‘ম্যান অব দা ম্যাচ’ হলেন আশরাফুল

0
6235

চলমান জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) চতুর্থ রাউন্ডের খেলায় ম্যাচ সেরার পুরস্কার উঠেছে জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক ও তারকা ক্রিকেটার মোহাম্মদ আশরাফুলের হাতে। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ঢাকা মেট্রো ও স্বাগতিক চট্টগ্রাম বিভাগের মধ্যকার ম্যাচে ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় হওয়ার কীর্তি অর্জন করেন তিনি। [আরো পড়ুনঃ বিপিএলের সূচি পরিবর্তন]

ashraful-20171009184646

Advertisment

অবশ্য আশরাফুলের হাতে ম্যাচ সেরার পুরস্কার উঠলেও জয়বঞ্চিত থাকতে হয়েছে শক্তিশালী ঢাকা মেট্রোকে। তবে একটু হলে জয় ছিনিয়ে নিতে পারতো দলটি।

ম্যাচের শেষদিনে জয়ের জন্য চট্টগ্রাম বিভাগের প্রয়োজন ছিল ২৭৪ রান। সেই লক্ষ্যে খেলতে নেমে একের পর এক উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ে পড়ে যায় দলটি, হারিয়ে ফেলে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণও। মাত্র ৯৭ রানে চট্টগ্রামের ৭ উইকেটের পতন ঘটিয়ে ঢাকা মেট্রো যখন জয়ের ভেঁপু শুনছে, ঠিক তখনই আলোক স্বল্পতার কারণে বন্ধ হয়ে যায় খেলা। আম্পায়াররা তখনই ম্যাচের ইতি ঘোষণা করেন। এতে দুর্দান্ত একটু জয় পাওয়া থেকে বঞ্চিত হয় ঢাকা মেট্রো।

তবে দলটির আফসোস কিছুটা হলেও মিটেছে আশরাফুলের দুর্দান্ত পারফরমেন্সে। দুই ইনিংস মিলিয়ে ৮৪ রান আসে এই তারকা ক্রিকেটারের ব্যাট থেকে, সেই সাথে শিকার করে নেন চারটি উইকেটও। প্রথম ইনিংসে হাঁকিয়েছিলেন দুর্দান্ত হাফ-সেঞ্চুরি। ৬৬ রানের ঐ ইনিংসে ভর করে বড় সংগ্রহ পেয়েছিল ঢাকা মেট্রো, যা পরবর্তীতে দলটিকে এনে দিয়েছিল ১০৮ রানের লিডও।

দেশের ক্রিকেটের উত্থানের পেছনে বড় অবদান যে কয়েকজন ক্রিকেটারের, তাদের অন্যতম একজন মোহাম্মদ আশরাফুল। দেশের ক্রিকেটের একসময়ের সবচেয়ে বড় তারকা ছিলেন তিনি। কিন্তু ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে নিজেকে জড়িয়ে সমালোচনা কুড়নোর পাশাপাশি ক্রিকেট মাঠ থেকেও হয়েছেন বিচ্ছিন্ন।

তবে তাতেও যেন জনপ্রিয়তা কমেনি আশরাফুলের। এখনও তার ভক্তরা আশরাফুলকে মাঠে দেখার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করেন। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে মাঠে ফিরে আশরাফুলও দিচ্ছেন সমর্থকদের আস্থার প্রতিদান।

২০০১ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ দিয়ে বাংলাদেশ দলের হয়ে অভিষেক হয় মোহাম্মদ আশরাফুলের। নিষেধাজ্ঞার আগ পর্যন্ত ছিলেন দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য হয়েই। জাতীয় দলের জার্সি গায়ে ৬১টি টেস্ট, ১৭৭টি ওয়ানডে ও ২৩টি টি-২০ ম্যাচ খেলেছেন আশরাফুল। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে রয়েছে তার ৯টি শতক ও ৩০টি অর্ধ-শতক। বেশ কিছুদিন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছিলেন তারকা এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

  • সিয়াম চৌধুরী, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম