Scores

রাসেল-নেওয়াজ ঝড়ে রাজশাহীর লড়াকু সংগ্রহ

বড় উপলক্ষের জন্য সেজেছে মঞ্চ। কার হাতে উঠবে বিপিএলের সপ্তম ও বিশেষ আসরের শিরোপা! সেই শিরোপা নির্ধারণী ফাইনাল ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে দুই দল খুলনা টাইগার্স ও রাজশাহী রয়্যালস।

বিপিএল ফাইনালে ৫২ রানের দারুণ ইনিংস খেলেন ইরফান শুক্কুর।

এই ম্যাচে আগে ব্যাট করে ইরফান শুক্কুরের ফিফটির পর আন্দ্রে রাসেল ও মোহাম্মদ নেওয়াজের ব্যাটিং ঝড়ে খুলনার সামনে ১৭১ রানের লক্ষ্য দাঁড় করেছে রাজশাহী রয়্যালস।

Also Read - বাংলাদেশের বিপক্ষে ডাক না পাওয়ায় কষ্ট পেলেন কামরান


এদিন শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস ভাগ্য কথা বলে খুলনার হয়ে। তবে টস জিতে বলটা নিজেদের হাতে রেখে রাজশাহীকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানালেন খুলনার অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। মিরপুরের গ্যালারীতে ততক্ষণে সাজ সাজ রব। পুরো গ্যালারী তো ভরে উঠেছেই, সাথে আসন না পেয়ে দাঁড়িয়ে কয়েক হাজার সমর্থক।

এমতাবস্থায় টস হেরে নিজেদের ইনিংস শুরু করতে নামেন রাজশাহীর দুই ওপেনার লিটন দাস ও আফিফ হোসেন। তখন দুই ব্যাটসম্যানকে স্বাগত জানাল ফায়ার ওয়ার্ক। এরপর শুরু মাঠের লড়াই। সেই লড়াইয়ে ব্যর্থই বলতে হবে আফিফকে। মোহাম্মদ আমিরের বলে মেহেদী হাসান মিরাজের চোখ ধাঁধানো এক ক্যাচে পরিণত হয়ে আউট হয়েছেন ৮ বলে ১০ রান করে।

এরপর নতুন ব্যাটসম্যান ইরফান শুক্কুরকে নিয়ে ইনিংস মেরামতের কাজ করেন লিটন। রাজশাহীর পাওয়ার-প্লের ৬ ওভার শেষ হয় ওই ১ উইকেট হারিয়ে ৪৩ রানে। তবে ধীর গতির ব্যাটিং করলেও সুবিধা করতে পারেননি লিটন। শহিদুলের বলে শান্তর হাতে ধরা পড়েছেন ২৮ বলে ২৫ রান করে। লিটনের আউটের মধ্য দিয়ে ভাঙে দ্বিতীয় উইকেটে ৪৯ রানের পার্টনারশিপ।

এরপর হাত খুলে খেলতে থাকেন শুক্কুর, মাত্র ৩০ বলে ব্যক্তিগত অর্ধশতক তুলে নেন এ বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। যেখানে ৬টি চারের সাথে ২টি ছক্কা হাঁকিয়েছেন তিনি। এর আগেই অবশ্য শোয়েব মালিকের উইকেট তুলে নেন রবি ফ্রাইলিঙ্ক। শান্তর হাতে ক্যাচ দেওয়ার আগে ১৩ বলে ৯ রান করেন মালিক।

মালিকের আউটের পর উৎসবে মাতোয়ারা পুরো স্টেডিয়াম। কারণ, তখন যে ব্যাট হাতে বাইশ গজের দিকে আসছেন গত ম্যাচের নায়ক আন্দ্রে রাসেল। তবে অধিনায়ককে রেখে সাজঘরের পথ ধরেন শুক্কুর। আমিরের দ্বিতীয় শিকার হয়েছেন ৩৫ বলে ৫২ রান করে।

পরে মোহাম্মদ নেওয়রাজকে নিয়ে দলের রান বাড়ানোর কাজ করেন রাসেল। তবে ৭ রানের মাথায় মিরাজ ক্যাচ ছেড়ে দিলে জীবন ফিরে পান তিনি। শেষদিকে রাসেলের ১৬ বলে ২৭ ও নেওয়াজের ২০ বলে ৪১ রানের ঝড়ো ইনিংসের কল্যাণে নির্ধারিত ওভার শেষে ১৭০ রানের সংগ্রহ পায় রাজশাহী রয়্যালস।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

রাজশাহী রয়্যালস: ১৭০/৪ (২০ ওভার)
শুক্কুর ৫২, নেওয়াজ ৪১*, রাসেল ২৭; আমির ২/৩৫, ফ্রাইলিঙ্ক ১/৩৩, শহিদুল ১/২৩।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন
Tweet 20
fb-share-icon20

Related Articles

খুলনাকে হারিয়ে বিপিএলের নতুন চ্যাম্পিয়ন রাজশাহী