Scores

মূল দলে জায়গা পেতে আশাবাদী আল-আমিন

বাংলাদেশ জাতীয় দলের একসময়ের নিয়মিত খেলোয়াড় পেসার আল-আমিন জাতীয় দলের হয়ে সর্বশেষ খেলেছেন গত বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। ধারাবাহিক পারফরমেন্সে ব্যর্থতা এং শৃঙ্খলাজনিত কারণেই দল থেকে বাদ পড়েন তিনি। জাতীয় দলে খেলার সুযোগ না পেলেও ঘরোয়া ক্রিকেটে ধারাবাহিক পারফরমেন্সের মাধ্যমে নিজেকে প্রমাণ করে যাচ্ছেন।

প্রিমিয়ার লীগের গত আসরে ১৪ ম্যাচে নিয়েছিলেন ২৯ টি উইকেট – সর্বোচ্চ উইকেটধারীদের তালিকায় ছিলেন ৩ নাম্বারে। এমন পারফরমেন্সের পর জাতীয় দলের প্রাইমারি স্কোয়াডে ডাক পাওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই ব্যাপক খুশি তিনি, তবে জাতীয় দলের মূল স্কোয়াডে জায়গা পেলে নিজের সেরাটা দিয়ে নিজেকে প্রমাণ করতে চান এই ক্রিকেটার।

Also Read - কোচ হিসেবে শাস্ত্রীকে চান কোহলিরা


গত বছর ইংল্যান্ডের বিপক্ষের সিরিজে দলে থাকলেও একটা ম্যাচেও মাঠে নামা হয়নি তার। অবশ্য এইবার জাতীয় দলে ডাক পাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী টাইগার পেসার। প্রিমিয়ার লিগের শুরুতেই আল-আমিন লক্ষ্য নির্ধারণ করেন প্রতি ম্যাচে দুইটি করে উইকেট নেয়ার। তার ভাষ্যমতে ১৬ টি ম্যাচে মোট ৩০-৩২ টা উইকেট নেবার লক্ষ্য ছিলো তার। কিন্তু প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবে প্রথম দুটি ম্যাচে তাকে একাদশেই রাখা হয়নি।

তিনি বলেন, ‘মনে তখন অনেক নেতিবাচক চিন্তা। ক্লাব দলেই সুযোগ পাই না, জাতীয় দলে ফিরব কিভাবে?’

৩০-৩২ টা উইকেটের সেই লক্ষ্য পূরণ না হলেও ১৪ ম্যাচে ২৯ টি উইকেট নিয়ে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারিদের মধ্যে একজন হতে পেরে শেষমেষ তিনি বেশ সন্তুষ্ট। আল-আমিন বলেন, ‘কোনো কাজের পুরস্কার হাতে নাতে পেলে তাতে ভালোলাগাটা অনেক বেশি থাকে। লিগে অনেক কষ্ট করেছি এবং সেই কষ্ট বৃথা যায় নি। নির্বাচকরাও নিশ্চয়ই সন্তুষ্ট হয়েছেন আমার পারফরমেন্সে। নির্বাচকদের ধন্যবাদ আমাকে সুযোগ দেবার জন্য।’

দীর্ঘকায় এই পেসার আরো বলেন, ‘জাতীয় দলের হয়ে সর্বশেষ ম্যাচ খেলেছি গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। এরপর ঢাকা লিগে ভালো খেলার পরেও আফগানিস্তানের বিপক্ষে ডাক পাই নি। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জাতীয় দলের স্কোয়েডে থাকলেও খেলা হয়নি। এরপরের বেশ কয়েকটি সিরিজেই দলে বাইরে ছিলাম। এবার প্রাথমিক দলে ডাক পাওয়ার পর মূল দলে ফেরার ব্যাপারেও আশাবাদী আমি।’

জাতীয় দলের ক্যাম্পে জায়গা পাওয়ার পর এই সুযোগকে হাতছাড়া করতে চান না তিনি। ফিটনেস এবং শৃঙ্খলার বিষয়েও তিনি নজর দিতে চান। তার ভাষ্যমতে, ‘আমাদের সামনে তো এখন কোনো খেলা নেই। নিজেকে যা প্রমাণ করার তা এই ক্যাম্পেই করতে হবে। ক্যাম্পে যদি বোলিং দিয়ে কোচ-নির্বাচকদের খুশি করতে পারি, তাহলে হয়ত সুযোগ আবার আসবে। তাই আমি চেষ্টা করব ১০০ শতাংশ কাজে লাগাতে। ফিটনেস, শৃঙ্খলা সবদিক মেনে চলার চেষ্টা করব, যেনো সুযোগ আসলে যেনো কাজে লাগাতে পারি।’

  • ফ্রেয়া, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম 
নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

অন্যরকম সেঞ্চুরিতে ‘রেকর্ড বুকে’ আল-আমিন

বিপিএলে আল-আমিনের ‘লজ্জার’ রেকর্ড

বিজয়-সৌম্যকে আরও সুযোগ দেওয়ার পক্ষে আল-আমিন

সুযোগের অপেক্ষায় ‘প্রস্তুত’ আল-আমিন

বোলারদের নিয়ে সন্তুষ্ট প্রকাশ বোলিং অ্যাকশন কমিটির