মেহেদী মারুফের অসন্তুষ্টি

বিপিএলের শুরু থেকেই ঢাকা মানেই যেন বড় দল। প্রথম দুই আসরের পর ফ্র্যাঞ্চাইজি সহ সম্পূর্ণ আয়োজন খোলস পাল্টালেও ঢাকার মাহাত্ম্যে তাতে ভাটা পড়েনি। তৃতীয় বিপিএলের শিরোপা হাতছাড়া হলেও চতুর্থ বিপিএল ফের নিজেদের করে নিয়েছে প্রথম দুই বিপিএলজয়ী রাজধানী ঢাকার পক্ষে থাকা ফ্র্যাঞ্চাইজি।

ঢাকা ডায়নামাইটস প্রথমবারের মতো (নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজির অধীনে, প্রথম দুই আসরে ঢাকার দলের নাম ছিল ‘ঢাকা গ্যলাডিয়েটর্স’) চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পেছনে যে কজনের মূল ভূমিকা, তাদের একজন মেহেদী হাসান সিদ্দিকি; ক্রিকেটপাড়ায় যিনি পরিচিত মেহেদী মারুফ নামে। এবারের বিপিএলে ঢাকা ডায়নামাইটসের দলে তাকে দেখে প্রথমে চোখ কচলেছিলেন অনেকে। তবে পারফরমেন্স দিয়ে ২৮ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার ঢাকাকে শিরোপা তো জেতালেনই, সেই সাথে প্রথমবারের মতো ডাক পেলেন জাতীয় দলের ক্যাম্পে।

Advertisment

mehedi maruf

 

তবে অধীর অপেক্ষার পর আরাধ্য ডাক ধরা দিলেও একে স্বপ্ন হিসেবে দেখছেন না মারুফ। উচ্ছ্বাসহীন কণ্ঠে অকপটেই স্বীকার করলেন, ‘গত কদিনে যা ঘটে গেল, তা খুব একটা স্বপ্নের মতো মনে হচ্ছে না…’ সম্প্রতি জাতীয় দৈনিক প্রথম আলোর সাথে আলাপকালে এই ওপেনারের কণ্ঠে উঠে আসে আরও ভালো করতে না পারার অসন্তুষ্টি, ‘টুর্নামেন্টে যদি ৪০০ রান করতাম… পারফরম্যান্স দিয়ে সরাসরি জাতীয় দলে চলে আসতাম, তাহলে আরও ভালো লাগত। শেষ দিকে কয়েকটি ম্যাচ ভালো না খেলায় দ্বিধায় ছিলাম নির্বাচকেরা আমাকে নেবেন কি না। আসলে নিজের খেলায় সন্তুষ্ট নই।’

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে অংশ নেওয়ার আগে নিজেদের ঝালিয়ে নিতে জাতীয় দলের প্রায় সব খেলোয়াড় এখন অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে। বিপিএল শিরোপার অন্যতম মালিক মেহেদী মারুফ তাদের সাথে যোগ দিতে সিডনির বিমানে উঠবেন সোমবার।