Scores

শাস্তি দেওয়ায় বাবাকে ক্রিসমাসের উপহার দেবেন না ব্রড

ব্রড পরিবারের মাধ্যমে বিরল এক ঘটনা দেখল ক্রিকেট দুনিয়া। পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যানচেস্টার টেস্টে অপ্রীতিকর ভাষা প্রয়োগের অভিযোগে শাস্তি পেয়েছেন ইংলিশ পেসার স্টুয়ার্ট ব্রড। এতে আইসিসির তরফ থেকে তাকে সাজা দিয়েছেন ম্যাচ রেফারি ক্রিস ব্রড, যিনি স্টুয়ার্ট ব্রডেরই বাবা। অভিমানী স্টুয়ার্ট ব্রড এবার শাস্তির জেরে বাবাকে ক্রিসমাসের উপহার দেবেন না!

শাস্তি দেওয়ায় বাবাকে ক্রিসমাসের উপহার দেবেন না ব্রড

ব্রডের বিরুদ্ধে অন ফিল্ড আম্পায়াররা অভিযোগ আনেন, শনিবার (৮ আগস্ট) পাকিস্তানের দ্বিতীয় ইনিংসে ৪৬তম ওভারে ইয়াসির শাহকে আউট করে অশোভন উদযাপন করেছেন তিনি। ব্রড আম্পায়ারদের আনা অভিযোগ মেনে নেওয়ায় কোনো আনুষ্ঠানিক শুনানির দরকার পড়েনি। তবে সাজার হাত থেকে বাঁচতে পারেননি।

Also Read - আইপিএলে দল না পেয়ে জুনিয়র স্টেইনের আত্মহত্যা







আইসিসির আইন অনুযায়ী তাকে ম্যাচ ফি’র ১৫ শতাংশ জরিমানা করা হয় এবং একটি ডিমেরিট পয়েন্ট জুড়ে দেওয়া হয়। বিষয়টি সবাই স্বাভাবিকভাবেই নিয়েছিলেন। কিন্তু চোখ কচলাতে হয় ম্যাচ রেফারির নাম দেখে। ব্রডকে সাজা দিয়েছেন যিনি, তিনি সিনিয়র ব্রড অর্থাৎ ব্রডের বাবা ক্রিস ব্রড!

অন্য সব বিষয়ের মত এই বিষয়ও টুইটার অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেছিল আইসিসি। ইংল্যান্ডের জনপ্রিয় ক্রিকেট সমর্থক গোষ্ঠী বার্মি আর্মি রিটুইট করে স্মরণ করিয়ে দেয়, স্টুয়ার্ট ব্রডকে শাস্তি দিয়েছেন তারই বাবা। ঐ টুইটে রসিক ব্রড করে বসেন মজাদার এক মন্তব্য। তিনি লিখেন-

‘ক্রিসমাসের উপহার ও কার্ডের তালিকা থেকে তিনি বাদ পড়লেন!’





ব্রডের এই রসিকতা বেশ উপভোগ করেছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীরা, এ নিয়ে চলছে আলোচনাও।


বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 

Related Articles

বোলিংয়ে নতুন অস্ত্র যোগ করছেন রশিদ

৬টি কেক কেটে যুবরাজের ‘৬ ছক্কা’র বর্ষপূর্তি উদযাপন

জম্মু-কাশ্মিরে দশটি স্কুল ও ক্রিকেট একাডেমি বানাবেন রায়না

সীমান্ত খুললেও দক্ষিণ আফ্রিকায় ফিরছে না আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

জার্গেনসেনের চুক্তি বাড়ল দুই বছর