Scores

রাসেল ঝড়ে রাজশাহীর ‘অবিশ্বাস্য’ জয়

দেখতে দেখতে পর্দা নামতে চলছে বঙ্গবন্ধু বিপিএলের। আগামী ১৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল ম্যাচ। সেই ফাইনালে উঠার মিশনে আন্দ্রে রাসেলের দানবীয় ব্যাটিংয়ে শেষ হাসি রাজশাহী রয়্যালসের।


এদিন আগে ব্যাট করে ক্রিস গেইলের ২৪ বলে ৬০ রানের ঝড়ো ইনিংসের কল্যাণে ১৬৪ রানের পুঁজি পায় চট্টগ্রাম। পরে রাজশাহীর হয়ে ১৬৫ রানের লক্ষ্য টপকাতে নামেন দুই ব্যাটসম্যান লিটন দাস ও আফিফ হোসেন। তবে একেবারেই সুবিধা করতে পারেননি তারা। আফিফ ২ ও লিটন ফেরেন ৬ রান করে।

Also Read - ডি ভিলিয়ার্সকে ফিরে পেতে মরিয়া ডু প্লেসিস


এরপর ১১ বলে ৯ রান করে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের শিকারে পরিণত হন অলক কাপালি। ফলে ৩৪ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে ধুকতে থাকে রাজশাহী। পরে শোয়েব মালিককে নিয়ে ইনিংস মেরামতের কাজ করেন ইরফান শুক্কুর। তৃতীয় উইকেটে ৪৫ বলে ৪৬ রানের পার্টনারশিপ গড়েন দুজন। জিয়াউর রহমানের বলে আউট হওয়ার আগে ২২ বলে মাত্র ১৪ রান করেন মালিক।

সতীর্থ্যকে হারিয়ে পরে নিজেও স্থায়ী হতে পারেননি শুক্কুর, ৩৯ বলে ৪৪ রান করে মেহেদী হাসান রানার বলে আউট হন তিনি। ফলে শেষ ৫ ওভারে জয়ের জন্য রাজশাহীর প্রয়োজন পড়ে ৭৬ রান। সেখান থেকে শেষ চেষ্টা করেন অধিনায়ক আন্দ্রে রাসেল। তবে রাসেলকে রেখে একে একে ফিরে যান নওয়াজ (১৪), ফরহাদ রেজা (৬) ও কামরুল ইসলাম রাব্বিরা (০)।

পরে ১২ বলে ৩১ রানের প্রয়োজন পড়লে রানার করা ইনিংসের ১৯তম ওভার থেকে তুলে নেন ২৩ রান। ফলে জয়ের জন্য শেষ ওভারে দরকার পড়ে ৮ রান। যেখানে রাসেলের মাত্র ২২ বলে ৫৪ রানের ঝড়ে ৪ বল হাতে রেখে ২ উইকেটের জয় তুলে মাঠ ছাড়ে রাজশাহী রয়্যালস। এতেই ফাইনাল নিশ্চিত হয় দলটির।

এর আগে টস হেরে জিয়াউর রহমানকে নিয়ে নিজেদের ইনিংস শুরু করতে আসেন ক্যারিবিয়ান ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইল। তবে একেবারেই সুবিধা করতে পারেননি জিয়া, ১২ বলে ৬ রান করে আউট হন তিনি। ইনফর্ম ব্যাটসম্যান ইমরুল কায়েসও আজ ফিরেছেন ৫ রান করে। অন্যপ্রান্তে নিজ ব্যাটে ঝড় তোলেন গেইল। চার-ছক্কার বন্যা বইয়ে মাত্র ২১ বলে অর্ধশতক তুলে নেন তিনি। যেখানে বাউন্ডারি থেকেই আসে ৪৮ রান।

তবে সেই ইনিংসটাকে আর বেশি টানতে পারেননি গেইল। আফিফ হোসেনের বলে আউট হয়েছেন ২৪ বলে ৬০ রান করে। যেখানে ৬টি চারের সাথে ৫টি ছক্কা হাঁকান বাঁহাতি এ ব্যাটসম্যান। গেইলের সাথে তৃতীয় উইকেটে ৫২ রানের পার্টনারশিপ ভাঙার পর সমান ৩টি করে চার-ছয়ের মারে ১৮ বলে ৩৩ রান করে আউট হয়ে যান অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও। এরপর ছন্দপতন চট্টগ্রাম শিবিরে।

নুরুল হাসান সোহান ০, চ্যাডউইক ওয়ালটন ৫ এবং এমরিট ৩ রান করে আউট হলে বড় সংগ্রহের স্বপ্নে ভাটা পড়ে চট্টগ্রামের। শেষদিকে গুনারত্নের ২৫ বলে ৩১ রানের কল্যাণে নির্ধারিত ওভার শেষে ১৬৪ রানের সংগ্রহ পায় চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। এদিন রাজশাহী রয়্যালসের হয়ে বল করেন ৮ জন বোলার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স: ১৬৪/৯ (২০ ওভার)
গেইল ৬০, রিয়াদ ৩৩, গুনারত্নে ৩১; নেওয়াজ ২/১৩, ইরফান ২/১৬, কাপালি ১/১৯।

রাজশাহী রয়্যালস: ১৬৫/৮ (১৯.২ ওভার)

রাসেল ৫৪, শুক্কুর ৪৫, নেওয়াজ ১৪; এমরিট ২/৪১, রুবেল ২/৩২, রিয়াদ ১/১০।

ফল: রাজশাহী ২ উইকেটে জয়ী।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন
Tweet 20
fb-share-icon20

Related Articles

ওয়েস্ট ইন্ডিজের টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডে চমক

প্রাইজমানির চেয়ে শিরোপাই বড় প্রাপ্তি রাসেলের কাছে

শুরু থেকেই ‘চ্যাম্পিয়ন’ হওয়ার কথা ভেবেছিলেন রাসেল

ভিডিওঃ ফাইনালে রাজশাহীর বিজয়ের মুহূর্ত

লিটন-আফিফেই আস্থা রাসেলের, দুশ্চিন্তা টস নিয়ে