Scores

যে স্টেডিয়ামে চাইতেন অটোগ্রাফ, সেখানেই নিজের নামে স্ট্যান্ড

২০০৮ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পর্দাপনের পর থেকে নিজের জাত চিনিয়ে যাচ্ছেন ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি। তারকা খ্যাতি গায়ে লাগার আগে সুযোগ হলেই ছুটে আসতেন দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামে। গ্যালারিতে বসে উপভোগ করতেন ম্যাচ, হাত বাড়িয়ে দিতেন ক্রিকেটারদের অটোগ্রাফ নেওয়ার জন্য। এরপর বাইশ গজের ক্রিকেটে এতোটাই সফল হয়েছেন যে, সেই স্টেডিয়ামেই পেলেন নিজের নামে স্ট্যান্ড।


আগেই নির্ধারিত ছিল, দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামের নাম বদলে তা ভারতের প্রয়াত অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির নামে করা হবে৷ একই সঙ্গে এটাও নির্ধারণ করা ছিল, এই স্টেডিয়ামের একটি স্ট্যান্ডের নামরকণ করা হবে ভারতের বর্তমান অধিনায়ক বিরাট কোহলির নামে৷ গত বৃহস্পতিবার দিল্লি অ্যান্ড ডিস্ট্রিক্ট ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশ (ডিডিসিএ) এর বার্ষিক অনুষ্ঠানে খোদ কোহলি নিজের হাতে উন্মোচন করেন তাঁর নামাঙ্কিত স্ট্যান্ড৷

অথচ পেশাদার ক্রিকেট ক্যারিয়ার শুরুর আগে এই ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামেই খেলোয়াড়দের অটোগ্রাফ নেয়ার জন্য দাঁড়িয়ে থাকতেন কোহলি। সেসময়কার স্মৃতিচারণ করতে যেয়ে কিছুটা আপ্লুত হয়ে পড়েন বিশ্ব ক্রিকেটের এই নাম্বার ওয়ান ব্যাটসম্যান।

Also Read - তোমাদের বিপিএলে এখনো পেশাদারিত্ব আসেনি: রশিদ খান


সস্ত্রীক নিজের নামাঙ্কিত স্ট্যান্ড উন্মোচনের পর কোহলি বলেন, ‘আজ বাড়ি থেকে বেরোনোর সময় সবাইকে একটা গল্প বলছিলাম৷ আমার মনে আছে ২০০১ সালে এই স্টেডিয়ামে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একটা ম্যাচ দেখার টিকিট পেয়েছিলাম এবং ক্রিকেটারদের অটোগ্রাফ চাইছিলাম৷ সেই স্টেডিয়ামেই আজ আমার নামে একটা স্ট্যান্ড হয়েছে৷ এটা আমার কাছে ভীষণ সম্মানের৷’

এর আগে ডিডিসিএ সভাপতি রজত শর্মা বিরাট কোহলির নামে স্ট্যান্ডের নামকরণ প্রসঙ্গে বলেন,

যখন আমি সিদ্ধান্ত নিই স্টেডিয়ামের একটি স্ট্যান্ড বিরাটের নামে করা হবে, তখন তা প্রথম জানাই অরুণ জেটলি জি’কে৷ উনি আমাকে বলেন, এটা খুব ভালো সিদ্ধান্ত৷ কারণ, ক্রিকেট বিশ্বে বিরাট কোহলির থেকে ভালো ক্রিকেটার আর নেই৷’

স্টেডিয়াম ও কোহলি স্ট্যান্ডের নামকরণ অনুষ্ঠানে ডিডিসিএ সভাপতি রজত শর্মা, ভারতের বিশ্বকাপজয়ী সাবেক অধিনায়ক কপিল দেব সহ বর্তমান দলের সকল সদস্য উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও সেখানে উপস্থিত ছিলেন বিজেপি সভাপতি এবং ভারতের বর্তমান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়াল, কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেণ রিজিজুর এবং বিসিসিআইয়ের কর্তাব্যক্তিরা।

Related Articles

জিম্বাবুয়ের পাকিস্তান সফরসূচি চূড়ান্ত

বোলিংয়ে নতুন অস্ত্র যোগ করছেন রশিদ

৬টি কেক কেটে যুবরাজের ‘৬ ছক্কা’র বর্ষপূর্তি উদযাপন

জম্মু-কাশ্মিরে দশটি স্কুল ও ক্রিকেট একাডেমি বানাবেন রায়না

সীমান্ত খুললেও দক্ষিণ আফ্রিকায় ফিরছে না আন্তর্জাতিক ক্রিকেট