রিয়াদের অনুপ্রেরণাতেই শহিদুলের বাজিমাত

0
488

ঢাকা মেট্রোর পেসার শহিদুলের ইসলামের মূল কাজটা বল হাতে। কিন্তু জাতীয় ক্রিকেট লিগে (এনসিএল) শনিবার (১২ অক্টোবর) ব্যাট হাতে অসামান্য ইনিংস খেলেছেন তিনি। শহিদুল জানিয়েছেন, পঞ্চপাণ্ডবের একজন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের অনুপ্রেরণা তাকে এই দুর্দান্ত ইনিংস খেলতে সাহস জুগিয়েছে।

মধ্যাঞ্চলকে খেলায় ফেরালেন শহিদুল-মজিদ
শহিদুল ইসলাম। ফাইল ছবি

মিরপুরের শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আগে ব্যাটিং করে ২৯০ রান সংগ্রহ করেছিল চট্টগ্রাম বিভাগ। কিন্তু তৃতীয় উইকেটে ৯৪ ছাড়া বড় জুটিই হচ্ছিল না প্রতিপক্ষে ঢাকা মেট্রোর। টপ অর্ডারে সর্বোচ্চ ৫৫ রান করেন শামসুর রহমান। মিডল অর্ডারে একপ্রান্ত দাঁড়িয়ে সতীর্থদের আসা-যাওয়া দেখতে থাকা রিয়াদ আউট হন ৬৩ রান করে।

Advertisment

২০১ রানের মধ্যে ৭টি উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে ঢাকা মেট্রো। চট্টগ্রামকে পেরোতে হলে দরকার তখনো ৯০ রান। এরপরেই যেন রূপকথা বীজ বুনেন জাবিদ হোসেন ও পেসার শহিদুল ইসলাম। অষ্টম উইকেটে এই দুইজন গড়েন ১৫১ রানের জুটি। যেখানে শহিদুলের অবদানই ছিল ৮৩ রান। প্রায় ১৮৯ মিনিট (৩ ঘণ্টা ৯ মিনিট) ক্রিজে কাটান তিনি। খেলেছেন ১৪২টি বল। হাঁকিয়েছেন ৯টি চার ও ১টি ছক্কা।

দলীয় ৩৫২ রানে শহিদুল আউট হয়ে গেলে ভাঙে এই জুটি। পরের বলেই অলআউট হয়ে যায় দল। অপরাজিত ৮৩ রান নিয়ে মাঠ ছেড়ে জাবিদ। তিনি ব্যাটিং করেছেন প্রায় ৫ ঘণ্টা। তার ২১৪ বলের ইনিংসটিতে চারের সংখ্যা মাত্র ৪টি।

পেসার শহিদুলের হঠাৎ পুরোদস্তুর ব্যাটসম্যান হয়ে ওঠার পেছেন তিনি কৃতিত্ব দিলেন জাতীয় দলের আস্থাভাজন খেলোয়াড় রিয়াদকে। শহিদুল জানান, রিয়াদের অনুপ্রেরণাই তাকে এমন ইনিংস খেলতে উৎসাহ দিয়েছে। তিনি আরও বলেন, দলে বড় অবদান রেখে নিজের উপস্থিতির জানান দিতে বলেছিলেন রিয়াদ। সেটারই প্রতিফলন ঘটানোর চেষ্টা করেছেন শহিদুল।

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।