Score

রিয়াদের ভাবনায় আরব আমিরাতের গরম

এশিয়া কাপ-২০১৮ আসরে অংশ নিতে আজ (৯ সেপ্টেম্বর) দেশ ছেড়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। সংযুক্ত আরব আমিরাতের কন্ডিশনের সাথে মানিয়ে নিয়ে কতোটা ভালো করবে টাইগাররা? দেশ ছাড়ার আগে সেই বিষয়ে কথা বলেছেন দলের অভিজ্ঞ ক্রিকেটার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

বিমানবদরে পৌঁছানোর পর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

তৃতীয়বারের মতো সংযুক্ত আরব আমিরাতে হতে হচ্ছে এশিয়া কাপ। সর্বশেষ আসর বসেছিল ১৯৯৫ সালে। সংযুক্ত আরব আমিরাতে দলগতভাবে কোনও সফরে যায় নি বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। তবে জাতীয় দলের কয়েকজন ক্রিকেটার খেলেছেন দুবাই ও আবুধাবিতে। তাই, গরম নিয়ে ভাবনা থাকলেও খুব বেশি চিন্তিত নয় বাংলাদেশ।

দেশ ছাড়ার আগে কন্ডিশন প্রসঙ্গে রিয়াদ বলেন, ‘আরব আমিরাতের কন্ডিশন একটু কম বা বেশি আমাদের মতোই। কিন্তু গরমটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ হবে। কিন্তু আমরা পেশাদার ক্রিকেটার। আমাদের মানিয়ে নিতে হবে।’

Also Read - সিএনজি চালকের সাথে হাতাহাতিতে জড়িয়ে বিতর্কে শাহাদাত

পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) খেলার অভিজ্ঞতা আছে সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম,মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মুস্তাফিজুর রহমানের। এছাড়া টি-টেন লিগেও খেলেছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা।

পূর্বের খেলার অভিজ্ঞতার কথা জানিয়ে রিয়াদ বলেন, ‘তামিম খেলছে, সাকিব খেলেছে, মুশফিক খেলেছে। ওখানকার কন্ডিশন সম্পর্কে জানি। একটা নির্দিষ্ট দিনে আমরা কতটা ভালো ক্রিকেট খেলছি, সেটা গুরুত্বপূর্ণ। আমরা সেটা করার দিকেই মনোযোগী।’

উল্লেখ্য, আজ (রবিবার) সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় এমিরেটস এয়ারলাইন্সের এক যাত্রায় দুবাইয়ের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়েন বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। ৭৬ দিনের উইন্ডিজ সফর শেষে ৭ সেপ্টেম্বর রাতে দেশে ফেরা রিয়াদ মাত্র ১ দিনের বিরতি নিয়েই আজ দলের সাথে আরব-আমিরাতের পথে রওনা করেছেন। তবে যেতে পারেন নি দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবাল ও পেসার রুবেল হোসেন। ভিসা জটিলতায় আজ তাদের যাওয়া হয় নি। সেই তালিকায় আছেন এশিয়া কাপের জন্য নির্বাচিত বাংলাদেশ দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজনও। যার ফলে আপাতত বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ম্যানেজারের ভূমিকা দেওয়া হয়েছে দলটির ট্রেনার মারিও ভিল্লাভারায়নকে।

[আরও পড়ুনঃ দেশ ছাড়ল মাশরাফিরা, ম্যানেজারের ভূমিকায় ভিল্লাভারায়ন]

 

 

Related Articles

মেডিকেল রিপোর্টের উপরেই নির্ভর করছে সাকিবের এনওসি

এই মিরাজ অনেক আত্মবিশ্বাসী

মিঠুনের ‘মূল চরিত্রে’ আসার তাড়না

‘আঙুলটা আর কখনো পুরোপুরি ঠিক হবে না’

এক নয় মাশরাফির তিন ইনজুরি