র‍্যাঙ্কিংয়ে খাদিজা-রুমানার উত্থান

প্রমীলা এশিয়া কাপে শিরোপা জিতেছে বাংলাদেশ নারী দল। দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের সুবাদে র‍্যাঙ্কিংয়েও এগিয়েছে বাংলাদেশের মেয়েরা।

বোলিংয়ে এগিয়ে ১৩ নম্বর স্থানে উঠে এসেছেন খাদিজা তুল কুবরা। বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে সেরা অবস্থান তার। এ স্পিনারের রেটিং ৫৩৭। এ রেটিং তার ক্যারিয়ার সেরা। এশিয়া কাপে সাত উইকেট শিকার করেছেন এ স্পিনার।

এছাড়া উন্নতি হয়েছে লেগ স্পিনার রুমানা আহমেদের। শীর্ষ বিশে পা দিয়েছেন তিনি। ৫০৭ রেটিং নিয়ে বিশ নম্বরে আছেন এ লেগ স্পিনার। এশিয়া কাপে দশটি উইকেট পান রুমানা আহমেদ। এর মধ্যে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টির উইকেট হিসাব করলে তার উইকেট ছয়টি।

বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে আছেন অস্ট্রেলিয়ার মেগান স্কাট। ৬৬৯ রেটিং নিয়ে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছেন তিনি। দ্বিতীয় স্থান অক্ষুণ্ণ রেখেছেন কিউই বোলার লেই ক্যাসপারেক। তার রেটিং ৬৪০। উইন্ডিজ বোলার হ্যায়লি ম্যাথিউসকে টপকে তিন নম্বরে উন্নীত হয়েছেন ভারতের স্পিনার পুনম যাদব। তার রেটিং ৬১১। এক রেটিং কম নিয়ে পাঁচে ম্যাথিউস। ৫৮৯ রেটিং নিয়ে পাঁচে আছেন আনাম আমিন।

Also Read - দ্বিগুণেরও বেশি বাড়ল রাজ্জাকদের বেতন

অলরাউন্ডারদের র‍্যাঙ্কিংয়েও উত্থান ঘটেছে রুমানার। এক লাফে ছয় ধাপ এগিয়েছেন তিনি। ভারতের বিপক্ষে দুই জয়ের নেপথ্যে ছিল তার অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্স। ১৯৯ রেটিং নিয়ে ১২ নম্বর স্থানে আছেন তিনি। অলরাউন্ডারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে সবার আগে আছেন সালমা খাতুন। তার রেটিং ২০৮। বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক আছেন একাদশ স্থানে।

অলরাউন্ডার র‍্যাঙ্কিংয়ে আধিপত্য উইন্ডিজদের। প্রথম তিনজনই ক্যারিবিয়ান। শীর্ষে আছেন হ্যায়লি ম্যাথিউস। তার রেটিং ৩১১। ২৮৯ রেটিং নিয়ে দিয়ান্দ্রা ডটিন দুইয়ে এবং ২৮৫ রেটিং নিয়ে স্টেফানি টেইলর তিনে আছেন। চার ও পাঁচ নম্বরে রয়েছেন যথাক্রমে দক্ষিণ আফ্রিকার ডেন ভন নিকার্ক (২৭০) ও অস্ট্রেলিয়ার এলিস পেরি (২৬২)।

ব্যাটারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে সেরা বিশে নেই বাংলাদেশের কেউ। ৬৭৬ রেটিং নিয়ে শীর্ষে আছেন স্টেফানি টেইলর। নিউজিল্যান্ডের সুজি বেটস (৬৭০) দুইয়ে অবস্থান করছেন। তার চেয়ে ২৪ রেটিং পিছিয়ে থাকা অজি ব্যাটার মেগ ল্যানিং (৬৪৬) আছেন তিনে। চারে রয়েছেন তার স্বদেশি বেথ মুনি (৬৩১)। ৬১৭ রেটিং নিয়ে পাঁচে আছেন দিয়ান্দ্রা ডটিন।


আরো পড়ুন ঃ জাহানারাকে তাড়া করছিল ইনচনের দুঃস্বপ্ন


 

Related Articles

উইমেনস গ্লোবাল ডেভেলপমেন্ট স্কোয়াডে তিন বাংলাদেশি