Scores

রকিবুলের ৪ রানের আক্ষেপ, আশরাফুলের ব্যাটে হাসি

ব্যাট হাতে ডিপিএলটা মোটেও ভালো যাচ্ছিল না মোহাম্মদ আশরাফুলের। শেষ চার ইনিংসে করেছিলেন (১১, ৩, ৪, ৬) মাত্র ২৪ রান। দল তবুও আস্থা হারায়নি তার উপর। যার প্রতিদান আবাহনীর বিপক্ষে জ্বলে ওঠে দিচ্ছেন তিনি।

বল হাতে ভালো করলেও চলমান ডিপিএলে ব্যাট হাতে নামের প্রতি সুবিচার করতে পারছিলেন না আশরাফুল। অবশেষে সুপার লিগের বড় ম্যাচে আজ রানের দেখা পেয়েছেন তিনি। মাশরাফি মুর্তজাদের আবাহনীর বিপক্ষে অর্ধশতকের দেখা পেয়েছেন তিনি।
৫৮ বলে অর্ধশতক পূর্ণ করার পথে ৫টি চারের মার খেলেছেন তিনি।

Also Read - প্রথম বাংলাদেশি পেসার হিসেবে মাশরাফির চারশো



৩০৫ রানের পাহাড়সম লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে মোহামেডান। ৬১ রানে হারিয়ে বসে ৪ উইকেট। দলের এমন বিপদের মূহূর্তে রকিবুল হাসানের সাথে জুটি গড়েন আশরাফুল। দারুণ সমর্থন দিয়ে দলকে এগিয়ে নিতে থাকেন সামনের দিকে।

শতরানের জুটিতে প্রথমে রকিবুল ও পরে আশরাফুলও দেখা পান ব্যক্তিগত মাইলফলক অর্ধশতকের। তাদের অবিচ্ছিন্ন পঞ্চম উইকেটের জুটিতে এ মুহূর্তে বিপর্যয় কাটিয়ে ওঠেছে দলটি। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে ৩৪ ওভারের খেলা। এ মুহূর্তে ৪ উইকেটের বিনিময়ে দলটির সংগ্রহ ৫ উইকেটে ১৯৭ রান।

শতক থেকে ৪ রান দূরে ৯৬ রানে রকিবুল আউট হলেও অপরাজিত আছেন আশরাফুল। তার সংগ্রহ ৫৪ রান। জয়ের জন্য দলটির প্রয়োজন ১৬ ওভারে দলটির প্রয়োজন আরও ১০৬ রান।

এর আগে সাভারের বিকেএসপিতে আগে ব্যাট করে ৫০ ওভার শেষে ৭ উইকেটে ৩০৪ রানের পুঁজি পায়আবাহনী। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৪ রান আসে সাব্বির রহমানের ব্যাট থেকে। ৫ চার ও ৪ ছক্কায় এ রান করেন তিনি। তাছাড়া দলের পক্ষে মিঠুনের ব্যাট থেকে ৫৬ রান আসে। শেষ দিকে সাইফউদ্দিন ৪১ ও মোসাদ্দেক খেলেন অপরাজিত ৫৪ রানের ইনিংস।

মোহামেডানের বোলারদের মধ্যে ৬৩ রান খরচায় শফিউল ইসলাম লাভ করেন ৩টি উইকেট।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

‘লোভের বশে’, ‘লুকিয়ে’ ডিপিএল খেলেছেন সাইফউদ্দিন!

সৌম্যকে যেভাবে সাহায্য করেছেন জাফর

ওয়াসিম জাফরের পরামর্শ কাজে লাগানোর প্রত্যাশা

তাণ্ডবের আগে ‘নার্ভাস’ ছিলেন সৌম্য

গর্বিত ‘অধিনায়ক মোসাদ্দেক’, কৃতিত্ব মাশরাফিকে