শুভাগতর ‘১০’ উইকেটে ম্লান মিঠুন, চ্যাম্পিয়ন ঢাকা বিভাগ

0
1397

জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) শেষ রাউন্ডে খুলনা বিভাগকে ১৭৯ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়ে ২৩তম আসরের শিরোপা জয় করলো ঢাকা বিভাগে। ১০ উইকেট শিকার করেছেন ঢাকার অলরাউন্ডার শুভাগত হোম। ৭ উইকেট নিয়ে চমক দিয়েছেন উইকেটরক্ষক হিসেবে ক্যারিয়ার গড়া মোহাম্মদ মিঠুন।

শুভাগতর '১০' উইকেটে ম্লান মিঠুন, ঢাকার বড় জয় (2)
ম্যাচে ১০ উইকেট নিয়েছেন শুভাগত হোম

বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৩ নং মাঠে টস জিতে ব্যাট করতে নেমেছিল ঢাকা বিভাগ। প্রথম ইনিংসে তারা সংগ্রহ করে ৩৩৫ রান। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৯২ রান করেন মাহিদুল ইসলাম অঙ্কান। নাদিফ চৌধুরী করেন ৫৩ রান। আব্দুল মজিদ ও তাইবুর রহমান, উভয়েই ৩২ রান করে করেন। শুভাগতর ব্যাট থেকে আসে ২১ রান।

Advertisment

খুলনার পক্ষে আল-আমিন হোসেন ও সৌম্য সরকার তিনটি করে এবং মৃত্যঞ্জয় চৌধুরী ও টিপু সুলতান দুইটি করে উইকেট শিকার করেন।

প্রথম ইনিংসে খুলনা অলআউট হয় ২১৩ রানে। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৫ রান করেন জাতীয় দল থেকে বাদ পড়া সৌম্য। ইমরুল কায়েসের ব্যাট থেকে আসে ২৩ রান। এছাড়া আর কেউ বিশের কোটা পেরোতে পারেননি। এনামুল হক বিজয় ৩৩ বলে ১৬ রান ও অধিনায়ক মোহাম্মদ মিঠুন ১৯ বলে ৩ রান করেন।

প্রথম ইনিংসেই ঢাকা বিভাগ পায় ১২২ রানের লিড। ঢাকার পক্ষে সাতটি উইকেট শিকার করে খুলনাকে একাই ধ্বসিয়ে দেন শুভাগত। বাকি তিনটি উইকেট ঝুলিতে ঢোকান সুমন খান।

বল হাতে চমক দেখান মোহাম্মদ মিঠুন

দ্বিতীয় ইনিংসে খুলনার বোলিং বিভাগের দ্বায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নেন অধিনায়ক মিঠুন। ৮ উইকেটে ২৫৬ রান নিয়ে ইনিংস ঘোষণা করে ঢাকা বিভাগ। ঢাকার পতন হওয়া আটটি উইকেটের মধ্যে সাতটিই শিকার করেন মিঠুন। ২০.৩ ওভার বোলিং করে তিনি খরচ করেন ৭৫ রান।

জয়ের জন্য খুলনার সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩৭৯ রান। এবার শুভাগতর সাথে বল হাতে আক্রমণ করেন তাইবুরও। তাদের সামনে ব্যর্থ হয়েছেন খুলনার ব্যাটাররা। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪০ রান করেন নাহিদুল ইসলাম। তিনি খেলেন ১০৯টি বল। এছাড়া ইমরানউজ্জামান ৩২ ও মৃত্যঞ্জয় চৌধুরী ২৯ রান করেন।

ইমরুল কায়েস ৩৫ বলে ৩ রান করে সুমনের শিকার হন। অধিনায়ক মিঠুন ৪২ বলে ১৪ রান করে তাইবুরের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে সাজঘরে ফেরেন। খুলনার পক্ষে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করেননি বিজয়। খুলনার ইনিংস থামে ১৯৯ রানে। ফলে ঢাকা পেলো ১৭৯ রানের জয়। একমাত্র দল হিসেবে প্রথম স্তরে তিন জয়ে আসরের চ্যাম্পিয়ন হলো তারা।

দ্বিতীয় ইনিংসে শুভাগত তিনটি ও তাইবুর পাঁচটি উইকেট নিয়েছেন। ম্যাচে ১০ উইকেট শিকার ও ব্যাট হাতে ৫৩ রান করে ম্যাচ সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন শুভাগত হোম।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

টস ঢাকা বিভাগ

ঢাকা বিভাগ ৩৩৫/১০ (১ম ইনিংস)

খুলনা বিভাগ ২১৩/১০ (১ম ইনিংস)

ঢাকা বিভাগ ২৫৬/৮ (২য় ইনিংস)

খুলনা বিভাগ ১৯৯/১০ (২য় ইনিংস)
নাহিদুল ৪০, ইমরান ৩২, মৃত্যঞ্জয় ২৯;
তাইবুর ৫/৪০, শুভাগত ৩/৬৬।

ঢাকা বিভাগ ১৭৯ রানে জয়ী।

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।