Scores

শচিন, গেইল, বেকহামদের সাথে এক কাতারে মুস্তাফিজ: সাসেক্স সিইও

এ মৌসুমে আর সাসেক্সের জার্সি গায়ে দেখা যাবে না মুস্তাফিজুর রহমানকে। ইনজুরির ছোবলে দুই ম্যাচেই ইতি ঘটেছে মুস্তাফিজের কাউন্টি মিশন। কিন্তু তারপরও সাসেক্সের পক্ষ থেকে মুস্তাফিজ-বন্দনা যেন থামছেই না। এতদিন নানাভাবে তারা বিশেষায়িত করে এসেছে মুস্তাফিজকে। তবে এবার মুস্তাফিজকে সবচেয়ে বড় স্বীকৃতি দিলেন সাসেক্সের প্রধান নির্বাহী জ্যাক টোমাজি।

image

দেশ ও দেশের বাইরে মুস্তাফিজের জনপ্রিয়তা এখন আকাশচুম্বী। বিশ্ব ক্রিকেটে চলছে মুস্তাফিজের আধিপত্য। মাত্র বছর দেড়েকের পথ চলায়ই তিনি এখন বিরাট কোহলি, এবি ডি ভিলিয়ার্সদের মত ক্রিকেটের অন্যতম বড় সুপারস্টার। কিন্তু টোমাজি মুস্তাফিজের তুমুল জনপ্রিয়তায় এতটাই মুগ্ধ যে শুধু বর্তমানের গন্ডিতেই সীমাবদ্ধ রাখতে চাইলেন না সেটিকে। বরং ক্রীড়া দুনিয়ার সর্বকালের সেরাদের সাথে একই পাল্লায় মাপতে চাইলেন সাতক্ষীরার বিস্ময়বালককে।

Also Read - প্রতিশোধের লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামছে সাকিবের জ্যামাইকা


“মুস্তাফিজের শক্তি অবিশ্বাস্য। সে এমন একজন মানুষ যে ডেভিড বেকহামের মত। সে এমন একজন যে কিনা শচিন টেন্ডুলকার, ক্রিস গেইলদের মত। সে আসলেই ওই উচ্চতার দাবিদার। এবং অবশ্যই সে একজন বাংলাদেশী, এবং একজন সত্যিকারের সুপারস্টার।”

তবে যে ইনজুরির কারণে মুস্তাফিজকে এখন মাস ছয়েকের মত মাঠের বাইরে থাকতে হবে, সেটি নিয়ে কিছু বলতে চাইলেন না টোমাজি। “আমি তার শারীরিক বিষয় নিয়ে কোন মন্তব্য করব না। কারণ এটা তার ব্যক্তিগত ব্যাপার। এটা নিয়ে সে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সাথে আলোচনা করছে। তারাই (বিসিবি) বুঝবে কোনটা মুস্তাফিজের জন্য ভাল হবে।

তবে দরকারে সবসময় মুস্তাফিজের পাশে থাকতেও রাজি সাসেক্স। “আমরা মুস্তাফিজের চিকিৎসার জন্য সবকিছু করতে প্রস্তুত। মুস্তাফিজ এখন আমাদের এখানে আছে। বিসিবি যদি আমাদেরকে কিছু করতে বলে তবে আমরা তা অবশ্যই করব। বিসিবির লোকেরা দারুণ, তারা আসলেই অসাধারণ।”

সাসেক্সের সিইও আরও দাবি করেন, মুস্তাফিজের প্রতিভা সম্পর্কে তারা আইপিএলেরও অনেক আগে থেকেই জানতেন, এবং সেজন্যই তাকে দলে ভেড়াতে কোন দ্বিধা করেন নি। “আমাদের কোচেরা প্রথম তাকে চিহ্নিত করেন। আমি যদি বলি আমি তাকে খুঁজে বের করেছি তা মিথ্যা হবে। কারণ আমি পেশাদার ক্রিকেটার ছিলাম না। আমাদের কোচিং স্টাফরা অন্যান্য কোচের সহযোগিতায় এবং আইসিসির ওয়েবসাইটে তার পরিসংখ্যান দেখে তাকে খুঁজে বের করেছে। তারা বেশ কিছু বোলারকে পর্যবেক্ষণ করার পর আমাকে জানায় যে এই ছেলেটা (মুস্তাফিজ) স্পেশাল, তাই আইপিএলের আগেই আমরা তাকে দলে নেই।”

সামনের মৌসুমেও মুস্তাফিজকে দলে পেতে চায় সাসেক্স। আগামী বছর আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফি খেলতে ইংল্যান্ড যাবে বাংলাদেশ দল। সাসেক্সের বর্তমান মাস্টারপ্ল্যান হল, চ্যাম্পিয়নস ট্রফির পরই তারা মুস্তাফিজকে তাদের হয়ে ঘরোয়া টি২০ চ্যাম্পিয়নশিপে খেলাতে চায়।

– জান্নাতুল নাঈম পিয়াল, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটিম ডট কম

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

বৃষ্টির কারণে ওয়ার্কআউটের সুযোগ হচ্ছে না মুস্তাফিজের

টেস্ট খেলতে চাই না, ব্যাপারটা এমন নয়: মুস্তাফিজ

রশিদের মতো ‘বিপ্লব’ ঘটিয়েছেন মুস্তাফিজ!

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সে আকাশচুম্বী মূল্যায়ন পেতেন মুস্তাফিজ

সুজনের পরামর্শেই বাংলাদেশ দলে মুস্তাফিজ