SCORE

সর্বশেষ

ম্যাচ হারার কারণ ব্যাখ্যা

ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে শ্রীলঙ্কার কাছে হার, দেশের মাটিতে টেস্ট সিরিজেও হার লঙ্কানদের কাছে। শেষমেশ হারের ধারা বজায় রেখেছে টি-টোয়েন্টি সিরিজেও। নিজেদের সাবেক কোচের শিষ্যদের বিপক্ষে একে একে যেন সবই হারাচ্ছে বাংলাদেশ। লঙ্কান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের ব্যাপারটা এমন যে, তিনি ‘এলেন, দেখলেন এবং জিতে গেলেন’।

ম্যাচ হারার কারণ ব্যাখ্যা

আগেই টি-টোয়েন্টি থেকে ছিটকে গিয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। যদিও প্রথম ম্যাচের জন্য ঘোষিত দলে তাঁকে অধিনায়ক করেই স্কোয়াড ঘোষণা করেছিলো নির্বাচকরা। পরবর্তীতে জানা যায় আঙুলের চোট থেকে সেরে উঠতে আরো বেশ কয়েকদিন সময় লাগবে সাকিবের। দলে সাকিব নেই মানেই, একজন বোলার ও একজন ব্যাটসম্যান অতিরিক্ত খেলানো।

Also Read - মাঠে বসে টাইগারদের খেলা দেখলেন সাকিব

তাঁর অনুপস্থিতি ব্যাটিংয়ে অনুভব না করা গেলেও বোলিংয়ে ঠিকই সাকিবের সার্ভিস মিস করেছে বাংলাদেশ দল। দুই ম্যাচ টি – টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে মিরপুরে, টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তামিম-সাকিব বিহীন ব্যাটিং লাইনআপ কেমন করে সেটাও ছিল দেখার বিষয়।

এইদিনে অভিষিক্ত করানো হয়েছে চার ক্রিকেটারকে। সৌম্য, জাকিরের উদ্বোধনী জুটি বাংলাদেশকে বড় সংগ্রহের স্বপ্ন দেখায়। তবে এইদিনে পুরো ভিন্নরূপে ছিলেন মুশফিকুর রহিম। প্রথমবারের মতো তিনে ব্যাট করতে এসে পেলেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় অর্ধশতক। সৌম্য ও অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহকে নিয়ে গড়েছেন ৫০+ জুটি। ফিফটি হাঁকিয়েছিলেন সৌম্যও।

মুশফিকের অপরাজিত ৬৬, সৌম্যর ৫১ ও মাহমুদউল্লাহর ৪৩ এর উপর ভর করে দলীয় সর্বোচ্চ ১৯৩ রান তোলে বাংলাদেশ। এমন পাহাড়সম রানে জয়ের আশা দেখতেই পারে বাংলাদেশ তবে কে জানতো ব্যাটসম্যানদের এমন পারফরম্যান্সের ম্লান হবে এমন দুর্ধর্ষ বোলিংয়ে। বোলারদের ছন্নছাড়া বোলিংয়ে এই ম্যাচেও হারতে হলো ৬ উইকেটের বিনিময়ে। একমাত্র অভিষিক্ত নাজমুল অপু বাদে সবাই ছিলেন নিস্প্রভ।

তবে এই ম্যাচ হারাতে ব্যাটিংয়ে ১০-১৫ রানের আক্ষেপ করেছেন মাহমুদউল্লাহ, পাশাপাশি বোলারদের অসহায় আত্মসমর্পণে ম্যাচ থেকে ছিটকে গিয়েছে বাংলাদেশ। সেই সাথে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে ঘুরে দাঁড়ানোর আশা ব্যক্ত করেন এই বাংলাদেশ অধিনায়ক।

“আমি মনে করি আমরা ১০-১৫ রান কম করেছিলাম। আমাদের স্কোর ২০০ রানের উপরে হওয়া উচিৎ ছিল। মুশি তিন নম্বর পজিশনে ব্যাট করেছে। সৌম্য ও জাকির ভালো শুরু করেছিল। শ্রীলঙ্কার ব্যাটসম্যানদের প্রতি কৃতজ্ঞতা। আমরা তাদের উপর চাপ সৃষ্টি করতে পারিনি। ব্যাটিং লাইন আপে আমাদের গভীরতা ছিল। বোলিংয়ে আমরা ভালো করতে পারিনি। আশা করি, সিলেটে আমরা উপরে থেকেই মৌসুম শেষ করব।”

আরও পড়ুনঃ মাঠে বসে টাইগারদের খেলা দেখলেন সাকিব

Related Articles

নতুন সূচিতে ‘এ’ দলের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচ

বৃষ্টিতে পন্ড ‘এ’ দলের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি

পাকিস্তানকেই এগিয়ে রাখছেন আকরাম

‘এ’ দলের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে বৃষ্টির বাধা

জুনিয়রদের দিকে তাকিয়ে নির্বাচকরা