লড়াই করে হারলো বাংলাদেশ

0
1072

টেস্টের পঞ্চম দিন লক্ষ্য ৩৫৬ রান এবং হাতে ছিল ৭ উইকেট। ভারতের মাটিতে শেষ দিনে ৯০ ওভার ব্যাটিং করাটাও বেশ কঠিন। অবশেষে যা হবার তাই হলো। মাত্র দুই সেশনেই ভারতীয় বোলারদের দাপটে অলআউট হয়ে গেল বাংলাদেশ। ভারত পেলো ২০৮ রানের জয়। ২৫০ রান করতে বাংলাদেশ খেলেছে ১০০.৩ ওভার। এই নিয়ে ঘরের মাঠে টানা ৬টি সিরিজি জিতলো বিরাট কোহলির অধীনে খেলা ভারতীয় দল। আর ভারতের মাটিতে প্রথমবারের মত টেস্ট খেলতে গিয়ে লড়াই করেই হার বরণ করে নিতে হলো মুশফিকবাহিনীকে। অথচ খেলার ফলাফলটা অন্য রকমও হতে পারতো।

Advertisment

পঞ্চম দিনের শুরুতেই রবীন্দ্র জাদেজার অসাধারণ এক বলে শর্ট লেগে ক্যাচ দিয়ে ২২ রান করে ফিরে যান আগের ইনিংসের হাফ সেঞ্চুরিয়ান সাকিব আল হাসান। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সঙ্গে ৫০ রানের জুটি গড়লেও অশ্বিনকে ডাউন দ্য উইকেটে মারতে গিয়ে মিড অফে জাদেজার কাছে ক্যাচ দেন মুশফিক। ব্যক্তিগত ২৩ রান করে মুশফিকের এমন আত্মহুতি দলের জন্য বড় বিপর্যয় বয়ে নিয়ে আসে।

এক প্রান্ত আগলে রেখে নিজের ক্যারিয়ারের ১৩তম হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। রানখরা থেকে অবশেষে এদিন তার মুক্তি মেলে। সাব্বির ভালো শুরু করলেও ইশান্ত শর্মার বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ে তিনিও আউট হয়ে যান ২২ রানে।  সাব্বিরের আউটের পর রিয়াদও বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। ১৪৯ বলে দলীয় সর্বোচ্চ ৬৪ রান করে ইশান্ত শর্মার বলে ফাইন লেগে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি।

শেষের দিকে মিরাজ এবং কামরুল ইসলাম রাব্বি কিছুটা প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করলেও চা বিরতির আগে বাংলাদেশের ইনিংস শেষ হয়ে যায় ২৫০ রানেই। মিরাজ ২৬ রান করে জাদেজার বলে আউট হন। অন্যদিকে টেস্ট উপযোগী ৭০ বলে ৩ রান করে অপরাজিত থাকেন কামরুল ইসলাম রাব্বি। উল্লেখ্য ভারত প্রথম ইনিংসে ৬ উইকেট ৬৮৭ এবং দ্বিতীয় ইনিংসে ৪ উইকেটে ১৫৯ রান করে ইনিংস ঘোষণা করে। বাংলাদেশ তাদের প্রথম ইনিংসে করে ৩৮৮ রান।

আরো পড়ুনঃ মুমিনুলের উইকেট বড় ধাক্কা বাংলাদেশের জন্য

রুশাদ রাসেল, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম