Scores

শ্বাসরুদ্ধকর লড়াইয়ের পর সুপার ওভারে জিম্বাবুয়ের জয়

রাওয়ালপিন্ডিতে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে সুপার ওভারে পাকিস্তানকে হারিয়েছে জিম্বাবুয়ে। আগের দুই ম্যাচ জিতে পাকিস্তান সিরিজ নিশ্চিত করলেও শেষ ম্যাচের ম্লান পারফরম্যান্সের কারণে সফরকারীদের হোয়াইটওয়াশ করতে পারেনি।

পাকিস্তানের বিপক্ষে বড় জয়ে হোয়াইটওয়াশ এড়াল জিম্বাবুয়ে



টস জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ২৭৮ রান জড়ো করে জিম্বাবুয়ে। দলের পক্ষে শতক হাঁকান শন উইলিয়ামস। ১৩৫ বলের মোকাবেলায় ১১৮ রান করে অপরাজিত থাকেন ১৩টি চার ও ১টি ছক্কা হাঁকিয়ে। মোহাম্মদ হাসনাইনের বোলিং তোপে সতীর্থরা যখন দিশেহারা, তখন গড়ে তোলেন প্রতিরোধের দেয়াল।

Also Read - নিজেকে উজাড় করে সব ফরম্যাটের জন্য প্রস্তুত হচ্ছেন নাঈম

উইলিয়ামস ছাড়াও চওড়া ছিল ফর্মে থাকা ব্রেন্ডন টেলর ও সিকান্দার রাজার ব্যাট। টেলর ৬৮ বলে ৫৬ ও রাজা ৩৬ বলে ৪৫ রান করেন। পাকিস্তানের পক্ষে জিম্বাবুয়ের ইনিংসের প্রথম পাঁচটি উইকেটই শিকার করেন হাসনাইন, যা তার ক্যারিয়ারের প্রথম পাঁচ উইকেট শিকারের কীর্তি। যদিও তার বোলিং কোটা পূর্ণ হওয়ার পর বলার মত সাফল্য পায়নি স্বাগতিকরা। আগের ম্যাচে ভালো করা মোহাম্মদ মুসা ১০ ওভারে বিলি করেন ৮০ রান।

উইলিয়ামসনের শতকে পাকিস্তানকে লজ্জায় ডুবাল জিম্বাবুয়ে

জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে পাকিস্তান খেই হারায় শুরুতেই। দলীয় ৪ রানেই সাজঘরের পথ ধরেন ওপেনার ইমাম উল হক। এরপর দলীয় ৬ রানে আরেক ওপেনার ফখর জামান ও ২০ রানে তরুণ ব্যাটসম্যান হায়দার আলিকে হারিয়ে ভীষণ চাপে পড়ে যায় পাকিস্তান।

একপ্রান্ত আগলে রেখে সেই চাপ সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেন বাবর আজম। তবে মোহাম্মদ রিজওয়ান (১০) ও ইফতিখার আহমেদ (১৮) তার যোগ্য সঙ্গী হয়ে উঠতে পারেননি। ষষ্ঠ উইকেটে খুশদিল শাহের সাথে জমে যায় বাবরের জুটি। ৪৮ বলে ৩৩ রান করে খুশদিল বিদায় নিলে ভাঙে ৬৩ রানের পার্টনারশিপ। তবে খুশদিলের মতই বাবরকে দারুণ সঙ্গ দিতে থাকেন ওয়াহাব রিয়াজ। বাবর শতক পূর্ণ করলে ওয়াহাব তুলে নেন অর্ধশতক।

শেষপর্যন্ত অবশ্য জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়তে পারেননি ওয়াহাব। জয় থেকে ২৮ রান দূরে থাকতে ভাঙে ১০০ রানের পার্টনারশিপ। বিদায়ের আগে ৫৬ বলে ৫২ রান করা ওয়াহাব হাঁকান তিনটি করে চার-ছক্কা। শাহীন শাহ আফ্রিদি গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ৫ বলে ২ রান করে ফেরেন সাজঘরে। পরের বলে বাবরকেও ফিরতে হয় সাজঘরে। ১২৫ বলে ১২৫ রান করা বাবর হাঁকান ১৩টি চার ও ১টি ছক্কা।

শেষ ওভারে জয়ের জন্য পাকিস্তানের প্রয়োজন ছল ১৩ রান। প্রথম বলেই চাক হাঁকান মোহাম্মদ মুসা। শেষ বলে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ৫ রান। মুসার হাঁকানো শট এক্সট্রা কভারে থাকা ফিল্ডারের হাতের পাশ দিয়েই চার হয়ে গেলে ম্যাচ গড়ায় সুপার ওভারে। জিম্বাবুয়ের পক্ষে ব্লেসিং মুজারাবানি শিকার করেন পাঁচটি উইকেট। এছাড়া দুটি করে উইকেট পান রিচার্ড এনগারাভা ও ডোনাল্ড টিরিপানো।

 

সুপার ওভারের প্রথম বলেই পাকিস্তান হারায় ইফতিখার আহমেদকে। দ্বিতীয় বলে ক্যাচ হাতছাড়া করেন সিকান্দার রাজা, যিনি মূল ইনিংসে বাবরের ক্যাচ হাতছাড়া করেন। তৃতীয় বলেও দ্বিতীয় বলের মত আসে ১ রান। তবে রাজার ভুলে খুব একটা ক্ষতি হতে দেননি মুজারাবানি। এক ম্যাচে ৭ উইকেট শিকার করা পেসার চতুর্থ বলে খুশদিলকে বোল্ড করলে সুপার ওভারের নিয়ম অনুযায়ী ২ রানে অলআউট হয় পাকিস্তান। এতে জিম্বাবুয়ের লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩ রান!

রাজা প্রথম বলেই এক রান নিয়ে স্ট্রাইক এনে দেন টেলরকে। দ্বিতীয় বলে কোনো রান না এলেও তৃতীয় বলে ভুল ফিল্ডিংয়ের সুযোগ কাজে লাগিয়ে কাঙ্ক্ষিত রানের দেখা পেয়ে যান টেলর। এতে শ্বাসরুদ্ধকর জয় পায় সফরকারী, এড়ায় হোয়াইটওয়াশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর 

টস : জিম্বাবুয়ে

জিম্বাবুয়ে : ২৭৮/৬ (৫০ ওভার)
উইলিয়ামস ১১৮*, টেলর ৫৬, রাজা ৪৫
হাসনাইন ২৬/৫, ওয়াহাব ৬৫/১

পাকিস্তান : ২৭৮/৯ (৫০ ওভার)
বাবর ১২৫, ওয়াহাব ৫২, খুশদিল ৩৩
মুজারাবানি ৪৯/৫, টিরিপানো ৩৯/২, এনগারাভা ৬২/২

ফল : ম্যাচ টাই, সুপার ওভারে জিম্বাবুয়ে জয়ী।

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 


Related Articles

‘অসাধারণ, প্রকাশ করার মতো না’- তামিমের নেতৃত্ব নিয়ে সাইফ

রশিদের অলরাউন্ড নৈপুণ্যে হোয়াইটওয়াশ আয়ারল্যান্ড

‘আমরা যেমন একজনকে খুঁজছিলাম, হাসান ঠিক তেমনই’

টাইগারদের পারফর্মে ‘৮৫’ শতাংশ খুশি তামিম

আইপিএলের জন্য পিছিয়ে গেল টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল