Scores

মুস্তাফিজের দেখানো পথেই সফল শাহিন

বিশ্বকাপে নিজেদের শেষ ম্যাচে পরস্পরের বিপক্ষে মাঠে নেমেছিল বাংলাদেশ ও পাকিস্তান। সেমিফাইনালে যেতে না পারা দুই দলের লড়াইয়ে জয়ী দল পাকিস্তান। ম্যাচ সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন পেসার শাহিন শাহ আফ্রিদি। তিনি জানান মুস্তাফিজুর রহমানের দেখান পথে হেঁটেই এই ম্যাচে বড় সফলতা পেয়েছেন তিনি।

উইকেট প্রাপ্তির পর উৎযাপনে শাহিন শাহ আফ্রিদি @গেটি ইমেজ

৩১৬ রানে লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে বাংলাদেশ অলআউট হয়ে গেছে ২২১ রানে। বাংলাদেশের ব্যাটিং অর্ডারে এই ধ্বস নামিয়েছেন তরুণ পেসার শাহিন। তিনি একাই শিকার করেছেন ৬ উইকেট। খরচ করেছেন মাত্র ৩৮ রান।

Also Read - ‘মুস্তাফিজ বাংলাদেশের বড় সম্পদ’


তামিম ইকবালকে বোল্ড করে শিকার শুরু করেন এই বাঁহাতি পেসার। একে একে তুলে নিয়েছেন লিটন দাস, সাকিব আল হাসান, মোহাম্মদ সাইফউদ্দীন, মাহমুদউল্লাহকে। ইনিংসে নিজের শেষ উইকেট হিসেবে শিকার করে সেই মুস্তাফিজকেই, যাকে দেখে অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন এমন বোলিং করার জন্য।

ম্যাচ সেরার পুরস্কার নেয়ার সময় শাহিন বলেন, ‘এই পারফর্মে আমি সন্তুষ্ট। এটা আমার, আমার পরিবার এবং পাকিস্তানের জন্য বিশেষ কিছু। উইকেট মন্থর ছিল। ১ম ইনিংসে মুস্তাফিজুর কাটার বল করে সফল হয়েছিল। তখনই ভেবেছিলাম, আমিও কাটার কাজে লাগাব। এই পুরস্কারটি বিশেষ (ম্যাচ সেরার)। এটি আমার বাবাকে উৎসর্গ করতে চাই।’ 

বিশ্বকাপের এই আসরে ৫ ম্যাচে মোট ১৬ উইকেট শিকার করলেন শাহিন। অপরদিকে ৮ ম্যাচে ২০ উইকেট শিকার করেছেন মুস্তাফিজ। শাহিনের মতোই আজকে ৫ উইকেট শিকার করেছেন তিনিও। তবে দুর্ভাগ্যজনকভাবে, তার নামটা পরাজিত দলের খাতায়।

ম্যাচের ১ম ইনিংসে ৪২তম ওভারে মুস্তাফিজের বলে হিট আউট হয়ে ফিরে যান ইমাম-উল-হক। ফলে ম্যাচে নিজের প্রথম উইকেটটি পেয়ে যান এই বাঁহাতি পেসার। এরপরে নিজের ৭ম ওভারে ফিরিয়ে দেন হারিস সোহেলকেও। এক ওভার বিরতি দিয়ে নিজের ৯ম ওভারে শাদাব খানের ফিরতি ক্যাচ নিয়ে তুলেন নেন তৃতীয় উইকেট।

ইনিংসের ও নিজের শেষ ওভারে বোলিং করতে এসে আবারো দুইটি উইকেটের দেখা পান সাতক্ষীরার এই ক্রিকেটার। এবারে ফেরান ইমাদ ওয়াসিম ও মোহাম্মদ আমিরকে। সেই সাথে পূর্ণ করেন টানা দুই ম্যাচে ৫ উইকেট।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

ড্রেসিংরুমের ভেতরের কথা বাইরে না যাওয়াই ভালো: মুশফিক

উইলিয়ামসনের সেই রান আউট হাতছাড়া নিয়ে মুখ খুললেন মুশফিক

সাকিবও বলছেন— মাশরাফির নিষ্প্রভতায় পিছিয়ে পড়েছিল বাংলাদেশ

নিজের জন্য নয়, দেশের জন্যই খেলি: সাকিব

নিশামকে একমাস তাড়া করেছে ফাইনালের দুঃস্বপ্ন!