Scores

শেষ ওভারে সাকিবকে দেখে অবাক কলকাতাও!

শেষ ওভারে জয়ের জন্য প্রয়োজন ১৩ রান। ক্রিজে আন্দ্রে রাসেলের মত ব্যাটসম্যান, যার দিনে কোনো বোলারই পাত্তা পান না। তার সঙ্গী শুভম্যান গিল, যিনি বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ের জন্য খ্যাত। মাত্র ৪ বলেই কলকাতা নাইট রাইডার্সের জয় তুলে নেওয়ায় সাকিব আল হাসানের ঘাড়ে দায় চাপাতে পারে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। তবে দলটির সিদ্ধান্তেও কি কোনো ভুল ছিল না?

শেষ ওভারে সাকিবকে দেখে অবাক কলকাতাও!

রবিবার (২৪ মার্চ) চলমান ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) দ্বিতীয় ম্যাচে স্বাগতিক কলকাতার মুখোমুখি হয়েছিল সাকিবের দল হায়দরাবাদ। হায়দরাবাদের ছুঁড়ে দেওয়া ১৮২ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে একপর্যায়ে খেই হারালেও আন্দ্রে রাসেলের বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে ভর করে ম্যাচে ফেরে কলকাতা। শেষ ওভারে জয়ের জন্য দলটির প্রয়োজন ছিল ১৩ রান। সাকিবের করা ঐ ওভারের প্রথম ৪ বলেই কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছে যান রাসেল।

Also Read - মারুফের টানা দ্বিতীয় শতকে রূপগঞ্জের জয়


শেষ ওভারের মত ঝুঁকিপূর্ণ সময়ে সাকিবের মত বাঁহাতি স্পিনারকে বল তুলে দেওয়ায় অবাক হয়েছে খোদ কলকাতাই। দলটি ভাবেনি- শেষ ওভারে সাকিব থাকবেন বল ডেলিভারির দায়িত্বে।

হায়দরাবাদের জয়ের অন্যতম নায়ক নিতিশ রানা বলেন, ‘ক্রিজে ছিলেন আন্দ্রে রাসেল ও শুভম্যান গিল। তারা উইকেটে থাকা অবস্থায় বাঁহাতি স্পিনারকে এনে ভুল করেছে হায়দরাবাদ।’

তার মতে, ‘(সাকিবের পরিবর্তে) শেষ ওভারে অন্য কেউ বোলিং করলে ম্যাচের ফলাফল ভিন্ন হতে পারত।’

নিয়মিত অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের চোটের কারণে এই ম্যাচে হায়দরাবাদের অধিনায়ক ছিলেন ভুবনেশ্বর কুমার। নিজে পেসার হওয়া সত্ত্বেও শেষ ওভার করার ঝুঁকি নেননি তিনি, নিজের বোলিংয়ের কোটা শেষ করেছেন আগেই। এই সিদ্ধান্ত রীতিমত বোকামো ঠেকছে কলকাতার হয়ে সর্বোচ্চ স্কোর গড়া নিতিশের কাছে।

নিতিশ বলেন, ‘শেষ ওভারটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ ছিল। সেসময় ভুবনেশ্বর বা অন্য কেউ বোলিং করলে ম্যাচের ফলাফল ভিন্ন হতে পারত। আমার মনে হয়, তাদের পরিকল্পনা ভেস্তে গিয়েছিল। রাসেল-গিল ক্রিজে থাকলে ফাইনাল ওভারে কোনোভাবেই আপনি স্পিনার আনতে পারেন না।’

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

সর্বশেষ আইপিএল ‘শাপে বর’ হয়েছে সাকিবের জন্য!

“বিশ্বকাপে কন্ডিশন নয়, চাপ সামলানোই বেশি গুরুত্বপূর্ণ”

রক্তাক্ত অবস্থাতেও ব্যাটিং করে যাচ্ছিলেন ওয়াটসন

আইপিএল ২০১৯: একনজরে পুরস্কারসমূহ

আইপিএলের শ্বাসরুদ্ধকর ফাইনাল নিয়ে টুইটারে ঝড়