‘মুস্তাফিজের কাটার সবসময়ই দারুণ ছিল’

0
1738

ইনজুরি কাটিয়ে মাঠে ফেরার বেশিদিন হয়নি। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে প্রাপ্ত ইনজুরির কারণে খেলতে পারেননি বিপিএলের শুরুর দিকে। বিপিএলে ফিরলেও ছিলেন না ছন্দে। তারও আগে পেয়েছিলেন বড় চোট। অবশেষে ত্রিদেশীয় সিরিজ দিয়ে আবারও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেছেন মুস্তাফিজুর রহমান।

বিপিএলের নতুন আইকন মুস্তাফিজ

Advertisment

মুস্তাফিজের বোলিংয়ে আগের ধার নেই বলে অনেকেই কিছুটা হতাশ। তবে বাংলাদেশ দলের সহকারী কোচ রিচার্ড হ্যালসল জানিয়েছেন, মুস্তাফিজ যেভাবে নিজেকে ফিরে পাওয়ার জন্য লড়াই করে চলেছেন তা দেখে রীতিমতো মুগ্ধ তিনি।

মুস্তাফিজ কীভাবে আগের ফর্মে ফিরে যাওয়ার চেষ্টা করছেন, সেটি হ্যালসল জানিয়েছেন এভাবে, ‘বেসবল খেলার দিকে যদি তাকান, তাদের অনেক পিচার (যে বল ছোঁড়ে) এরকম চোটে ভোগে। ওরা সাধারণত ৯০ মাইল গতিতে বল ছোড়ে। এ ধরনের চোট পেলে সেটি কাটিয়ে আবার ৯০ মাইল গতিতে ফিরতে ওদের ২ বছরও লেগে যায়। মুস্তাফিজের দেড় বছরের মত হয়েছে চোটের পর। ওর গতি আস্তে আস্তে বেড়ে ৮৫ মাইল পর্যন্ত চলে এসেছে।’

অসাধারণ কাটার ডেলিভারি দিয়ে আখ্যা পেয়েছিলেন ‘কাটার মাস্টার’ হিসেবে। অনেকেই মনে করছেন, মুস্তাফিজের সেই দক্ষতা কমে গেছে। তবে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে হ্যালসল জানালেন, সবসময়ই দারুণ তথা কার্যকর মুস্তাফিজের কাটার।

হ্যালসল বলেন, ‘ওর কাটার সবসময়ই দারুণ ছিল। গতি প্রতি সপ্তাহেই বাড়ছে এখন। কাটারগুলো তাতে আরও বেশি কার্যকর হচ্ছে।’

মুস্তাফিজের প্রশংসা করে টাইগারদের সহকারী কোচ আরও বলেন, ‘ওর আত্মবিশ্বাস ফিরে আসছে। সবচেয়ে দারুণ হলো এটা দেখতে পারা যে কতটা কঠোর পরিশ্রম করছে সে। নিজের স্কিল নিয়ে নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছে। নিজের স্কিলের প্রতি ওর যা আবেগ ও ভালোবাসা, সবাই সেটি দেখছে। আমরা তামিম ও মুশফিককে দেখতাম নেটে কতটা খাটে। কিন্তু একজন বোলার প্রতিটি ট্রেনিং সেশনে এভাবে পরিশ্রম করছে, সেটি দেখতে পারাটাও দারুণ।’

আরও পড়ুনঃ হাথুরুসিংহে’তে ভয় নেই হ্যালসলের