লিটনের দুর্দান্ত শতক ও আফিফ ঝড়ে বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জিং স্কোর

0
690

লিটন দাস সর্বশেষ শতকের দেখা পেয়েছিলেন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। দেশের হয়ে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোর গড়া সেই শতকের পর একদিনের ক্রিকেটে চলছিল রান খরা। ডানহাতি ওপেনার সেই খরা দূর করলেন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই।

লিটনের প্রতিরোধ গড়া শতকে বাংলাদেশের লড়াকু সংগ্রহ

Advertisment

হারারেতে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২৭৬ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ দাঁড় করেছে সফরকারী বাংলাদেশ। বাংলাদেশের হয়ে দুর্দান্ত শতক হাঁকিয়েছেন লিটন।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে স্কোরবোর্ডে কোনো রান জড়ো করার আগেই অধিনায়ক তামিম ইকবালকে হারিয়ে ফেলে বাংলাদেশ। এর আগে প্রথম দুই ওভারে কোনো রান দেয়নি জিম্বাবুয়ে। চাপ সামলাতে নেমে সফল হতে পারেননি সাকিব আল হাসানও। ২৫ বলে ১৯ রান করে তিনিও ব্লেসিং মুজারাবানির শিকারে পরিণত হন।

এরপর মোহাম্মদ মিঠুন দিচ্ছিলেন বড় ইনিংসের আভাস। তবে ৪টি চার হাঁকিয়ে ১৯ বলে ১৯ রান করে তিনিও ফেরেন সাজঘরে। মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত (১৫ বলে ৫ রান) সর্বশেষ ওয়ানডের ধারা বজায় রাখতে পারেননি। এরপর লিটনের সাথে দলের বিপর্যয় সামাল দেন অভিজ্ঞ মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

লিটনের দুর্দান্ত শতক ও আফিফ ঝড়ে বাংলাদেশের লড়াকু সংগ্রহ

পঞ্চম উইকেটে লিটন ও রিয়াদ গড়েন ৯৩ রানের পার্টনারশিপ। একটি বাউন্ডারি (ছক্কা) হাঁকানো রিয়াদ ৫২ বলে ৩৩ রান করে আউট হলেও লিটন তুলে নেন ক্যারিয়ারের চতুর্থ শতক। যদিও শতকের পর সাজঘরের পথ ধরতে হয় তাকেও। তার আগে ৮টি চার হাঁকিয়ে ১১৪ বলে ১০২ রান করেন তিনি।

সপ্তম উইকেটে দেখেশুনের রানের চাকা এগিয়ে নেন আফিফ হোসেন ধ্রুব ও মেহেদী হাসান মিরাজ। ৫৮ রানের জুটি ভাঙার  সময় লুক জংওয়ে শিকার হয়ে পরপর দুই বলে বিদায় নিতে হয় দুইজনকেই। ১টি চার ও ২টি ছক্কা হাঁকানো আফিফ অল্পের জন্য পাননি অর্ধশতকের দেখা; ৩৫ বলে তিনি করেন ৪৫ রান। আফিফের আগে মিরাজ বলের সাথে পাল্লা দিয়ে রান করে ফেরেন সাজঘরে। একটি করে চার-ছক্কা হাঁকিয়ে তার ব্যাট থেকে আসে ২৬ রান, ২৫ বলের মোকাবেলায়।

বদলি হিসেবে ফিল্ডিংয়ে নামা উইকেটরক্ষক ওয়েলিংটন মাসাকাদজার দুর্দান্ত প্রচেষ্টায় রানআউট হতে হয় তাসকিনকে। মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ৬ বলে ৮ রান করে অপরাজিত থাকেন। শেষপর্যন্ত নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৯ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় ২৭৬ রান।

জিম্বাবুয়ের পক্ষে লুক জংওয়ে তিনটি এবং ব্লেসিং মুজারাবানি ও রিচার্ড এনগারাভা দুটি করে উইকেট শিকার করেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

টস : জিম্বাবুয়ে

বাংলাদেশ : ২৭৬/৯ (৫০ ওভার)
লিটন ১০২, আফিফ ৪৫, রিয়াদ ৩৩, মিরাজ ২৬
জংওয়ে ৫১/৩, মুজারাবানি ৪৭/২, এনগারাভা ৬১/২

জয়ের জন্য জিম্বাবুয়ের প্রয়োজন ২৭৭ রান।

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।