SCORE

সর্বশেষ

ম্যাচ প্রিভিউঃ বাংলাদেশ বনাম ভারত

নিদাহাস ট্রফিতে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শক্তিশালী ভারতের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় ম্যাচে প্রথম ম্যাচ হারা ফেভারিট ভারতের সামনে আত্মবিশ্বাসী টাইগাররা।

ভারতের নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলি নেই এই সিরিজে, রোহিত শর্মা নেতৃত্ব দিচ্ছেন দলকে। কিন্তু প্রথম ম্যাচের স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার কাছে পাঁচ উইকেটে হারের লজ্জায় পড়তে হয়েছে তাদের। লঙ্কানদের স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত এ টুর্নামেন্টের দুই অতিথি বাংলাদেশ ও ভারত।

Also Read - 'কাটার আমি ২০০৫ সাল থেকে শিখেছি'

বাংলাদেশ শিবিরেও আছে কাপ্তানের জন্য হাহাকার। ঘরের মাঠে অনুষ্ঠিত শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আয়োজিত ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে লঙ্কানদের সাথে চোট পেয়ে দল থেকে ছিটকে যান সাকিব আল হাসান। এরপর টেস্ট সিরিজে ফেরার কথা থাকলেও ফেরা হয় নি। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান ফেরেনি ২০ ওভারের সিরিজেও। শেষমেশ ছিটকে গিয়েছেন নিদাহাস ট্রফির দল থেকেই।

ঘরের মাঠে টেস্ট আর টি-টোয়েন্টি সিরিজের মত মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ দলকে নেতৃত্ব দেবেন। ভারপ্রাপ্ত নয়া প্রধান কোচ কোর্টনি ওয়ালশ এর মতে আন্ডারডগ বাংলাদেশ।  শেষ পাঁচ লড়াইয়ে ভারতের বিপক্ষে কোনোটাতেই জিতে নি বাংলাদেশ। তবে খর্বশক্তির ভারতকে নিয়ে জয়ের আশা দেখতেই পারে টাইগাররা।

তবে রিয়াদ সে সব নিয়ে ভাবতে নারাজ। তাঁর মতে, ‘আমি সে রকম কিছু ভাবছি না (খর্বশক্তির ভারত ও শ্রীলঙ্কার জয় থেকে অনুপ্রেরণা)। আমার ভাবনা শুধু ভালো ক্রিকেট খেলা নিয়ে। ছেলেদেরকে সেটিই বলছি আমি। নিজেদের প্রক্রিয়া ও শক্তির জায়গাটায় অটুট থাকতে হবে। অন্য কিছু না ভেবে, নিজেদের শক্তি ও দুর্বলতার জায়গাটুকু জানতে পারাটাই আমাদের জন্য ভালো হবে।’

ভারতকে ছোট করেও দেখতে চান না ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক। নিজেদের কাজগুলোই ঠিকঠাকমত করতেই মনোযোগ বেশি টাইগারদের। তিনি জানান, ‘প্রথম পছন্দের অনেকে না থাকলেও ভারত দারুণ একটি দল। তাদের প্রতি সর্বোচ্চ সমীহ আছে আমাদের। আমরা শুধু নিজেদের খেলাটা খেলতে চাই। আমরা আলোচনা করেছি, যে জায়গাগুলোতে আমরা ভালো, সেগুলো যেন আমরা ঠিকমত করতে পারি। যদি নিজেদের স্কিলগুলো দেখাতে পারি, আশা করি ভালো করব।’

বাংলাদেশ আর ভারতের ম্যাচ সামনে আসলেই চলে আসে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেই ম্যাচ। এক রানে হেরে কোটি ভক্তের হৃদয় পুড়েছিল সেদিন। সেই ম্যাচ কি এখনো রিয়াদদের পীড়া দেয় কি না কে জানে। তবে প্রফেশনাল ক্রিকেটে যে আবেগের কোনো জায়গা নেই সেটাই জানিয়ে দিলেন রিয়াদ, ‘বেঙ্গালুরুর ম্যাচ বেঙ্গালুরুতেই শেষ। ওখানেই শেষ, ওখানেই থমকে আছে। ক্রিকেটে দুর্ঘটনা হতেই পারে। ওটা নিয়ে বসে থাকলে চলবে না। তবে ওখান থেকে শেখাটা জরুরি। শিখতে পারলে কাজে দেবে।’

Related Articles

রুবেল হোসেনের সমস্যা কোথায়?

নিদাহাস ট্রফি থেকে ৪৮২ শতাংশ লাভ!

অসুস্থ রুবেল, দোয়া চাইলেন সবার কাছে

যেখান থেকে শুরু ‘নাগিন ড্যান্স’ উদযাপনের

‘খারাপ করছি দেখেই বেশি চোখে পড়ছে’