SCORE

সর্বশেষ

রাইডুর শতক থামালো সাকিবদের জয়ের ধারা

আইপিএলে দীর্ঘদিন পর পরাজয়ের স্বাদ পেল সাকিব আল হাসানের সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। টানা সাত জয়ের পর থেমেছে তাদের জয়ের ধারা। সানরাইজার্স হায়দরাবাদের সামনে ছিল চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে হারার প্রতিশোধ নেয়ার সুযোগ। কিন্তু মহেন্দ্র সিং ধোনির চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে এবারের আসরের দ্বিতীয় ম্যাচেও পরাজিত হতে হলো সাকিবদের।

শিখর ধাওয়ান আর কেন উইলিয়ামসনের জোড়া অর্ধশতকে ভর করে ১৭৯ রানের লড়াকু পুঁজি সংগ্রহ করেছিল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। আম্বাতি রাইডুর অনবদ্য শতকে লক্ষ্য তাড়ায় সফল হয় চেন্নাই সুপার কিংস। আট উইকেটের বড় জয় নিয়ে প্লে-অফ নিশ্চিত করেছে চেন্নাই সুপার কিংস।

টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করতে নামে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। চেন্নাই সুপার কিংসের বোলারদের শুরুটা ভালোই হয়। শুরু থেকেই নিয়ন্ত্রিত বোলিং করতে থাকে চেন্নাই সুপার কিংসের বোলাররা। চতুর্থ ওভারে দলীয় ১৮ রানের মাথাতেই প্রথম উইকেট হারায় সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। ৯ বলে ২ রান করে দীপক চাহারের শিকার হন অ্যালেক্স হেলস।

Also Read - আফগান সিরিজেও প্রধান কোচের দায়িত্বে ওয়ালশ!

অ্যালেক্স হেলসের বিদায়ের পর দলের হাল ধরেন শিখর ধাওয়ান এবং কেন উইলিয়ামসন। তাদের ১১৩ রানের জুটিতে ঘুরে দাঁড়ায় সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। দুজনই স্পর্শ করেন অর্ধশতক। দলীয় ১৪১ রানের মাথায় ডোয়াইন ব্রাভোর শিকার হন শিখর ধাওয়ান। ১০ চার আর ৩ ছক্কা হাঁকানো ধাওয়ান ৪৯ বলে করেন ৭৯ রান। পরের ওভারেই কেন উইলিয়ামসনকে ফিরিয়ে দেন শার্দুল ঠাকুর। ৩৯ বল মোকাবেলা করে ৫১ রান করেন কেন উইলিয়ামসন। তার ইনিংসে ছিল ৫ টি চার আর ২ ছক্কা।

এরপর ১ চার আর ১ ছক্কায় ১১ বলে ২১ রান করেন দীপক হুদা। মানিশ পান্ডে মাত্র ৫ রান করে ফিরে যান। শেষদিকে ব্যাটিং করতে নেমে ৬ বলে ৮ রান করে অপরাজিত থাকেন সাকিব আল হাসান। দীপক হুদার ২১ রানের কার্যকরী ইনিংসের সুবাদে ৪ উইকেটে ১৭৯ রান করে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।

বোলিংয়ে দুইটি উইকেট শিকার করেন চেন্নাই সুপার কিংসের বোলার শার্দুল ঠাকুর। একটি করে উইকেট পান দীপক চাহার এবং এবং ডোয়াইন ব্রাভো।

রান তাড়া করতে নামা চেন্নাই সুপার কিংসকে উড়ন্ত সূচনা উপহার দেন দুই ওপেনার শেন ওয়াটসন এবং আম্বাতি রাইডু। শুরু থেকেই সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বোলারদের ওপর চড়াও হন ওয়াটসন এবং রাইডু। পাওয়ারপ্লে শেষ হওয়ার আগেই দলীয় অর্ধশতক পূরণ হয়ে যায় চেন্নাই সুপার কিংসের।

