Score

শোয়েব আখতারকে পেছনে ফেললেন মাশরাফি

ভারতের বিপক্ষে এশিয়া কাপের সুপার ফোর পর্বের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারলেও ম্যাচে অনন্য একটি অর্জনের দেখা পেয়েছেন বাংলাদেশ দলনেতা মাশরাফি মুর্তজা। ভারতের সাবেক অধিনায়ন মহেন্দ্র সিং ধোনিকে আউট করার মধ্য দিয়ে ওয়ানডে ফরম্যাটে উইকেট সংখ্যার দিক দিয়ে গতকাল শোয়েব আখতারকে ছাড়িয়ে গেছেন তিনি।

যেখানে সবার উপরে মাশরাফি

ইনিংসের ৩৫ ওভার পর্যন্ত উইকেটশূন্য থাকলেও ৩৬তম ওভারে এসে সাফল্যের মুখ দেখেন নড়াইল এক্সপ্রেস। তার করা ওভারের তিন নম্বর বলটি উড়িয়ে খেলতে গেলে মোহাম্মদ মিঠুনের তালুবন্দী হয়ে সাজঘরে ফিরেন ৩৩ রান করা ধোনি।

Also Read - রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে পাকিস্তানের জয়

আর এ উইকেট শিকার দিয়েই একদিনের লড়াইয়ে পাকিস্তানের সাবেক গতিতারকা শোয়েব আখতারের চেয়ে বেশি উইকেট শিকারের কীর্তিতে নাম লেখান টাইগার এ পেসার।

২০০১ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পথচলা শুরুর পর এখনো পর্যন্ত মোট ১৯৩টি ওয়ানডে ম্যাচে অংশ নিয়েছেন মাশরাফি। ১৯৯ ইনিংসে বল করে যেখান থেকে নিজের নামের পাশে যুক্ত করেছেন ২৪৮টি উইকেট। যা তাকে নাম লেখাতে সাহায্য করেছে অনন্য এ অর্জনের ভাগীদার হতে।

১৯৯৮ সাল থেকে ২০১১ পর্যন্ত ১৩ বছরের ওয়ানডে ক্যারিয়ারে পাকিস্তানের সাবেক পেসার শোয়াব আখতার ১৬৩ ম্যাচ খেলে নিজের ঝুলিতে নিয়েছিলেন ২৪৭ টি উইকেট।

সিরিজ শুরুর আগে একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি উইকেটশিকারি বোলারদের তালিকায় ২৬তম অবস্থানে থেকে এশিয়া কাপ শুরু করলেও এ অর্জনের পর এক ধাপ এগিয়ে এ মুহূর্তে তালিকায় তার অবস্থান ২৫তম স্থানে। ৫ উইকেট কম নিয়ে তালিকার ২৭তম অবস্থানে রয়েছেন আরেক বাংলাদেশি বোলার সাকিব আল হাসান।

পাকিস্তানি গতিতারকাকে টপকানোয় ২৫০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করার পাশাপাশি এবার তার সামনে সুযোগ কপিল দেব, মাখায়া এনটিনিদের মতো আরও একাধিক কিংবদন্তি বোলারদের এ তালিকায় টপকে যাওয়ার।

উল্লেখ্য, একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৫৩৪ উইকেট নিয়ে সর্বাধিক উইকেট শিকারি বোলার শ্রীলঙ্কার মুত্তিয়া মুরালিধরণ। তার পরের অবস্থানে রয়েছেন পাকিস্তানি সাবেক কিংবদন্তি পেসার ওয়াসিম আকরাম। একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এ দুই বোলার ছাড়া আর কোনো বোলারই ৫০০ উইকেট শিকারি ক্লাবে নাম লেখাতে পারেনি।


আরও পড়ুনঃ ব্যর্থ আশরাফুল, ২ রানের আক্ষেপ সৌম্যর

Related Articles

মেডিকেল রিপোর্টের উপরেই নির্ভর করছে সাকিবের এনওসি

এই মিরাজ অনেক আত্মবিশ্বাসী

মিঠুনের ‘মূল চরিত্রে’ আসার তাড়না

‘আঙুলটা আর কখনো পুরোপুরি ঠিক হবে না’

এক নয় মাশরাফির তিন ইনজুরি