Scores

“যতদিন উপভোগ করব ততদিন খেলব”

প্রিমিয়ার লিগের নতুন দল উত্তরা স্পোর্টিং ক্লাবের বেশিরভাগ খেলোয়াড়ই তরুণ। প্রথম বিভাগে ভালো করার সুবাদে দলটি উঠে এসেছে দেশের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ ক্রিকেট আসরে। সেই দলটিই বুধবার (২৭ মার্চ) সাক্ষী হল কিংবদন্তীতুল্য ক্রিকেটার আব্দুর রাজ্জাকের অনন্য এক মাইলফলকের।

তরুণদের রাজ্জাক দিলেন উপভোগ আর পরিশ্রমের মন্ত্র

বাংলাদেশের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে এদিন লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে ৪০০ উইকেট শিকারের অনন্য রেকর্ড গড়েন রাজ্জাক। প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে এদিন ম্যাচের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কারও পেয়েছেন ৩৬ বছর বয়সী বাঁহাতি স্পিনার। ১৫ রানের খরচায় ৪ উইকেট শিকার করা রাজ্জাক ম্যাচ শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে তরুণদের উদ্দেশে রাখলেন বিশেষ বার্তা।

Also Read - পাঞ্জাবকে হারের স্বাদ দিলো কলকাতা


রাজ্জাক বলেন, ‘ক্রিকেট যারা খেলেন, তাদের সবাইকে মনোযোগী থাকা উচিত। মনোযোগী হতে হলে ফিটনেস ধরে রাখতে হবে। ফিটনেস ঠিক থাকলে মনোযোগী থাকাটা সহজ হয়ে যায়।’

 

ক্যারিয়ারের শেষদিকে এসেও যেন মরচে ধরেনি তার ফর্মে। এর পেছনের রহস্য কী? রাজ্জাকের কথায়ই অপ্রকাশিত প্রশ্নের উত্তর খুঁজে নেওয়া যাক, ‘ক্রিকেট খেলার সময় বাইরের জিনিস নিয়ে বেশি চিন্তা করা ঠিক নয়। হতে পারে একেকজনের একেকরকম লাইফ স্টাইল। আমি খেলার সময় অন্যকিছু ভাবতে পারি না। পরিবার এখনো অনেক সাপোর্ট দেয়। পরিবারকে অনেক ধন্যবাদ, তাদের সাপোর্ট ঠিকমতো না পেলে কঠিন হয়ে যেত আমার জন্য।’

জাতীয় দলের হয়ে সাফল্য এনে দিতে তিনি অনুশীলনে জোর দেওয়ার পরামর্শ রাখলেন তরুণদের প্রতি। রাজ্জাক জানান, ‘জাতীয় দলে খেলতে হলে অবদান রাখতে হবে। দলের প্রয়োজন অনুযায়ী হয়তো সেই অবদান ঠিকঠাক রাখতে পারছে না অনেকে। তরুণদের সেভাবে অনুশীলন করা উচিত।’

ম্যাচ সেরার পুরস্কার নিতে এসে অনন্য কীর্তির ব্যাপারে জানতে পেরে রাজ্জাক বলেন, ‘একটা খেলোয়াড়ের জন্য প্রতিটি মাইলফলক স্পর্শ করা সবসময়ই বিশাল ব্যাপার। আমারও ব্যতিক্রম কিছু না। এখনো আমি খেলা উপভোগ করি। ভালো করলে ভালো লাগে। খারাপ খেললে খারাপ লাগে। সব সময়ই বড় কথা, ক্রিকেটটা এখনও উপভোগ করি।’

‘কতদিন খেলব, ঠিক করিনি। যতদিন ফিট থাকব খেলব। আগেই বলেছি, যতদিন উপভোগ করব ততদিন খেলব।’– বলেন আব্দুর রাজ্জাক।

 

পুরস্কার বিতরণী পর্বে উত্তরার তরুণদের উদ্দেশ্যে ম্যাচ রেফারি রকিবুল হাসান জানালেন রাজ্জাককে প্রেরণা হিসেবে গ্রহণ করার আহ্বান। তিনি বলেন, ‘তোমরা দেখো, রাজ্জাক এখনও কত ইয়াং। বল করছে, উইকেট পাচ্ছে, ফিল্ডিংয়ে থ্রো করে স্টাম্প ভাঙছে। তোমাদের সামনে এরচেয়ে বড় অনুপ্রেরণা আর কী হতে পারে!’

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন


Related Articles

বিশ্বকাপে থাকছেন রাজ্জাক!

বিশ্বকাপের সেরা ৫ টাইগার বোলার

রাজ্জাককে ছাড়িয়ে শীর্ষে মাশরাফি

“শুধু আমাদের দেশেই এভাবে ভাবা হয়”

অবসর না নেওয়া ‘সাবেক’দের নতুন পদক্ষেপ