ষষ্ঠ ওভারে প্রথমবারের মতো বোলিং আক্রমণে আনা হয় সাকিব আল হাসানকে। নিজের প্রথম ওভারে ১০ রান দেন সাকিব। সিদ্ধার্থ কাউলের করা সপ্তম ওভারে রান হয় ১৬। পরের ওভারে নিজের দ্বিতীয় ওভারে আট রান দেন সাকিব।

এ ওপেনিং জুটি অবশেষে থামে ইনিংসের ১৪ তম ওভারে। সাকিব আল হাসানের তৃতীয় ওভারে রান আউট হন শেন ওয়াটসন। ৩৫ বলে ৫৭ রানের ইনিংস খেলে প্যাভিলিয়নে ফিরেন ওয়াটসন। তার ইনিংসে ছিল ৫ চার আর ৩ ছক্কা। ঐ ওভারে নয় রান দেন সাকিব।

পরের ওভারেই বিদায় নেন চেন্নাই সুপার কিংসের সুরেশ রায়না। ২ রান করে সন্দ্বীপ শর্মার বলে মিড-অফে থাকা কেন উইলিয়ামসনের হাতে ক্যাচ দেন রায়না। রায়নার বিদায়ের পরের ওভারে মহেন্দ্র সিং ধোনিকেও ফিরিয়ে দিয়ে ম্যাচে টিকে থাকার সুযোগ পেলেও তা হাতছাড়া করে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।

সাকিব আল হাসানের বলে উড়িয়ে মারতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দেন ধোনি। লং অনে সহজ ক্যাচ ছাড়েন মানিশ পান্ডে। ঐ ওভারের শেষ দুই বলে রাইডু ছক্কা এবং চার মেরে সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে ম্যাচ থেকে ছিটকে দেন। ১৮তম ওভারের শেষ বলে ধোনি ছক্কা মারলে শেষ দুই ওভারে মাত্র ৮ রান প্রয়োজন ছিল চেন্নাই সুপার কিংসের

দুর্দান্ত ব্যাটিং করা আম্বাতি রাইডু তার শতক পূর্ণ করেন ৬২ বলে। শুরু থেকেই বিধংসী ব্যাটিং করেন তিনি। ১৯ তম ওভারের পঞ্চম  বলে এক রান নিয়ে টি-২০ ক্যারিয়ারের প্রথম শতক স্পর্শ করেন রাইডু। খুনে মেজাজে ব্যাটিং করা রাইডু ৬২ বলে ১০০ রানের ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন। পরের বলেই রান নিয়ে জয় নিশ্চিত করেন মহেন্দ্র সিং ধোনি।

এ জয়ের সুবাদে এবারের আইপিএলে দ্বিতীয় দল হিসেবে প্লে-অফ নিশ্চিত করলো চেন্নাই সুপার কিংস।

সংক্ষিপ্ত স্কোর ঃ সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ১৭৯/৪, ২০ ওভার
ধাওয়ান ৭৯, উইলিয়ামসন ৫১, দীপক ২১*
ঠাকুর ২/৩২, চাহার ১/১৬, ব্রাভো ১/৩৯

চেন্নাই সুপার কিংস ১৮০/২ , ১৯ ওভার
রাইডু ১০০*, ওয়াটসন ৫৭, ধোনি ২০*
সন্দ্বীপ ১/৩৬, সাকিব ০/৪১


আরো পড়ুন ঃউইন্ডিজের বিপক্ষে ফ্লোরিডায় টি-টোয়েন্টি খেলবে বাংলাদেশ


 

Related Articles

ভারতছাড়া হচ্ছে আইপিএল!

বিগ ব্যাশকেও বিদায় বললেন জনসন

দুই বছর বিদেশি লিগে খেলবেন না মুস্তাফিজ

১০০ বলের ফরম্যাটের প্রস্তুতি শুরু করেছে ইংল্যান্ড

আইপিএল খেলে যাবেন ডি ভিলিয়ার্স