Scores

মোসাদ্দেকের অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্সে জিতল আবাহনী

ব্যাটিং আর বোলিং- দুই জায়গাতেই আধিপত্য ছিল মোসাদ্দেক হোসেনের। ব্যাট হাতে তার অর্ধশতক আর বোলিংয়ে ৫ উইকেট শিকার করে আবাহনীকে এনে দিয়েছেন ৬০ রানের জয়।

ডাউন দ্যা উইকেটে তামিম
ডাউন দ্যা উইকেটে তামিম

বিকেএসপিতে প্রথমে টস জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয় লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। ব্যাট করতে নেমে দলকে দারুণ সূচনা উপহার দেন দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও লিটন দাস। দুজন মিলে উদ্বোধনী জুটিতে রান সংগ্রহ করেন ৭৬। তাদের জুটি ভাঙেন তাইজুল ইসলাম। আবাহনীর অধিনায়ক তামিমকে (৩৩) ফেরান তিনি। দলীয় ৯১ রানের মাথায় আরেক ওপেনার লিটন দাসও হন তাইজুলের শিকার।
মিডল অর্ডারে নাজমুল হোসেন শান্ত আর দিনেশ কার্তিক নিজেদের স্কোর বড় করতে সক্ষম হননি। ২৪ বলে ১২ রান করে আসিফ আহমেদের বলে আউট হন শান্ত। আর দিনেশকে (১৩) নিজের তৃতীয় শিকারে পরিণত করেন তাইজুল।

মোসাদ্দেকের দারুণ শট
মোসাদ্দেকের দারুণ শট

১১২ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে আবাহনী। তারপর হাল ধরেন সাকিব আল হাসান ও মোসাদ্দেক হোসেন। সাকিব ও মোসাদ্দেক ১৪০ রানের জুটি গড়েন।  এ জুটির ফলে বড় স্কোর দাঁড় করানোর সম্ভাবনা জাগিয়ে তুলে আবাহনী। রানের গতিও বাড়ায় তাদের ব্যাট। সাকিব ও মোসাদ্দেক- দুইজনই পূর্ণ করেন অর্ধশতক। দলীয় ২৫২ রানের মাথায় আসিফের বলে আউট হন সাকিব। সাকিবের ৫৭ বলে ৬৬ রানের ইনিংসে ছিল ৬ টি চার ও ২ টি ছক্কা। পরের ওভারে আলাউদ্দিন বাবুর বলে আউট হওয়া মোসাদ্দেক করেন ৫৫ বলে ৭৩ রান। ৮ টি চার ও ২ টি ছক্কা মারেন মোসাদ্দেক। শেষদিকে ১২ রান করেন আবুল হাসান, ১৩ রান করে অপরাজিত থাকেন অভিষেক মিত্র। রূপগঞ্জের তাইজুল ও আসিফ শিকার করেন ৩ টি করে উইকেট।

Also Read - সেরা পাঁচে আল-আমিন ও সাকিব


উইকেট শিকারের পর আবাহনীর উল্লাস
উইকেট শিকারের পর আবাহনীর উল্লাস

আবাহনীর ২৯০ রানের জবাবটা ভালো মতো দিতে পারেনি লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। শুরুটা ছিল নড়বড়ে। ৩৫ রান তুলতেই সাজঘরে ফিরে যান টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান। দ্বিতীয় ওভারে সাকিবের বলে বোল্ড হন জহুরুল (৭)। এক ওভার পরে সৌম্য সরকারকে (৯) বোল্ড করেন মোসাদ্দেক হোসেন। তারপর ২৪ রান যোগ করেন মিঠুন ও সৌম্য। সৌম্যকে (৯) বোল্ড করে ে জুটি ভাঙেন তাসকিন আহমেদ। তারপর মিঠুন ও নাহিদুল হাল ধরেন। ৫৯ রানের জুটি গড়েন দুজন।

৩৬ রান করে সাকিবের বলে স্টাম্পিং হন নাহিদুল। দলীয় ৮৯ রানের মাথায় নাহিদুলের বিদায়ের পর মিঠুন ও পবন নেগি দলকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলেও ব্যর্থ হন। ১২৯ রানের মাথায় মিঠুন আর  ১৩২ রানের মাথায় আউট হন নেগি। দুজনকেই ফেরান মোসাদ্দেক। এতে করে ব্যাকফুটে চলে যায় রূপগঞ্জ। এক প্রান্ত আগলে রেখে খেলছিলেন আসিফ আহমেদ। অধিনায়ক মোশাররাফ আর সাজ্জাদুল, দুইজনই ১০ রান করে সাজঘরে ফিরলেও প্রতিরোধ গড়ে তুলেন আসিফ আহমেদ।

মোশাররাফের সাথে ১৭ ও সাজ্জাদুলের সাথে ৪৮ রান যোগ করেন আসিফ। তবে তাকে কেউ সঙ্গ দিতে পারেননি। ৫ রান করেই আউট হন আলাউদ্দিন বাবু। ৩ চার আর ৫ ছক্কায় আসিফ করেন ৭০ রান। দলীয় ২৩০ রানের মাথায় তাসকিনের বলে বোল্ড হন আসিফ। আর এ বোল্ড দিয়েই রূপগঞ্জের কফিনে শেষ পেরেকটা ঠুকে দেয় আবাহনী।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

আবাহনী ২৯০/৮ (৫০ ওভার)
মোসাদ্দেক ৭৩, সাকিব ৬৬, লিটন ৫১
তাইজুল ৪৫/৩, আসিফ ৫৭/৩

লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ ২৩০ (৪৪.৪ ওভার)
আসিফ ৭০, মিঠুন ৫৫, নাহিদুল ৩৬
মোসাদ্দেক ৪৩/৫, তাসকিন ৩১/২

ম্যাচসেরাঃ মোসাদ্দেক হোসেন

-আজমল তানজীম সাকির, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটিম ডট কম 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

ওবায়দুল কাদেরকে দেখতে হাসপাতালে মাশরাফি

এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতলো ভারত

মেডিকেল রিপোর্টের উপরেই নির্ভর করছে সাকিবের এনওসি

শঙ্কা কাটিয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলছেন মুস্তাফিজ

দুদকের শুভেচ্ছাদূত হলেন সাকিব