SCORE

সর্বশেষ

‘রাস্তায় গেলে আমাকে মারও খেতে হতে পারে’

ত্রিদেশীয় সিরিজ ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে টাইগারদের চরম ব্যর্থতায় বাংলাদেশের দলের ক্রিকেটারদের পাশাপাশি টিম ম্যানেজমেন্ট ও নির্বাচকদের নিয়ে অনেক সমালোচনা হচ্ছে। সমালোচনার তীর বেশি যাচ্ছে টেকনিক্যাল ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজনের দিকে। অনেক বাজে মন্তব্যও শুনতে হয়েছে জাতীয় দলের সাবেক এই অধিনায়ককে। এইসব বিষয় নিয়ে আজ কথা বলেছেন খালেদ মাহমুদ সুজন।

সমালোচনার জবাব দিলেন সুজনত্রিদেশীয় সিরিজ ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বি-পাক্ষিক সিরিজে বাংলাদেশের কোনও কোচ ছিল না। তবে টেকনিক্যাল ডিরেক্টর হিসেবে ছিলেন খালেদ মাহমুদ সুজন। সিরিজ শুরুর আগে তিনি জানিয়েছিলেন, টেকনিক্যাল ডিরেক্টরের কাজটা কোচের মতোই। এদিকে বাংলাদেশের ব্যর্থতায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সুজনকে নিয়ে অনেক ব্যঙ্গ করা হচ্ছে। পাশাপাশি ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়াতেও হচ্ছে অনেক সমালোচনা। সুজনের দাবী এমন পরিবেশে কাজ করাটা অনেক কঠিন।

আজ সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হোন সুজন। সেখানে বলেন, ‘আমার পিছে যদি কেউ লেগে থাকে আমি ভালো করলেও কোনদিনও ভালো হবে না। আমি সুজন এতো কিছু করছি কোনও দিন শুনি নাই ভালো কিছু করছি। খারাপই করছ! সোশ্যাল মিডিয়ার কথা বলেন কিংবা মিডিয়া বলেন। আমি এটাও শুনেছি রাস্তায় গেলে আমাকে মারও খেতে হতে পারে। ক্রিকেট খেলার জন্য রাস্তায় গিয়ে মার খেতে হয় এটা খুবই অকওয়ার্ড একটা ব্যাপার।’

Also Read - মোসাদ্দেক ও আবাহনী প্রসঙ্গে সুজনের বক্তব্য

জাতীয় দলের পরাজয়ে এমন সমালোচনা কিংবা আক্রমণাত্মক কথা-বার্তায় কষ্ট পেয়েছেন সুজন। পাশাপাশি আর কাজ করতে আগ্রহী নন বলে জানিয়েছেন এই সাবেক অধিনায়ক, ‘বাংলাদেশ হেরে যাবার পরেও আমি এখনও এই দেশে টিকে আছি, এটাই বড় কথা! আমি সবসময় বাংলাদেশের ক্রিকেটের উন্নয়নে কাজ করেছি, এখানে আমার কোনও স্বার্থ নেই। ক্রিকেট বোর্ডে থাকাটাও আমার স্বার্থের ব্যাপার না! আমি সত্যি বলতে এখন কাজ করতে একদমই আগ্রহী নই।’

 

[আরও পড়ুনঃ মোসাদ্দেক ও আবাহনী প্রসঙ্গে সুজনের বক্তব্য]

 

 

Related Articles

ক্রিকেটের স্বার্থে জেলা লিগে মনোযোগ বিসিবির

এবার দলের সঙ্গে থাকছেন না সুজন

মানসিকভাবে পিছিয়ে বাংলাদেশ!

মুস্তাফিজকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

‘র‍্যাঙ্কিং নয়, সিরিজ জয় নিয়েই ভাবনা’