Scores

শচীনের থেকে লারাকে এগিয়ে রাখেন রফিক

ক্রিকেট বিশ্বের দুই খ্যাতনামা ব্যাটসম্যান ব্রায়ান লারা ও শচীন টেন্ডুলকার। সমসাময়িক সময়ে খেলা এই দুই ক্রিকেটারের মধ্যে তো বটেই বিশ্ব ক্রিকেটের কিংবদন্তি কে এই প্রশ্ন শুনলে লারার কথায় প্রথমে মাথায় আসে মোহাম্মদ রফিকের। বাংলাদেশের কিংবদন্তি ক্রিকেটার কে এই প্রশ্নের জবাবে রফিক তার নিজের নামই বলেছেন।

মোহাম্মদ রফিক বিডিক্রিকটাইম

বাংলাদেশ ক্রিকেটের শুরুর দিকে একজন তারকা ক্রিকেটারের নাম খুঁজলে রফিকের নাম প্রথমেই থাকবে। প্রতিভার পূর্ণ মূল্যায়ন ও সুযোগ সুবিধা তিনি পাননি বলেই আফসোস করা হয়। সাবেক এই অলরাউন্ডার বিডিক্রিকটাইমের  মুখোমুখি হয়েছিলেন। আলাপচারিতায় তাকে জিজ্ঞেস করা হয় বাংলাদেশ ক্রিকেটের কিংবদন্তি কে? রফিক উত্তর দেন, ‘আমি নিজেই’।

Also Read - সাকিব-রাজ্জাকদের ভবিষ্যৎ ভেবেই অবসর নেন রফিক


দেশের বাইরের কিংবদন্তি কে এই প্রশ্নের উত্তরে তিনি লারার নাম বলেন। তবে শচীনের সাথে তার পার্থক্য কোথায় সেটাও জানান রফিক। ওয়েস্ট ইন্ডিজের লারাকে বলা হয় ক্রিকেটের বরপুত্র। ভারতের শচীনও পরিচিত লিটল মাস্টার হিসাবে। ব্যাট হাতে দুই জনই ছিলেন সাবলীল। তাদের ব্যাটিং করা দেখতে মনে হতো যেন পৃথিবীর সবচেয়ে সহজ কাজ বুঝি ব্যাটিং করা।

এই দুই ক্রিকেটারকে যেভাবে দেখেছেন রফিক তা বলেন বিডিক্রিকটাইমকে,

‘দেশের বাইরে আমি মনে করি লারা একজন কিংবদন্তি। লারা এরকম একজন খেলোয়াড় যে যেকোন সময় যেকোন কিছু করতে পারে ম্যাচে। আমি শচীনকেও পছন্দ করি। আমি শচীনের সাথে অনেক ম্যাচ খেলেছি। দেখা গিয়েছে, শচীন ১০০ করেছে ঠিকই কিন্তু দল হেরেছে। কিন্তু লারা যদি চিন্তা করে আমি প্রতিটা বলে ছয় হাঁকাব তা তিনি পারবেন কিন্তু শচীন সেটা পারবে না।’

মোহাম্মদ রফিকের সাক্ষাৎকারটি দেখুন এখানে-

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

হোল্ডারের বোলিং তোপে গুড়িয়ে গেল ইংলিশরা

ইংল্যান্ডের ওয়ানডে স্কোয়াড ঘোষণা, নেই স্টোকস-বাটলার

অবসরে যাচ্ছেন না ধোনি, করছেন কঠোর পরিশ্রম

এশিয়া কাপের ভাগ্য চূড়ান্ত করল এসিসি

পাকিস্তানের জার্সিতে আফ্রিদির ফাউন্ডেশনের লোগো