Scores

যে ‘১১ দফা’ দাবিতে কঠোর অবস্থানে ক্রিকেটাররা

মিরপুরের একাডেমী মাঠে আজ যেন বসেছিলো তারার মেলা। উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের প্রায় সকল ক্রিকেটার। তবে মিলনমেলাটা বিষাদে রূপ নিতে সময় নিলো না বেশিক্ষণ। ক্রিকেটারদের তরফ থেকে বোর্ডের উদ্দেশ্যে পেশ করা হয়েছে ১১ দফা দাবি। সেটা যতক্ষণ পর্যন্ত না মানা হচ্ছে, ততক্ষণ ক্রিকেট সম্পর্কিত সকল কার্যক্রম বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছেন সাকিব আল হাসানরা।

প্রথম শ্রেণির ম্যাচ ফি ১ লাখ টাকা হওয়া উচিৎ সাকিব

দুপুরের পর জানা যায়, বেলা ৩টায় সংবাদ সম্মেলন করে বেশকিছু দাবিদাওয়া জানাবেন ক্রিকেটাররা। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রতি দীর্ঘদিন ধরে জমে থাকা ক্ষোভ আর কষ্টের কথা লিখিত আকারে পেশ করেন জাতীয় দল ও ঘরোয়া ক্রিকেটের বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার। যেখানে শুরু করেন নাইম ইসলাম। প্রথম দফা দাবিতে তিনি তুলে ধরেন ক্রিকেটারদের উন্নয়নের সংস্থা কোয়াব।

Also Read - প্রথম শ্রেণির ম্যাচ ফি ১ লাখ টাকা হওয়া উচিৎ: সাকিব


যেখানে নাইম বলেন, কোয়াবের বর্তমান সদস্যের পদত্যাগ করতে হবে। এবং এর দায়িত্বভার থাকবে শুধুমাত্র ক্রিকেটারদের কাঁধে। এরপর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ পরের দাবি উপস্থাপন করতে যেয়ে বলেন, প্রিমিয়ার লিগের আগের নিয়মে যেন হয়। যেখানে ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিকের মানদণ্ড যাতে বেঁধে দেওয়া না হয়। এরপর তৃতীয় দাবিতে বলা হয়, ঘরোয়া ক্রিকেটে টুর্নামেন্টের সংখ্যা বাড়াতে হবে আরো। সাথে এনসিলের জন্য ওয়ানডে টুর্নামেন্ট যুক্ত করতে হবে।

চতুর্থ দাবিতে উঠে আসে, জাতীয় দলে চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটার বাড়ানোর কথা। পঞ্চম দাবিতে জুনায়েদ সিদ্দিকী বলেন বিপিএলের পাওনা টাকা পরিশোধ করতে হবে। ষষ্ঠ দাবি হিসাবে তামিম ইকবাল জানান, ক্রিকেটারদের সম্মানই শুধু নয়, দেশীয় কোচ ও গ্রাউন্ডসম্যানদের যাথাযথ সম্মান এবং সম্মানী দিতে হবে।

সপ্তম দাবি নিয়ে নুরুল হাসান সোহান জানিয়েছেন, ঘরোয়া ক্রিকেটের  জন্য একটা নির্দিষ্ট ক্যালেন্ডার থাকতে হবে। আগে থেকে প্রস্তুত হবার জন্য এটি জরুরি বলে উল্লেখ করেন তিনি। অষ্টম দাবি নিয়ে ফরহাদ রেজা বলেন, ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ খেলতে যে মাত্র দুইটি লিগে খেলার বিধান তা শিথিল করার করতে হবে ক্রিকেট বোর্ডকে।

নয় নম্বর দাবির বিষয়ে মুশফিকুর রহিম বলেছেন, ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক আগের থেকে বাড়াতে হবে। এছাড়াও ঘরোয়া লিগে বিদেশী ক্রিকেটারদের মানদণ্ড বিবেচনায় আনতে হবে। এছাড়া বাকি দুই দাবির বিষয়ে সাকিব বলেছেন, প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটারদের বেতন ৫০ শতাংশ বাড়াতে হবে।

ঘরোয়া লিগ খেলতে যাওয়ার খরচ হিসাবে ২৫০০ টাকা যথেষ্ট নয়। একই সাথে হোটেলে জিম ও সুইমিংপুল নিশ্চিত করতে হবে এবং ক্রিকেটাররা যে বাসে যায় সেটার মান বিবেচনায় আনতে হবে।

এক নজরে ক্রিকেটারদের ১১ দফা দাবিসমূহ-

১. কোয়াবের কোনো কার্যক্রম না থাকায় বর্তমান কমিটিকে অবিলম্বে পদত্যাগ করতে হবে।

২. প্রিমিয়ার লিগ আগের মতো করতে হবে। নিজেদের ডিল করতে দিতে হবে।

৩. এ বছর না হোক, তবে পরের বছর থেকে আগের মত বিপিএল হতে হবে, লোকালদের দাম বাড়াতে হবে।

৪. প্রথম শ্রেণীর ম্যাচ ফি ১ লাখ, বেতন বাড়াতে হবে, বারো মাস কোচ ফিজিও দিতে হবে, প্রতি বিভাগে প্র্যাকটিসের ব্যবস্থা করতে হবে।

৫. ভাল মানের বল দিতে হবে, ডিএ ১৫০০ টাকায় কিছু হয় না, তাই বাড়াতে হবে, ট্রাভেল প্লেন ভাড়া দিতে হবে, হোটেল ভালো হতে হবে।

৬. চুক্তিভুক্ত ক্রিকেটারের সংখ্যা ও বেতন বাড়াতে হবে।

৭. দেশি সব স্টাফদের বেতন বাড়াতে হবে, কোচ থেকে গ্রাউন্ডস, আম্পায়ার সবার বেতন বাড়াতে হবে।

৮. ঘরোয়া ওয়ানডে বাড়াতে হবে, বিপিএলের আগে আরেকটি টি ২০ খেলতে চাই।

৯. ঘরোয়া ক্যালেন্ডার ফিক্সড হতে হবে।

১০. বিপিএলের পাওনা টাকা নির্ধারিত সময়ের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে।

১১. ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ দুটোর বেশি খেলা যাবে না, নিয়ম তুলে দিতে হবে। সুযোগ থাকলে সবাই খেলবে।

দেখুন ক্রিকেটারদের ১১ দফা নিয়ে করা সংবাদ সম্মেলন-

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

সৌম্য-নাইমে বাংলাদেশের উড়ন্ত সূচনা

সুমনের অগ্নিঝরা বোলিং, সৌম্য-নাইমদের সামনে সহজ লক্ষ্য

মুমিনুল-মুশফিকের ব্যাটে কঠিন সেশন পার বাংলাদেশের

মেহেদীদের নৈপুণ্যে কোণঠাসা হংকং

টাইগারদের বোলিং তোপে ব্যাটিং বিপর্যয়ে হংকং