মেজাজ দেখানোয় অ্যান্ডারসনের নামের পাশে ডিমেরিট পয়েন্ট

0
928

আম্পায়ারের উপর অসন্তোষ প্রকাশ করায় শাস্তি পেয়েছেন ইংল্যান্ড পেসার জেমস অ্যান্ডারসন।

ছয় সপ্তাহের জন্য মাঠের বাইরে অ্যান্ডারসন
জেমস অ্যান্ডারসন। ছবি: এএফপি

গলে চলমান স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা ও সফরকারী ইংল্যান্ডের মধ্যকার টেস্টে বল করার সময় মেজাজ হারিয়ে তিনি এই শাস্তি পান। শাস্তি হিসেবে তার নামের পাশে যুক্ত হয়েছে ডিমেরিট পয়েন্ট।

সিরিজের প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিনে (বুধবার) শ্রীলঙ্কার ইনিংস চলাকালে ৩৯তম ওভারে পিচের উপর দিয়ে দৌড়ানোর কারণে অ্যান্ডারসনে নিয়ম ভঙ্গের কথা উল্লেখ করে সতর্ক করেছিলেন অন ফিল্ড আম্পায়ার ক্রিস গ্যাফানি।

Advertisment

তবে আম্পায়ারের এই কথা কিংবা সতর্কবার্তা পছন্দ হয়নি অ্যান্ডারসনের। আর তাই মেজাজ হারিয়ে পিচে বল ছুঁড়ে মেরে ক্ষোভ উগরে দেন তিনি। মাঠে কোনো ক্রিকেটারের এমন আচরণ নির্দ্বিধায় অশোভন। আর তাই তার বিরুদ্ধে আনা হয় অভিযোগ।

তবে অভিযোগ স্বীকার করে নেন অ্যান্ডারসন। এজন্য আর কোনো আনুষ্ঠানিক শুনানির প্রয়োজন পড়েনি। অপরাধের শাস্তি হিসেবে তার নামের পাশে যুক্ত হয় একটি ডিমেরিট পয়েন্ট। এর আগে সেপ্টেম্বরে ভারতের বিপক্ষে ওভাল টেস্টেও একটি ডিমেরিট পয়েন্ট পেয়েছিলেন তিনি। ২০১৬ সালে আইসিসির কোড অব কন্ডাক্ট প্রথা চালুর পর এই দুটি ডিমেরিট পয়েন্টই পেয়েছেন তারকা ইংলিশ ক্রিকেটার।

২০২০ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অ্যান্ডারসনের নামের পাশে যদি আরও দুটি ডিমেরিট পয়েন্ট যুক্ত হয় তাকে একটি টেস্ট অথবা দুটি ওয়ানডে অথবা দুটি টি-২০ ম্যাচে নিষিদ্ধ হবেন অ্যান্ডারসন। নিয়ম অনুযায়ী, ২ বছরের মধ্যে কোনো ক্রিকেটার চারটি ডিমেরিট পয়েন্ট পেলে এই মাত্রায় শাস্তি ভোগ করবেন।

বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) আইসিসির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে অ্যান্ডারসনের ডিমেরিট পয়েন্টের মাধ্যমে শাস্তির কথা আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয়। বিবৃতিতে বলা হয়, আইসিসির কোড অব কন্ডাক্টের ২.৮ ধারা অনুযায়ী মাঠের মধ্যে আন্তর্জাতিক ম্যাচ চলাকালে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে বা মতামতে অসন্তোষ জানানোয় এই খেলোয়াড়কে শাস্তি হিসেবে ডিমেরিট পয়েন্ট দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: ৩৪ বছর বয়সে টেস্ট দলে সমারভিল