শক্ত অবস্থায় জিম্বাবুয়ে

হারারেতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্টে ব্যাট হাতে ধৈর্য্য আর দৃঢ়তার পরিচয় দেয়ার পর বল হাতেও দারুণ সূচনা করেছে স্বাগতিক জিম্বাবুয়ে। প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিনশেষে স্বাগতিকরা আছে সুবিধাজনক অবস্থায়।

শক্ত অবস্থায় জিম্বাবুয়ে
প্রথম দিন ৮৪ ওভারে ২ উইকেটে ১৮৯ রান তুলেছিল জিম্বাবুয়ে। দ্বিতীয় দিন সকালে ব্রেন্ডন টেলরের উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে। সুরাঙ্গা লাকমলের বলে এলবিডব্লিউ হন টেলর (৪৭ বলে ২১ রান)। এরপর ক্রেইগ আরভিন ও শন উইলিয়ামস মিলে যোগ করেন ৩৯ রান। সেই জুটি ভাঙেন লাসিথ এম্বালদেনিয়া। তার বলে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ দেন উইলিয়ামস। ৪৬ বলে ১৮ রান করেন তিনি। পরের ওভারে এরভাইনকে বোল্ড করেন লাকমল। ৮৫ রানের ইনিংস খেলে ফিরেন আরভিন।

Advertisment

চাপে পড়া জিম্বাবুয়ের হয়ে প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেছিলেন রেজিস চাকাভা ও সিকান্দার রাজা। কিন্ত চাকভা (৮ রান) এম্বালদেনিয়ার বলে ফিরে গেলে ২১ রানের জুটিটি ভেঙে যায়। ডোনাল্ড টিরিপানোকে সাথে নিয়ে ৪১ রান যোগ করেন রাজা। এ জুটিতে ভর করে তিনশ’ রান পার করে জিম্বাবুয়ে। এম্বালদেনিয়ার বলে স্টাম্পিং হন রাজা। ৪১ রান করেন তিনি। নিজের পরের ওভারে এসে তুলে নেন কাইল জারভিসের উইকেট।

এক প্রান্ত আগলে রাখেন তিরিপানো। নবম উইকেট জুটিতে এইস্লে এন্ডলোভুর সাথে ১৮ এবং শেষ উইকেটে ভিক্টর নিয়াউচির সাথে ৩০ রান তুলেন তিরিপানো। ৩৫৮ রানে অলআউট হয় জিম্বাবুয়ে। ১০৩ বল মোকাবেলা করে ৪৪ রান করে তিরিপানো ছিলেন অপরাজিত।

শ্রীলঙ্কার হয়ে বাঁহাতি স্পিনার লাসিথ এম্বালদেনিয়া শিকার করেন পাঁচ উইকেট। তিনটি উইকেট নেন সুরাঙ্গা লাকমল। বাকি দুই উইকেট লাহিরু কুমারার।

জবাব দিতে নেমে ওশাদা ফার্নান্দো ও অধিনায়ক দিমুথ করুনারাত্নের ওপেনিং জুটিকে বড় হতে দেননি ডোনাল্ড তিরিপানো। এ ডানহাতি পেসারের বলে বোল্ড হন ওশাদা ফার্নান্দো। ২১ রান করেন তিনি। ৩২ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর অধিনায়কের সাথে হাল ধরেছেন কুশল মেন্ডিস। দ্বিতীয় দিনশেষে ৩১৬ রানে এগিয়ে স্বাগতিকরা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর : 
জিম্বাবুয়ে ৩৫৮/১০, ১৪৮ ওভার, প্রথম ইনিংস

আরভিন ৮৫, কাসুজা ৬৩, প্রিন্স ৫৫
এম্বালদেনিয়া ৫/১১৪, লাকমল ৩/৫৩,  কুমারা ২/৮২

শ্রীলঙ্কা ৪২/১, ১৪ ওভার, প্রথম ইনিংস
ফার্নান্দো ২১, করুনারাত্নে ১২*, মেন্ডিস ৬*
তিরিপানো ১/৫