Scores

রকিবুলের দৃঢ়তায় জয় পেল মোহামেডান

রকিবুলের দৃঢ়তায় জয় পেল মোহামেডান
ম্যাচশেষে রকিবুল ও তাইজুল

ফতুল্লায় খান সাহেব ওসমান আলি স্টেডিয়মে খেলাঘর সমাজ কল্যান সমিতিকে চার উইকেটে হারিয়েছে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। বোলিংয়ে এনামুল হক জুনিয়রের ঘূর্ণি আর ব্যাটিংয়ে রকিবুল হাসানের দৃঢ়তা জয় এনে দিয়েছে মোহামেডানকে।

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে দ্বিতীয় ওভারেই মোহাম্মদ আজিমের বলে আউট হন ওপেনার সালাহউদ্দিন পাপ্পু। রানের খাতা খোলার আগে বিদায় নেন তিনি। এরপর অধিনায়ক নাফিস ইকবালকে নিয়ে ৫২ রান যোগ করেন রবিউল ইসলাম রবি। অমিত মজুমদারকে নিয়ে ৫১ রানের জুটি গড়েন রবি।


আরো পড়ুনঃ  মারুফের শতকে শীর্ষে প্রাইম ব্যাঙ্ক

Also Read - মারুফের শতকে শীর্ষে প্রাইম ব্যাঙ্ক



৭ চার ও ১ ছক্কায় ৬৩ রানের ইনিংস খেলেন রবি। দলীয় ১১১ রানের মাথায় কামরুল ইসলাম রাব্বির বলে আউট হন তিনি। নাজিমউদ্দিনকে নিয়ে আরো ৩৬ রান যোগ করেন অমিত। অর্ধশতক তুলে নেন তিনি। ৫৩ রান করে আউট হন এনামুল হকের বলে। এরপর থেকেই শুরু হয় ব্যাটিংয়ে ধস। ০ রান করেই স্টাম্পিং হন নাজমুস সাদাত। চার রান করে রাব্বির বলে এলবিডব্লিউ হন সাদিকুর। ডলার মাহমুদকে বোল্ড করেন আজিম। এ ধস আর আটকাতে না পারলে ১৮৯ রান করে অলআউট হয় খেলাঘর।

মোহামেডানের হয়ে ওপেনিং জুটিতে ২৫ রান তুলেন সৈকত আলি ও রনি তালুকদার। বেশ দ্রুত রান তুললে এ জুটির স্থায়ীত্ব ছিল মাত্র ১৯ বল। ৩ ছক্কায় ১৩ বলে ২০ রান করে তানভীর ইসলামের বলে বোল্ড হন সৈকত। রনি তালুকদারকে নিয়ে ভারতের অভিনব মুকুন্দ ৬২ রান যোগ করেন। এ জুটিতে শক্ত অবস্থানে চলে যায় মোহামেডান। ২৬ রান করে রবির বলে আউট হন রনি। পরের বলেই উইকেট রক্ষককে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান শামসুর রহমান। দুই বলে দুই উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়ে মোহামেডান।

দলীয় ৯৪ রানের মাথায় আবারো আঘাত হানেন রবি। ৩৫ রান করা মুকুন্দকে আউট করেন রবি। ঐ ওভারেই রানের খাতা খোলার আগে রান আউট হন অভিষেক মিত্র।

দ্রুত উইকেট হারানোর পর রানের গতি কমে আসে মোহামেডানের। মন্থর ব্যাটিং করতে থাকে তারা। এক প্রান্ত আগলে রাখেন অধিনায়ক রকিবুল হাসান। নাজমুল হোসেনকে নিয়ে রকিবুল ৩০ রান যোগ করে দলকে নিরাপদে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। ৬ রান করে সাদাতের বলে এলবিডব্লিউ হন নাজমুল। ১২৬ রানে ছয় উইকেট হারায় মোহামেডান। জেগে উঠে হারের শঙ্কা।

তাইজুল ইসলামকে নিয়ে সপ্তম উইকেট জুটিতে প্রতিরোধ গড়ে তুলেন রকিবুল হাসান। ব্যাট হাতে পরিচয় দেন বীরত্বের। তাইজুলকে নিয়ে ৬৪ রানের জুটি গড়েন রাকিবুল। ৩১ বল আগেই দলকে নিয়ে যান জয়ের বন্দরে। ৬৪ রানের জুটিতে তাইজুলের অবদান ছিল ১৪। অধিনায়ক রাকিবুল হাসান দায়িত্বটা সামাল দেন ভালোভাবেই। তার ব্যাটে ভর করে শঙ্কার মেঘ দূর করে জয়ের হাসি নিয়ে মাঠ ছাড়ে মোহামেডান।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ খেলাঘর ১৮৯/১০, ৪৫.৪ ওভার
রবি ৬৩, অমিত ৫৩, নাফীস ১৯
এনামুল ৩/৩৩, আজিম ২/২৫

মোহামেডান ১৯০/৬ ৪৪.৫ ওভার
রকিবুল ৭৬*, মুকুন্দ ৩৫, রনি ২৭
রবি ৩/২০, তানভির ১/২৬

-আজমল তানজীম সাকির, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম ডট কম 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

মারুফের টানা দ্বিতীয় শতকে রূপগঞ্জের জয়

অঙ্কনের ৮৫ রানে বিফলে জহুরুলের শতক

জোড়া অর্ধশতকে কলাবাগানের জয়

খেলাঘরকে হারাল রূপগঞ্জ

রবির টানা শতকে খেলাঘরের জয়