ভালো করতে লম্বা সময়ের জন্য অধিনায়কত্ব চান তামিম

0
876

বাংলাদেশের ওয়ানডে দলের অধিনায়কত্ব পাওয়ার পরে প্রথমবারের মতো আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে এসেছিলেন তামিম ইকবাল। অধিনায়কত্ব করার ব্যাপারে নিজের পরিকল্পনা ও ইচ্ছা-অনিচ্ছা নিয়ে কথা বলেছেন সাবলীলভাবেই। ভালো ফলাফল করতে তার সময়ের প্রয়োজন বলেও জানিয়েছেন তামিম।

Advertisment

২০১৪ সালে মাশরাফি বিন মুর্তজা দায়িত্ব নেয়ার পরে বেশ বদলে যায় বাংলাদেশ ওয়ানডে দল। ধীরে ধীরে আসতে শুরু করে সাফল্য। ২০১৫ সালে নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সফল মৌসুম কাটায় বাংলাদেশ। দলের মধ্যে তখন একটা বিশ্বাস জন্মেছিল। এখনকার দলে বেশ কয়েকজন তরুণ ক্রিকেটার আছেন তাদের মধ্যেও ওই বিশ্বাসটা আনতে বড় দলের বিপক্ষে ম্যাচ জেতায় নজর দিচ্ছেন তামিম। দলে পার্থক্য আনতে প্রয়োজন লম্বা সময়ের দায়িত্ব সেটাও জানিয়েছেন।

তামিম বলেন, ‘অধিনায়কত্ব বোর্ডসহ মিলিত একটা সিদ্ধান্ত। আমরা এখন এমন একটা অবস্থানে, অধিনায়ক হিসেবে এক-দুই সিরিজে দায়িত্ব পালন করা খুব কঠিন। আমি চাচ্ছিলাম লম্বা সময়ের জন্য। তাহলে দলে পার্থক্য আনা যায়। ২০১৫ সালে পাকিস্তানকে হারানোর পর আমাদের মধ্যে বিশ্বাস জন্মায়- আমরা বড় দলকে হারাতে পারি। এখনকার স্কোয়াডে অনেক তরুণ খেলোয়াড় আছে। আমরা ভালো করতে পারি- এজন্য ওয়ানডে দলের একটি বড় ম্যাচ জেতা প্রয়োজন।’

জাতীয় দলের হয়ে মাশরাফির অবর্তমানে গত বছর বিশ্বকাপের পরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে অধিনায়কত্ব করেছিলেন তামিম। তার আগে মুশফিকুর রহিমের অবর্তমানে একটি টেস্ট ম্যাচে অধিনায়কত্ব করেছিলেন তিনি। এছাড়া সহ-অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেছেন বেশ কয়েকবার। তবে স্থায়ী অধিনায়ক হিসাবে প্রথমবারের মতো দায়িত্ব পেয়ে এই জগতে নিজের অনভিজ্ঞতার কথা অকপটেই স্বীকার করেছেন তামিম। আর সেইজন্যই তার সময়ের প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন।

তামিমের ভাষায়, ‘সত্যি বলতে আমি অভিজ্ঞ অধিনায়ক না। এজন্য আমাকে সময় দিতে হবে। অধিনায়কত্ব নিলে পারফরম্যান্স খারাপ হয়ে যায়- এটা খুবই সাধারণ একটি কথা। আমি নিজেও জানি না আজ থেকে ছয় মাস বা এক বছর পর কেমন থাকবে পারফরম্যান্স। আমার ন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল সময় পাওয়া। আপনাদের, দর্শকদের ধৈর্য থাকতে হবে। দলের ভালো জন্য যা করতে হয় আমি করব। সফল হব কি হব না, জানি না। তবে চেষ্টা করব সব ঠিকঠাক করার। কোনোকিছুই এক সিরিজ, পাঁচ ম্যাচ-ছয় ম্যাচ দেখা যাচাই করা কঠিন।’

তার পরিকল্পনার অংশ হিসাবে আরও বলেন, ‘আমি যদি বলি শীর্ষ তিনে দলকে রাখতে চাই- এগুলো লম্বা প্রক্রিয়া; বলার জন্য বলতে চাই… এমুহূর্তে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল ছোটখাটো বিষয় ঠিক করা। ট্রেনিং কীভাবে ভালো করতে পারি আরও, কীভাবে দল হিসেবে আরও কত ভালো খেলতে পারি। অন্যজনের জন্য কীভাবে অবদান রাখতে পারি, তার সাহায্যে আমি ভালো করতে পারি বা আমার সাহায্যে সে। এটা কেবল শুরু, ধাপে ধাপে আগাতে হবে।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।