Scores

লিটনের ঝড়ো সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশের রান পাহাড়

সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে প্রথম ওয়ানডেতে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন লিটন কুমার দাস। লিটনের সেঞ্চুরির পাশাপাশি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মোহাম্মদ মিঠুনের ব্যাটিংয়ের তিনশ পার হয়েছে বাংলাদেশের।

দীর্ঘ সময় ওয়ানডে খেলতে নেমে টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরফি মুর্তজা। টস জিতে ব্যাটিং নিয়ে শুরুটা ভালোই করেন দুই ওপেনার লিটন ও তামিম। ম্যাচের আগে নাইম ও আফিফের অভিষেকের গুঞ্জন থাকলেও তাদের ছাড়াই মাঠে নামে বাংলাদেশ। ইনিংসের শুরু থেকেই মন্থর ব্যাটিং করেন তামিম। অন্যদিকে তামিম মন্থর ব্যাটিং করলেও দলের রানের চাকা সচল রাখেন লিটন।

Also Read - জিম্বাবুয়ের 'বদলি খেলোয়াড়' ব্যাটিং কোচ!


জিম্বাবুয়ে বোলারদের বিপক্ষে আগ্রাসী ব্যাটিংই করেন লিটন। উদ্বোধনী জুটি থেকে আসে ৬০ রান। ৪৩ বলে ২৪ রান করে মাধভেরের বলে এলবিডব্লুর শিকার হন তামিম। রিভিউ নিয়েও শেষ পর্যন্ত রক্ষা হয়নি তার। তামিম আউট হলে লিটনের সঙ্গে রানের চাকা সচল করেন শান্ত। সিঙ্গেল, ডাবল নিয়ে স্ট্রাইক রেট ঠিক রাখেন দুই ব্যাটসম্যানই। তামিমের বিদায়ের পর ফিফটির দেখা পান লিটন। মাত্র ৪৫ বলে ফিফটি তুলে নেন লিটন।

এ দুই জনের জুটি ভাঙে দলীয় ১৪০ রানে। মুতুম্বোদজির বলে এলবিডব্লুর শিকার হন শান্ত। ২৯ করে সাজঘরে ফিরেন তিনি। তামিম রিভিউ নষ্ট করে না গেলে হয়ত বেচে যেতে পারতেন শান্ত। অবশ্য লিটন তার নিজ গতিতেই রান তুলতে থাকেন। তার সঙ্গ দেন মুশফিক। ৩৩.১ বলে তিরিপানোকে চার মেরে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় শতক তুলে নেন লিটন। সেঞ্চুরি পেতে খেলেন ৯৫ বল।

উইকেটে থিতু হয়েও টিকতে পারেননি মুশফিক। ওই ওভারেই কিপারের হাতে ক্যাচ তুলে দেন মুশফিক (১৯)। সেঞ্চুরি হাঁকানোর পর আরও আগ্রাসী ব্যাট করেন লিটন। তার ব্যাটিং দেখে একটা সময় বড় ইনিংসের আশ্বাস দিলেও লিটনকে থামতে হয় ৩৬তম ওভারে। ওই ওভারের দ্বিতীয় বলে মাধভেরেকে দারুণ এক ছয় মেরে মাংস-পেশিতে টান লাগে লিটনের। পরে আর ক্রিজে থাকতে পারেননি তিনি। সঙ্গে সঙ্গেই মাঠ ছাড়েন তিনি।

মিঠুন ও মাহমুদউল্লাহ মিলে গড়েন বড় জুটি। আগ্রাসী ব্যাটিং করেই দুই ব্যাটসম্যানই। ৩২ রান করে এমপোফুর বলে এলবিডব্লুর শিকার হন মাহমুদউল্লাহ। তিনি আউট হলেও ফিফটি তুলে নেন মিঠুন। অবশ্য ফিফটির পরই এমফফুর বলে ক্রস ব্যাট চালাতে গিয়ে এলবিডব্লুর শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরতে হয় তাকে।

শেষদিকে সাইফউদ্দিনের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে নির্ধারিত ৫০ ওভারে রান ৩২১ করে বাংলাদেশ। ২৮ রান করে অপরাজিত থাকেন সাইফউদ্দিন। জিম্বাবুয়ের হয়ে সর্বোচ্চ দুইটি উইকেট লাভ করেন এমপোফু।

Related Articles

শ্রীলঙ্কা সিরিজ সম্প্রচার দুই চ্যানেলে, প্রোডাকশনে রিয়েল ইমপ্যাক্ট

কোয়ারেন্টিন থেকে ‘মুক্তি’ পেলেন সাকিব-মুস্তাফিজ

‘১৬১ কোটি’ টাকায় বিসিবির সম্প্রচার স্বত্ব কিনল ব্যানটেক

বিসিবির সম্প্রচার স্বত্ব কিনল বাংলাদেশি এজেন্সি

আমার স্বপ্ন অনেক বড় : তাসকিন