যুব দলে যুক্ত হচ্ছেন আরও ক’জন কোচিং স্টাফ

0
829

বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের জন্য সুদূরপ্রসারী চিন্তাভাবনায় মগ্ন দেশের ক্রিকেটের অভিভাবক বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। বুধবার সংবাদমাধ্যমের সাথে আলাপকালে যুবদের নিয়ে বিভিন্ন পরিকল্পনার কথা জানান বোর্ডের প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন।

এবার সাইফদের সামনে ইংল্যান্ড চ্যালেঞ্জ

Advertisment

সুজন জানান, ২০২০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিতব্য যুব বিশ্বকাপকে সামনে রেখে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার পরিকল্পনা এখন থেকেই করে চলেছেন তারা। সেই সাথে সম্প্রতি দলের সাথে যোগ দেওয়া প্রধান কোচ নাভিদ নাওয়াজের সাথে যোগ করা হবে আরও কয়েকজন কোচিং স্টাফকে।

বিসিবি সিইও বলেন, ২০২০ সালে পরের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ হবে দক্ষিণ আফ্রিকায়সেভাবে আমরা পরিকল্পনা করছিনেওয়াজের পাশে কিছু সাপোর্টিং স্টাফ নিয়োগ দেওয়ারও পরিকল্পনা রয়েছে।’

এদিকে ভালো ফলাফলের জন্য দলের খেলার মধ্যে থাকার প্রয়োজনীয়তা ব্যাপক। আর সেটিই মাথায় রেখে কিছু দ্বিপাক্ষিক সিরিজ আয়োজন করছে বিসিবি, যেখানে বাংলাদেশের তরুণরা থাকবেন সফরকারী ও স্বাগতিক দুই ভূমিকাতেই। সুজন বলেন, আমরা কিছু সফর নিশ্চিত করেছিচার থেকে পাঁচটা দেশ-বিদেশে সিরিজ খেলবে দলশ্রীলঙ্কা ও ইংল্যান্ডের সঙ্গে হোম-অ্যাওয়ে সিরিজ নিশ্চিত হয়েছেবিশ্বকাপের আগে জিম্বাবুয়েতে কন্ডিশনিং ক্যাম্প বা বাড়তি কিছু ম্যাচ খেলা যায় কি না, সেটাও বিবেচনায় রয়েছে।’

এদিকে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের প্রধান কোচ হিসেবে শ্রীলঙ্কার সাবেক ক্রিকেটার নাভিদ নাওয়াজের নিয়োগের ব্যাপারেও নিশ্চিত হওয়া গেছে। একবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন দেশটির সাবেক এই ক্রিকেটার জাতীয় দলের জার্সি গায়ে খেলেছেন একটি টেস্ট, ২০০২ সালের যে টেস্ট ম্যাচে শ্রীলঙ্কার প্রতিপক্ষ ছিল বাংলাদেশ। খেলেছেন তিনটি একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচও। পেশাদার এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ঘরোয়া ক্রিকেটে অবশ্য খেলেছেন দাপটের সাথেই। ২০০৫ সালে খেলোয়াড়ি জীবন শেষ করে কোচিং পেশায় মনোনিবেশ করেন তিনি। টেস্ট খেলুড়ে কোনো দেশের যুব দলে কাজ করা এটিই অবশ্য প্রথম হচ্ছে না তার জন্য। ২০০৯ সালে শ্রীলঙ্কা অনূর্ধ্ব-১৯ দলের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পান তিনি। এর আগে দেশটির নারী ক্রিকেট দলের উপদেষ্টা হিসেবেও কাজ করেছেন।

আরও পড়ুন: বৃহস্পতিবার সিরিজ জয়ের মিশনে নামছে ‘এ’ দল