সবদেশের বিপক্ষে তামিমের সেরা ইনিংসগুলো

0
2624

মাত্র আঠারো বছর বয়সে জাতীয় দলে অভিষেক তামিম ইকবালের। একযুগ ধরে খেলছেন জাতীয় দলে। হয়ে উঠেছেন সেরাদের সেরা একজন। দেশ ও বিশ্বক্রিকেটের অনেক রেকর্ড এখন তার নামের পাশে। আজ তামিমের ৩০তম জন্মদিন।

কঠিন"-ছিল-প্রথম-দশ-ওভার

Advertisment

২০০৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে ম্যাচ দিয়ে জাতীয় দলে অভিষেক হয় তামিমের। একই বছর উইন্ডিজে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচে দুর্দান্ত এক ম্যাচজয়ী ইনিংস খেলে নিজের জাত চিনিয়েছিলেন। এরপর থেকে আর পিছবে ফিরতে হয়নি তাকে। পরের বছর জানুয়ারিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক হয় তামিমের।

একযুগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তিন ফরম্যাট মিলিয়ে ৩২২টি ম্যাচ খেলেছেন তামিম ইকবাল। ২১টি শতকে মোট ১২৪০০ রান সংগ্রহ করেছেন এই বামহাতি ব্যাটসম্যান। প্রথম বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসেবে ওয়ানডে ক্রিকেটে ৪০০০, ৫০০০ ও ৬০০০ রানের মাইলফলক ছুঁয়েছেন তামিম ইকবাল। একমাত্র এশীয় ক্রিকেটার হিসেবে টেস্টে দুইশতাধিক, ওয়ানডে ক্রিকেটে দেড় শতাধিক ও টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে শতাধিক রানের ইনিংস আছে তামিমের।

বিদেশের মাটিতে এশিয়ার সেরাদের কাতারে তামিম

ঘরোয়া ক্রিকেটে দেশি-বিদেশি মিলিয়ে মোট ১১টি দলের জার্সি গায়ে চাপিয়েছেন চট্টগ্রামের এই সন্তান। প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে লর্ডসে সেঞ্চুরি করে অর্নাস বোর্ডে নাম তুলেছিলেন তিনি। ২০১১ সালে উইজডেন ক্রিকেটার্স অ্যালমেনাক ম্যাগাজিন কর্তৃক বছরের সেরা পাঁচ ক্রিকেটারের একজন হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবাল।

ব্যাট হাতে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় এক ভরসার নাম তামিম ইকবাল। জাতীয় দলের হয়ে তিন ফরম্যাটে মোট ১৪টি দলের বিপক্ষে মাঠে নেমেছেন তিনি। ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ ২০৬ রান করেছেন পাকিস্তানের বিপক্ষে।

দেখে নিন তিন ফরম্যাট মিলিয়ে কোন দলের বিপক্ষে সর্বোচ্চ রান কত তামিমের-

১. পাকিস্তানের বিপক্ষে ২০৬ (টেস্ট)।
২. জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১৫৪ (ওয়ানডে)।
৩. ভারতের বিপক্ষে ১৫১ (টেস্ট)
৪. উইন্ডিজের বিপক্ষে অপরাজিত ১৩০ (ওয়ানডে)।
৫. আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ১২৯ (ওয়ানডে)।
৬. ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১২৮ (টেস্ট)।
৭. শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১২৭ (ওয়ানডে)
৮. নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১২৬ (টেস্ট)।
৯. আফগানিস্তানের বিপক্ষে ১১৮ (ওয়ানডে)
১০. ওমানের বিপক্ষে অপরাজিত ১০৩ (টি-টোয়েন্টি)।
১১. অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৯৫ (ওয়ানডে)
১২. স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ৯৫ (ওয়ানডে)।
১৩. নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে অপরাজিত ৮৩ (টি-টোয়েন্টি)।
১৪. দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৮২ (ওয়ানডে)।