ম্যাথিউসের কণ্ঠে সরল স্বীকারোক্তি

১৯৯৬ বিশ্বকাপে এসেছিল স্বপ্নের শিরোপা। ২০১১ বিশ্বকাপেও দলটি ফাইনালে খেলেছিল। অথচ এবার শ্রীলঙ্কার পারফরম্যান্স দেখে মনে হয়েছে, বিশ্বকাপের নকআউট পর্বে যাওয়ার পূর্ণ যোগ্যতাও বুঝি দলটির নেই।

ম্যাথিউসের কণ্ঠে সরল স্বীকারোক্তি
ইংল্যান্ডকে হারিয়ে শ্রীলঙ্কা ফিরেছিল সেমির দৌড়ে, যদিও পরের ম্যাচেই খেয়েছে হোঁচট! ছবি: গেটি ইমেজ

শেষদিকে ঘুরে দাঁড়ালেও শ্রীলঙ্কার বিশ্বকাপ শুরু হয়েছিল বাজেভাবে। সেই ধাক্কা সামলে ঘুরে দাঁড়ালেও জায়গা করা সম্ভব হয়নি শেষ চারে। দলের সাবেক অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস এবার দলের প্রাণভ্রমরার একজন হয়েই অংশ নিয়েছিলেন। সন্তোষজনক ছিল না তার পারফরম্যান্সও।

সংবাদমাধ্যমের সাথে আলাপকালে তাই তার কণ্ঠে সরল স্বীকারোক্তি- তিনি বা তার দল কেউই প্রত্যাশামত পারফর্ম করতে পারেনি।

Also Read - বোলিংয়ে বাংলাদেশ, একাদশে দুই পরিবর্তন


ম্যাথিউস বলেন- 

‘মাঝেমাঝে আমরা ভালো খেলেছি। কিন্তু সেমিফাইনালে যাওয়ার মত পারফরম্যান্স প্রদর্শন করতে পারিনি। আমার পারফরম্যান্সেও আমি হতাশ। মাত্র একটি বড় ইনিংস গড়েছি। প্রথম তিন ম্যাচে আমিসহ পুরো মিডল অর্ডার ব্যর্থ হয়েছিল। আমি হয়ত এর চেয়েও ভালো করতে পারতাম।’

শ্রীলঙ্কার দুটি ম্যাচ ভেসে গেছে বৃষ্টিতে। তার একটি পাকিস্তানের বিপক্ষে, অন্যটি বাংলাদেশের বিপক্ষে। ম্যাথিউসের কণ্ঠে আক্ষেপ ঐ দুই ম্যাচ জিততে না পারায়ও। যদিও শুরুর দিকে ভাঙা মনোবল নিয়ে এশিয়ান দুই প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে মোটেও ফেভারিট ছিল না দিমুথ করুনারত্নের নেতৃত্বাধীন দল।

ম্যাথিউস বলেন, ‘আমাদের জন্য এটি হতাশাজনক টুর্নামেন্ট হলেও কিছু ইতিবাচক ব্যাপার ছিল। যে তিনটি ম্যাচ জিতেছি তা দারুণ ছিল, তবে দুর্ভাগ্যজনকভাবে দুটি ম্যাচ বৃষ্টির কারণে পণ্ড হয়েছে।’

একদিক থেকে অবশ্য শ্রীলঙ্কা ধন্যবাদ পেতে পারে। ইংল্যান্ডকে হারিয়ে লঙ্কানরাই জমিয়ে তুলেছিল পয়েন্ট টেবিল। শেষপর্যন্ত আসরের শুরু থেকে দাপট দেখান চারটি দলই সেমিফাইনালে যাচ্ছে। তবে বাংলাদেশ, পাকিস্তান, উইন্ডিজের মত দলের পাশাপাশি নিজেদের ডেরায় সেমির রোমাঞ্চ জন্মানোর পেছনে শ্রীলঙ্কার ঐ ইংল্যান্ড-বধেরই তো অবদান!

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন