শহিদুলের প্রথম শতক, রাজশাহীকে জয় দেখাচ্ছেন জুনায়েদ

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের টায়ার-২ এর প্রথম রাউন্ডের খেলায় পেন্ডুলামের মত দুলছে চট্টগ্রাম বিভাগ ও রাজশাহী বিভাগের মধ্যকার ম্যাচ। প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়লেও জুনায়েদ সিদ্দিকীর প্রচেষ্টায় জয়ের সুবাস পাচ্ছে রাজশাহী।

শহিদুলের প্রথম শতক, রাজশাহীকে জয় দেখাচ্ছেন জুনায়েদ

Advertisment

১৭৮ রানের লিড নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু করা চট্টগ্রাম অলআউট হয় ১৪৭ রানে। ইরফান শুক্কুরের ৬৫ আর মাহমুদুল হাসান জয়ের ৩৯ রান ছাড়া বলার মত সংগ্রহ পাননি কেউ। রাজশাহীর পক্ষে তিনটি করে উইকেট শিকার করেন ফরহাদ রেজা, তাইজুল ইসলাম ও তৌহিদ হৃদয়।

২৮৩ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে রাজশাহী ৫ উইকেট হারিয়ে জড়ো করেছে ১৪৭ রান। জয়ের জন্য এখনো আরও ১৩৬ রান প্রয়োজন দলটির। তানজিদ হাসান তামিম, জহুরুল ইসলামরা ইনিংস বড় করতে না পারলেও জুনায়েদ সিদ্দিকীর ৫১ রানের অপরাজিত ইনিংস আশা দেখাচ্ছে দলটিকে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (তৃতীয় দিন শেষে)

চট্টগ্রাম ১ম ইনিংস ২৮৭/১০ (দিপু ১০৮, ইয়াসির ৬৩, রানা ৫৫; ফরহাদ ৪৪/৪, পায়েল ৬১/২)
রাজশাহী ১ম ইনিংস ১৫২/১০ (ফরহাদ রেজা ২৭* সাব্বির ২৪, ফরহাদ হোসেন ২৪; নোমান ৪৭/৪, রানা ২২/৩)
চট্টগ্রাম ২য় ইনিংস ১৪৭/১০ (শুক্কুর ৬৫, জয় ৩৯; হৃদয় ১৯/৩, ফরহাদ ৩৭/৩, তাইজুল ৪৮/৩)
রাজশাহী ২য় ইনিংস ১৪৭/৫ (জুনায়েদ ৫১*, তানজিদ ২৮; ইরফান ৩৫/২, ইয়াসির ১৫/১)
জয়ের জন্য রাজশাহী বিভাগের প্রয়োজন ১৩৬ রান।

টায়ার-২ এর অন্য ম্যাচে ৫ রানের লিড পেয়েছেন বরিশাল বিভাগ। যদিও দলটি আছে হারের শঙ্কায়। ৭ উইকেটে ৩২৪ রান নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু করা ঢাকা মেট্রোর ইনিংস থামে ৪১৩ রানে। মার্শাল আইয়ুবের পর দলের পক্ষে শতক হাঁকান শহিদুল ইসলাম। এর আগে চারটি অর্ধশতক পেলেও কখনও শতক পাওয়া হয়নি তার। ১৫০ বলে খেলেন ১০৬ রানের ঝলমলে ইনিংস।

তার ব্যাটে ভর করে ঢাকা মেট্রো পায় ১৭২ রানের লিড। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৭৭ রান জড়ো করতেই ৭ উইকেট হারিয়ে ফেলেছে বরিশাল। মইনুল ইসলাম ৬৩ রান করলেও আর কেউ নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি। ঢাকা মেট্রোর পক্ষে শহিদুল ও আবু হায়দার রনি দুটি করে উইকেট শিকার করেছেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (তৃতীয় দিন শেষে)

বরিশাল ১ম ইনিংস ২৪১/১০ (আশরাফুল ৪৮, সায়েম ৪৬, গাজী ৪৫; রনি ৩৪/৩, রকিবুল ৭৬/৩)
ঢাকা মেট্রো ১ম ইনিংস ৪১৩/১০ (মার্শাল ১১২,  শহিদুল ১০৬, জাহিদুজ্জামান ৬০; গাজী ৭৭/২, মনির ৮০/২)
বরিশাল ২য় ইনিংস ১৭৭/৭ (মইনুল ৬৩, সালমান ৪৪; শহিদুল ৩৪/২, রনি ৩৫/২)
বরিশাল বিভাগের লিড ৫ রান।