুর্তজার পর বাংলাদেশের পেস আক্রমণভাগ মুস্তাফিজ ছাড়া নিয়মিত পারফর্মার বলার মত পায়নি। বেশিরভাগই চোটের কারণে নিজেদের শতভাগ দিতে ব্যর্থ হয়েছেন। মাথা ঠাণ্ডা রেখে, খেলাটাকে উপভোগ করে দলে অবদান রাখার যে ছাপ মুস্তাফিজের মাঝে ছিল, তা দেখা যাচ্ছে শরিফুলের মাঝেও। এর বড় অবদান যুগলবন্দী বোলিং, যার জন্য কৃতিত্ব প্রাপ্য বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের।

তাই দেশিদের নিয়ে এমন টুর্নামেন্ট আরও চান শরিফুল। তিনি বলেন, ‘এই টুর্নামেন্ট আমার জন্য শুধু নয়, বাকি সব খেলোয়াড়ের জন্যও অনেক গুরুত্বপূর্ণ ছিল। অনেক কিছু শিখতে পেরেছি। সিনিয়র যারা আছেন, লিটন ভাই, মিঠুন ভাই, সৌম্য দাদা- সবাই আমাকে অনেক কিছু বলেছেন, সাপোর্ট দিয়েছেন।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 


Related Articles

বঙ্গবন্ধু টি-২০ কাপের ‘সেরা একাদশ’

রুদ্ধশ্বাস জয়ে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে চ্যাম্পিয়ন খুলনা

রিয়াদের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস, খুলনার লড়াকু পুঁজি

অধিনায়ক মিঠুনের ‘মাথা’র প্রশংসায় সালাহউদ্দিন

ছন্দে থাকা সৌম্য-লিটনদের নিয়ে চিন্তিত নন রিয়াদ